শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ৫ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২৩:২৮

আর্থিক খাতে কঠোর শৃঙ্খলা প্রয়োজন

—শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন

আর্থিক খাতে কঠোর শৃঙ্খলা প্রয়োজন

আগামী সরকার ক্ষমতাসীন হওয়ার পর দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও আর্থিক খাতে কঠোর শৃঙ্খলা আনাই বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করেন বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশন (এফবিসিসিআই)-এর সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন। তিনি বলেন, দেশের মানুষের মনে বিশ্বাস জন্মেছে যে, আমরা পারি। এই বিশ্বাস ধরে রেখে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হবে। অর্থনৈতিক মুক্তির অগ্রযাত্রাকে এগিয়ে নিতে বেসরকারি খাত সর্বোচ্চ সামর্থ্য দিয়ে সরকারের পাশে থাকবে। গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন ব্যবসায়ী নেতা শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন। তিনি আরও বলেন, জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য-এসডিজি অর্জন আগামীতে বাংলাদেশের সামনে বিশাল চ্যালেঞ্জ। এক্ষেত্রে আমাদের সুশাসনের বিভিন্ন স্তরে উন্নতি করতে হবে। প্রশাসনের ভিতরে আরও উন্নতি করতে হবে। অবকাঠামো উন্নয়নের চলমান প্রকল্পগুলো দ্রুত ও নির্ধারিত সময়ে শেষ করতে হবে।

এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, দেশের বিকাশমান বেসরকারি খাত ভালোভাবে ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনা করতে পারলে, রোড শো করে বিদেশিদের ডেকে আনতে হবে না। বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের অগ্রযাত্রা দেখেই বিদেশিরা এখানে বিনিয়োগের জন্য লাইন ধরবে। বিশ্বব্যাংক, আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল—আইএমএফ ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক—এডিবি বাংলাদেশকে ঋণ দেওয়ার জন্য বসে আছে। আমাদের মধ্যেও একটা আস্থা তৈরি হয়েছে যে, আমরা নিজেদের সক্ষমতায় কিছু করতে পারি।

শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের জন্য এই সরকারের ধারাবাহিকতার কোনো বিকল্প নেই। সরকারের ধারাবাহিকতা না থাকলে, উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন হয় না। ক্ষমতার পালাবদলে তৈরি হয় রাজনৈতিক প্রতিহিংসা। সেই প্রতিহিংসায় হাজার হাজার উন্নয়ন প্রকল্প বাতিল হয়। মানুষ হয়ে পড়েন উন্নয়ন বঞ্চিত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন এই সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় বিশ্বের বুকে স্বগর্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে লাল-সবুজের বাংলাদেশ। নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ সারাবিশ্বে আজ অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। নারীর অর্থনৈতিক সক্ষমতা বাড়াতে এই সরকারের অবদান চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। এফবিসিসিআইর সভাপতি বলেন, আমাদের রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় অতীতে দেশের অর্থনীতি ধ্বংস হয়েছে। ব্যবসায়ী সমাজ আর ধ্বংসাত্মক রাজনীতি চায় না। তারা নির্বিঘ্নে ব্যবসা করতে চায়। রাজনীতিবিদরা উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি এগিয়ে নেবেন, এটাই ব্যবসায়ীদের প্রত্যাশা। স্থিতিশীল সরকার দেশকে উন্নতির দিকে এগিয়ে নেয়। সে জন্য সাধারণ মানুষ মনে করেন, দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি হলে, তারাই ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। তাই সাধারণ মানুষ শান্তি ও স্থিতিশীলতার পক্ষে।


আপনার মন্তব্য