Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২৩:২৪

ক্ষমতায় যেই আসুক দেশের উন্নয়ন কেউ থামাতে পারবে না

প্রধানমন্ত্রী

প্রতিদিন ডেস্ক

ক্ষমতায় যেই আসুক দেশের উন্নয়ন কেউ থামাতে পারবে না

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগামী ইলেকশনে কী হবে তা বলতে পারি না। তবে আমরা যে সিস্টেম করে রেখেছি, তাতে যে-ই ক্ষমতায় আসুক না কেন, কেউ দেশের উন্নয়নে বাধা দিতে পারবে না। বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়াকে আর কেউ থামাতে পারবে না। বাসস।

প্রধানমন্ত্রী গতকাল সকালে রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে জাতীয় রপ্তানি ট্রফি ২০১৫-১৬ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে এ কথা বলেন। তিনি ব্যবসায়ীদের প্রতি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাজার খুঁজে পণ্য তৈরি এবং রপ্তানি বাড়ানোর আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, আমাদেরকে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে উত্তরণের সুযোগ গ্রহণ করে রপ্তানি বাণিজ্য বৃদ্ধিতে কর্মতৎপরতা আরও জোরদার করতে হবে। এ ক্ষেত্রে কোনো সহায়তা প্রয়োজন হলে তা আমরা করব। তিনি আরও বলেন, উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে আমরা যে সুযোগ পেয়েছি তাতে আমাদের ঋণ গ্রহণের সুবিধা হবে, ব্যবসা-বাণিজ্যের সুবিধা হবে। রপ্তানি বাণিজ্য করার জন্য আমাদের যে বিশাল সুযোগ সৃষ্টি হবে, সে সুযোগ আমাদের গ্রহণ করতে হবে। আর তার জন্য উপযুক্ত পরিবেশ সৃৃষ্টি করতে হবে। তার সরকার ব্যবসাবান্ধব, তবে নিজেরা ব্যবসায়ী নন— উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি সবসময়ই বলে এসেছি আমার সরকার ব্যবসা করবে না। ব্যবসা করবেন ব্যবসায়ীরা। আমরা সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করব। আমরা আপনাদের সৃজনশীল প্রয়াসে সহায়তাকারীর ভূমিকা পালন করে যাচ্ছি। আমরা সরকারে এসে ব্যবসা-বাণিজ্য যাতে ব্যবসায়ীদের জন্য সহজ হয়, সেই ব্যবস্থা করে দিয়েছি। শিল্পায়ন ছাড়া কোনো জাতির অর্থনৈতিক উন্নতি হয় না উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ লক্ষ্যে দেশের বিভিন্ন এলাকায় ইপিজেড তৈরি করা হচ্ছে। সমগ্র বাংলাদেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল করা হচ্ছে। ইপিজেড ও বিসিক স্টেটগুলোকে পুরোপুরি কার্যকর করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন জেলায় বিসিক শিল্পনগরীগুলোতে রপ্তানিমুখী পণ্য উৎপাদনের বিষয়টি বিবেচনা করা হচ্ছে। সেখানে বিদেশি বিনিয়োগ আসবে এবং মানুষের কর্মসংস্থান হবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, গোটা বাংলাদেশ যাতে উন্নত হয়, সেদিকে লক্ষ্য রেখেই কাজ করে যাচ্ছি। আমরা সব সময় চাই, আমাদের দেশ এগিয়ে যাক। এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মফিজুল ইসলাম অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণ দেন। অনুষ্ঠানে ২০১৫-২০১৬ অর্থবছরে বিভিন্ন পণ্য ও খাতভিত্তিক সর্বোচ্চ রপ্তানি আয়ের জন্য ৫৬টি প্রতিষ্ঠানকে ‘জাতীয় রপ্তানি ট্রফি’ প্রদান করা হয়।


আপনার মন্তব্য