শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:১২

সৌদি থেকে ফিরতে হলো আরও ১৪৫ বাংলাদেশিকে

নিজস্ব প্রতিবেদক

সৌদি থেকে ফিরতে হলো আরও ১৪৫ বাংলাদেশিকে

সৌদি আরব থেকে ফেরত পাঠানো হয়েছে আরও ১৪৫ বাংলাদেশিকে। গত শনিবার দিবাগত রাত ১২ টা ১৫ মিনিটে সৌদি এয়ারলাইন্সের এসভি-৮০২ ফ্লাইটে তারা দেশে ফেরেন। এ নিয়ে গত দেড় মাসে ভাগ্য বদলের আশায় সৌদিতে পাড়ি জমানো প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার বাংলাদেশি দেশে ফিরলেন। অধিকাংশই ফিরেছেন শূন্য হাতে। যাওয়ার খরচটাই তুলতে পারেননি অনেকে।

শনিবার রাতে ফেরত আসাদের একজন মো. শহিদুল ইসলাম জানান, মাত্র তিন মাস আগে তিন লাখ টাকা খরচ করে ড্রাইভিং কাজে গিয়েছিলেন সৌদি আরবে।  কোনো কারণ ছাড়াই তাকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। একটি টাকাও সঙ্গে আনতে পারেননি। মাত্র আট মাসের মাথায় দেশে ফিরেছেন নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার একই গ্রামের বিজয় মিয়া ও নাজির উদ্দিন। তারা বলেন, ড্রাইভিং ভিসায় যাওয়ার পর সেখানে নিয়োগকর্তা তাদের আকামা করেননি। পুলিশ ধরলে তারা নিয়োগকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তাদের দায়িত্ব নেননি নিয়োগকর্তা। একইভাবে ফিরেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আলামিন, নোয়াখালীর শাহজাহান, চাঁদপুরের আমিনুল, নারায়ণগঞ্জের হোসেন আলী, মৌলভীবাজারের পারভেজ মিয়া, সাতক্ষীরার ওবায়দুল্লাহ। প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কের সহযোগিতায় ফেরত আসাদের ব্রাক অভিবাসন কর্মসূচি থেকে জরুরি সহায়তা দেওয়া হয়। ব্রাক অভিবাসন কর্মসূচির প্রধান শরিফুল হাসান জানান, গত দেড়মাসে সৌদি আরব থেকে সাড়ে পাঁচ হাজার প্রবাসী ফিরেছেন যাদের অনেককেই যাওয়ার তিন মাস থেকে এক বছরের মধ্যে ফিরতে হয়েছে। নিয়োগকর্তা আকামা করে দিচ্ছেন না। পুলিশ ধরলে দায়িত্ব নিচ্ছেন না। প্রশ্ন হলো কারা তাহলে এই মানুষগুলোকে সৌদি আরব পাঠাল। এই প্রতারণা বন্ধ হওয়া উচিত। কাউকে যেন এভাবে শূন্য হাতে ফিরতে না হয় সেটা নিশ্চিত করা জরুরি। রিক্রুটিং এজেন্সি, দূতাবাস ও সরকার সবাই মিলে এই কাজটি করতে হবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর