Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper

শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ অক্টোবর, ২০১৯ ২৩:৩৪

মধুর ক্যান্টিন থেকে ছাত্রদলকে পিটিয়ে বের করে দিল ছাত্রলীগ

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

মধুর ক্যান্টিন থেকে ছাত্রদলকে পিটিয়ে বের করে দিল ছাত্রলীগ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিন প্রাঙ্গণে গতকাল ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা -বাংলাদেশ প্রতিদিন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের ওপর রবিবার দুপুর ১২টার পর হামলা চালিয়েছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। এতে ছাত্রদলের নয়জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছে দাবি করে হামলার জন্য ছাত্রলীগকে দায়ী করেছে আক্রান্তরা। 

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল ও সাধারণ সম্পাদক আল মামুনের নেতৃত্বে এই হামলা হয়। ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামলের নামের ফেসবুক আইডির বায়োতে ‘বিতর্কিত’ একটি লেখার জেরে ছাত্রদলকে ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলন করছিল মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। এ সময় ছাত্রদলের কয়েকজন নেতা-কর্মী সেখানে গিয়ে চেয়ার টেবিল না পেয়ে মধুর ক্যান্টিনের মেঝেতে বসে পড়েন। সংবাদ সম্মেলন শেষ করে বুলবুল উঠে গিয়ে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের চড়-থাপ্পড় মারতে শুরু করেন। পরে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফেরদৌস আলম, মঞ্চের ঢাবি সভাপতি সনেট মাহমুদ ও ঢাবি ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসিন আরাফাত তুর্যসহ সংগঠনটির প্রায় ২০ জন নেতা-কর্মী ওই হামলায় যোগ দেয়। এরপরে মধুর ক্যান্টিনের বাইরে বিভিন্ন জায়গায় আরও কয়েকদফা হামলা চালানো হয় ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের ওপর। আহতদের মধ্যে রয়েছে ছাত্রদলের সাবেক সহ-তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মামুন খান, সাবেক সহ-নাট্য বিষয়ক সম্পাদক আবদুল মাজেদ, জিয়া হল ছাত্রদলের যুগ্ম-আহ্বায়ক শাহজাহান শাওন, তারেক হাসান মামুন, বঙ্গবন্ধু হলের যুগ্ম-আহ্বায়ক শরীফ আহমেদ প্রধান, মুহসীন হলের সদস্য সাজেদুর রহমান চৌধুরী। আহতরা ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হামলার বিষয়টি স্বীকার করেছেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল। তিনি বলেন, ওরা ’৭৫-এর হাতিয়ার গর্জে উঠুক আরেকবার এই স্লোগান দেয় মধুর ক্যান্টিনে। আপনারা জানেন ’৭৫ এ জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মাধ্যমে বিএনপির জন্ম হয়েছে। আমরা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের যারা আছি, আমরা ঘোষণা দিয়েছি, ’৭৫-এর হাতিয়ার নিয়ে যারা কাজ করবে তাদের প্রতিহত করব।

ছাত্রলীগ হামলা করেছে, অভিযোগ ছাত্রদলের : মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রদলের ওপর হামলা ছাত্রলীগ-ই করেছে বলে অভিযোগ করেছে ছাত্রদল। হামলার প্রতিবাদে বিকালে ঢাবি সাংবাদিক সমিতি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন ছাত্রদলের ঢাবি শাখার সভাপতি আল মেহেদী তালুকদার ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান। ওই হামলায় কয়েকজন নারী নেত্রীকেও লাঞ্ছিত করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তারা। এ সময় সহাবস্থানের প্রকৃত পরিবেশ নিশ্চিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন দৃশ্যমান কোনো ভূমিকা পালন করছে না বলেও অভিযোগ করেন নেতৃবৃন্দ। আল মেহেদী তালুকদার বলেন, হামলার সঙ্গে যারা জড়িত, তারা সবাই ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী। তাই ছাত্রলীগই এই হামলা চালিয়েছে। আগে আমাদের ওপর হামলা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ব্যবস্থা নিলে আজ এই ঘটনা ঘটত না। তবে, ছাত্রদলের অভিযোগের ব্যাপারে ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, এই হামলার সঙ্গে ছাত্রলীগ কোনোভাবেই জড়িত নয়। আমিনুল ইসলাম বুলবুল ছাত্রলীগ থেকে পদচ্যুত। আল মামুনেরও কোনো পদ নেই। তাই মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের ব্যানারে যেহেতু হামলা হয়েছে, এই দায় তাদেরই নিতে হবে।

ভুয়া আইডি থেকে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে, অভিযোগ ছাত্রদলের : এর আগে, দুপুর সোয়া ১১টার দিকে ছাত্রদলের নেতারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতিতে সংবাদ সম্মেলনে তাদের ফেসবুক আইডি হ্যাক করে অপপ্রচার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন। শনিবার ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামলের নামে ফেসবুকের একটি অ্যাকাউন্টের বায়োতে লেখা স্ক্রিনশর্ট ভাইরাল হয়। সেখানে লেখা ছিল ’৭৫-এর হাতিয়ার, গর্জে উঠুক আরেকবার’। তবে ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক দাবি করেন, তার কোনো ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নেই। সংবাদ সম্মেলনে ইকবাল বলেন, ছাত্রদল সভাপতি ফজলুর রহমান ও আমার ফেসবুক আইডি আমরা দায়িত্ব নেওয়ার পরই হ্যাক হয়েছে। এ বিষয়ে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় আমরা দুটি জিডিও করেছি। এরপরও আমার নামে ভুয়া আইডির একটি লেখা নিয়ে গুজব ছড়িয়েছেন দুর্নীতির দায়ে ছাত্রলীগ থেকে পদচ্যুত ডাকসুর জিএস গোলাম রাব্বানী। এ সময় তিনি প্রমাণ হিসেবে জিডির কপি দেখান। তিনি বলেন, সম্প্রতি গোলাম রাব্বানীর ভর্তি জালিয়াতির কথা জানা গেছে। সেটিকে ধামাচাপা দিতেই তিনি এই গুজব রটিয়েছেন। তার নামেও একাধিক ভুয়া আইডি আছে। সেগুলো দিয়ে সংঘটিত কোনো অপরাধের দায় তিনি কী নেবেন?


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর