শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:১৮

জিম্বাবুয়েকে উড়িয়েই দিল বাংলাদেশ

মেজবাহ্-উল-হক

জয়ের রাস্তাটা আগের দিনই তৈরি করে রেখেছিল বাংলাদেশ। গতকাল যেন কেবল আনুষ্ঠানিকতা সারলেন মুমিনুলরা। জিম্বাবুয়েকে ইনিংস ও ১০৬ রানের বিশাল ব্যবধানে হারাল বাংলাদেশ। টানা ছয় ম্যাচে পরাজয়ের অবশেষে জয়ের স্বাদ পেলেন টাইগাররা। টেস্টে বাংলাদেশের এটি ১৪তম জয়, জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে সপ্তম। জিম্বাবুয়ের ২৬৫ রানের জবাবে বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেটে ৫৬০ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে। ২৯৫ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে আগের দিন ৯ রান করতেই ২ উইকেট হারায় সফরকারীরা। গতকাল নাঈম হাসান ও তাইজুলের ঘূর্ণির সামনে দাঁড়াতেই পারেননি আফ্রিকার দলটির ব্যাটসম্যানরা। ইনিংস গুটিয়ে যায় ১৮৯ রানেই। প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেট নেওয়া নাঈমের দ্বিতীয় ইনিংসে শিকার ৫ উইকেট। দুর্দান্ত তাইজুল তুলে নিয়েছেন ৪ উইকেট। ডাবল সেঞ্চুরি করায় ম্যাচসেরা হয়েছেন মুশফিকুর রহিম। ম্যাচ  শেষে অধিনায়ক মুমিনুল বলেন, ‘আমরা দল হিসেবে খুবই ভালো খেলেছি। ব্যাটসম্যানরা যেমন বড় ইনিংস  খেলেছেন। বোলাররা অসাধারণ বোলিং করেছেন। নাঈমের কথা আলাদা করে বলতেই হবে। অন্যরাও যার যার জায়গা থেকে সেরা পারফরম্যান্স প্রদর্শন করেছেন। চমৎকার দলীয় সমন্বয়। এই জয়ে ছেলেরা অনেক আত্মবিশ্বাসী। আশা করি, ওয়ানডে সিরিজও আমরাই জিতব।’ সিরিজের একমাত্র টেস্টে দুরন্ত জয়ে স্বাগতিকরা যখন আনন্দে ভাসছে তখন সফরকারী শিবিরে হতাশার ছবি। অধিনায়ক ক্রেইগ আরভিন বললেন, ‘আমাদের পারফরম্যান্স ছিল খুবই হতাশাজনক। প্রথম ইনিংসের পরই ম্যাচ থেকে আমরা ছিটকে গেছি। যেখানে চার শতাধিক রান হওয়ার কথা সেখানে আমরা করেছি ২৬০ (২৬৫) রান। তারপর বোলাররাও ভালো করতে পারেননি। বাংলাদেশের বোলার কী চমৎকার বোলিং করেছে, কিন্তু আমাদের বোলাররা ছিল খুবই হতাশার। আশা করছি, ওয়ানডে সিরিজে অন্য চিত্র দেখা যাবে।’ সাদা পোশাকে জয় টাইগারদের ক্রিকেটারদের যে ‘বুস্ট-আপ’ করেছে তা টাইগারদের শরীরী ভাষা  দেখেই বোঝা যাচ্ছিল। এখন সাদা বলের লড়াইয়ে জিম্বাবুয়েকে উড়িয়ে দেওয়ার প্রতীক্ষায় বাংলাদেশ।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর