শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১০ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ মার্চ, ২০১৯ ২৩:০৩

ডিএমপি কমিশনারের ব্রিফিং

সাত স্পটে তল্লাশি কঠোর নিরাপত্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন ঘিরে পরিচয়পত্র ছাড়া কাউকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া। গতকাল সকালে রাজধানীর শাহবাগ থানায় এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় ঢাবির প্রক্টর অধ্যাপক গোলাম রব্বানী উপস্থিত ছিলেন। ডিএমপি কমিশনার বলেন, ঢাবি ক্যাম্পাসে ২৪ ঘণ্টার জন্য বহিরাগতদের প্রবেশ ও যানবাহনে নিষেধাজ্ঞা থাকবে। আজ সন্ধ্যা ৬টা থেকে আগামীকাল সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক, কর্মচারী, কর্মকর্তা এবং কর্তব্যরতরা ছাড়া কেউ বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করতে পারবেন না। নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার সাত স্পটে তল্লাশি করবে পুলিশ। ডাকসু নির্বাচন ঘিরে শাহবাগ, নীলক্ষেত, পলাশী, জগন্নাথ হল ক্রসিং, রুমানা ক্রসিং, শহিদুল্লাহ হল ক্রসিং ও হাইকোর্ট ক্রসিংয়ে ব্যারিকেড থাকবে। সেখান দিয়ে শুধু পরিচয়ধারীরা প্রবেশ করতে পারবেন। স্টিকারযুক্ত মোটরসাইকেল ও গাড়ি ভিতরে প্রবেশ করতে পারবে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে যাতায়াতকারীদের বকশিবাজার ও চাঁনখারপুল ব্যবহার করতে হবে। ডিএমপি কমিশনার বলেন, ডাকসু নির্বাচনে চমৎকার পরিবেশ বিরাজ করছে। ঢাবির ঐতিহ্য সমুন্নত রাখতে সবার সহযোগিতা কামনা করেন তিনি। ইলেকট্রনিক মিডিয়ার চারজন এবং প্রিন্ট মিডিয়ার দুজন সাংবাদিক ও একজন ক্যামেরাম্যান ডিউটি পাস সাপেক্ষে ভিতরে প্রবেশ করতে পারবেন। কোনোরকম দাহ্য পদার্থ ও নিরাপত্তা হুমকি এমন সব বস্তু নিয়ে ভিতরে প্রবেশ করা যাবে না। ডিএমপি প্রধান বলেন, নির্বাচন উপলক্ষে পুলিশ ও র‌্যাব প্রস্তুত থাকবে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ নির্দেশ দিলেই তারা দায়িত্ব পালন করবে। হলে হলে ভোট কেন্দ্র হবে। প্রত্যেকটি ভোট কেন্দ্র সিসিটিভির আওতায় আনা হয়েছে। আর্চওয়ে ও মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে তল্লাশি করে ভিতরে প্রবেশ করানো হবে। শিক্ষক, প্রক্টরিয়াল বডি ও বিএনসিসি নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করবে। এরই মধ্যে গোয়েন্দা সংস্থা ঢাবি এলাকায় তল্লাশি এবং নজরদারি বাড়িয়েছে। কেউ কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলার চেষ্টা করলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। সেক্ষেত্রে আমরা সম্পূর্ণভাবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে সহযোগিতা করব। অপরাধীর দলীয় পরিচয় যাই হোক তাকে ছাড় দেওয়া হবে না। ডাকসু নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য আমাদের প্রস্তুতি রয়েছে।


আপনার মন্তব্য