শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩০ মার্চ, ২০২০ ২৩:৪৭

দেশজুড়ে সেবা ও সচেতনতায় আইন প্রয়োগকারী সংস্থা

বিশেষ প্রতিনিধি

দেশজুড়ে সেবা ও সচেতনতায় আইন প্রয়োগকারী সংস্থা

সারা দেশে করোনাভাইরাস যাতে মহামারী আকারে ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্য সরকারের নির্দেশে দেশজুড়ে জনগণের সেবা ও সচেতনতায় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা। সেনাবাহিনী, পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরাও জনসচেতনতায় কাজ করছেন। গতকাল দেশের ৬২টি জেলায় সেনাবাহিনীর ৩৯৯টি দল করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে বিভিন্ন কার্যক্রমে অংশ নেয়। ৫ হাজারের বেশি সেনা সদস্য এসব কার্যক্রমে অংশ নেন বলে আন্তবাহিনী জনসংযোগ (আইএসপিআর) পরিদফতর থেকে জানানো হয়েছে। আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো এ-সংক্রান্ত তথ্য- চট্টগ্রাম : করোনা নিয়ে জনসচেতনতামূলক কাজে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সঙ্গে সমন্বয় করে নগরের বিভিন্ন এলাকায় অংশ নিয়েছেন সেনা সদস্যরা। গতকাল চট্টগ্রাম মহানগরের আগ্রাবাদ, ষোলশহর, পাঁচলাইশ ও বহদ্দারহাটের প্রধান প্রধান সড়ক, শাখা সড়ক ও আবাসিক এলাকার রাস্তায় জীবাণুনাশক ছিটানোর কার্যক্রম ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে সচেতনতামূলক কাজ করেন তারা। বরিশাল : করোনার সংক্রমণ এড়াতে সবাইকে ঘরে থাকার সরকারি নির্দেশ বাস্তবায়নে বিভিন্ন এলাকায় টহল দিচ্ছে সেনাবাহিনী। সকাল ১০টার পর থেকে নগরের রূপাতলী, বান্দ রোড, সদর রোড, বাংলাবাজার, গির্জামহল্লা, সিঅ্যান্ডবি রোড, নথুল্লাবাদ কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়কে টহল দেন লেফটেন্যান্ট আরাফাতের নেতৃত্বাধীন সেনা সদস্যরা। এ সময় তারা হ্যান্ডমাইকে করোনা সংক্রমণ এড়াতে জনগণকে সচেতন করেন এবং বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের না হয়ে নিজ নিজ ঘরে থাকার আহ্বান জানান। চাঁপাইনবাবগঞ্জ : সামাজিক সুরক্ষা নিশ্চিতে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখতে সেনা সদস্যরা বিভিন্ন মুদি দোকান ও ফার্মেসিতে চক দিয়ে বৃত্ত এঁকে দিচ্ছেন এবং ওই বৃত্তের মধ্য থেকে কেনাবেচার জন্য মানুষকে উদ্বুদ্ধ করছেন।

এ ছাড়া মানুষকে প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়ে মাইকে প্রচার চালান। লক্ষ্মীপুর : করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে ও হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতে কাজ করছেন সেনা সদস্যরা। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার চলমান প্রচারের অংশ হিসেবে জনসমাগম এড়িয়ে ঘরে থাকতে মাইকিং, মাস্ক বিতরণসহ জনগণকে আরও সচেতন করছে তারা। পঞ্চগড় : জেলায় ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সহায়তা দিচ্ছে সেনাবাহিনী। রংপুর অঞ্চলের সেনাবাহিনীর ৬৬ পদাতিক ডিভিশনের উদ্যোগে পঞ্চগড় চৌরঙ্গী মোড়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সহায়তা শুরু হয়। ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সহায়তা ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন ৬৬ পদাতিক ডিভিশনের জেনারেল কমান্ডিং অফিসার মেজর জেনারেল মো. নজরুল ইসলাম। দিনব্যাপী ক্যাম্পে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে অসুস্থ সুবিধাবঞ্চিত নারী-পুরুষের ব্যবস্থাপত্র, বিনামূল্যে ওষুধ, মাস্ক ও খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়। মাইকে করোনা নিয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টির প্রচারও চালানো হয়। ঠাকুরগাঁও : ঠাকুরগাঁও পুরন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় করোনাভাইরাস বিষয়ে সচেতনতামূলক প্রচার চালিয়েছে সেনাবাহিনী। কক্সবাজার : জনগণকে সচেতন করার অংশ হিসেবে পর্যটননগর কক্সবাজারে টহলকালে সেনা সদস্যরা হ্যান্ডমাইক দিয়ে জনসাধারণকে কোনো ধরনের গুজবে কান না দিয়ে ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। পাশাপাশি আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার পরামর্শ দেন। এ ছাড়া হোম কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম মেনে চলতে অনুরোধ করা হয়। এ ছাড়া কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন রাস্তাঘাটে সেনা সদস্যদের দেখা গেছে পথচারীদের হাতে ফুল দিয়ে বাড়ি ফেরার অনুরোধ করতে। কয়েকদিন ধরে কক্সবাজার সদরের বৃহত্তর ঈদগাহ বাজার, বাস স্টেশনসহ বিভিন্ন এলাকায় এ ধরনের দৃশ্য দেখা যাচ্ছে। সেনাবাহিনীর এমন উদ্যোগকে সম্মান জানিয়ে ঘরে ফিরেছেন পথচারীরাও। আলাউদ্দিন নামে আরেক ব্যক্তি জানান, পথচারীদের হাতে ফুল দিয়ে সেনা সদস্যরা করোনাভাইরাস সম্পর্কে অবগত করছেন। একই সঙ্গে বিনা কারণে বাজারে ঘোরাঘুরি না করে বাড়িতে অবস্থান করার অনুরোধ জানাচ্ছেন।


আপনার মন্তব্য