শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ জুলাই, ২০২০ ০০:১৮

রোগী ফেরতের অভিযোগ তদন্তে হাই কোর্টের নির্দেশ

অক্সিজেনের মূল্য নির্ধারণসহ পাঁচ দফা নির্দেশনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

চিকিৎসা না দিয়ে সাধারণ রোগীদের ফেরত পাঠানোর অভিযোগ তদন্ত করে ২১ জুলাইয়ের মধ্যে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। স্বাস্থ্য সচিব ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালককে অভিযোগ তদন্ত করে ২১ জুলাইয়ের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। গতকাল বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের ভার্চুয়াল হাই কোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেয়।

একইসঙ্গে বিনা চিকিৎসায় ফেরত পাঠানোর অভিযোগ অনলাইনে নেওয়ার পদ্ধতি চালু করতে স্বাস্থ্য অধিদফতরকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ১০ কার্যদিবসের মধ্যে অক্সিজেনের সিলিন্ডারের মূল্য নির্ধারণ করারও নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। হাসপাতালে ভর্তি ও চিকিৎসায় অবহেলায় রোগীর মৃত্যুর ঘটনায় ব্যবস্থা গ্রহণ, আইসিইউ বণ্টন, বেসরকারি হাসপাতাল অধিগ্রহণ, অক্সিজেন সরবরাহ নিয়ে ছয়টি রিট মামলায় আদালত মোট ৫টি নির্দেশনা দিয়েছে। নির্দেশনাগুলো হলো- এক. বিনা চিকিৎসায় রোগী ফেরতের ঘটনায় দায়েরকৃত রিটের অভিযোগগুলোর তদন্ত প্রতিবেদন ২১ জুলাইয়ের মধ্যে হাই কোর্টে দাখিল। দুই. ক্যান্সারসহ জটিল রোগের আক্রান্ত রোগীদের কভিড-১৯ থাকলে ৩৬/৪৮ ঘণ্টার মধ্যে টেস্ট করে চিকিৎসা অব্যাহত রাখা। তিন. ১০ কার্যদিবসের মধ্যে অক্সিজেনের মূল্য নির্ধারণ। চার. বেসরকারি হাসপাতালের আইসিইউ অথবা চিকিৎসার অস্বাভাবিক মূল্য রাখলে দুর্নীতি দমন কমিশনে অভিযোগ দায়ের করা। পাঁচ. বিনা চিকিৎসার বিষয়ে অভিযোগ দায়েরের জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতরে অনলাইনে অভিযোগ গ্রহণের পদ্ধতি চালু করা। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার অনিক আর হক, অ্যাডভোকেট ইয়াদিয়া জামান, অ্যাডভোকেট জামিউল হক ফয়সাল, ব্যারিস্টার একেএম এহসানুর রহমান ও ব্যারিস্টার মাহফুজুর রহমান মিলন। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার। এর আগে ৫টি রিট আবেদনে গত ১৫ জুন হাই কোর্টের দেওয়া নির্দেশনা ও অভিমতের মধ্যে ১৬ জুন ৭টি নির্দেশনা স্থগিত করেন আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতির আদালত। ৩টি নির্দেশনা বহাল রাখা হয়। এর মধ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারিকৃত নির্দেশনাসমূহ যথাযথভাবে পালিত হচ্ছে কিনা এ বিষয়ে ৩০ জুনের মধ্যে একটি প্রতিবেদন দাখিল করে স্বাস্থ্য অধিদফতর। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, চিকিৎসা না দিয়ে সাধারণ রোগীদের ফেরত পাঠানোর কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকসমূহ আইসিইউ-এ চিকিৎসাধীন কভিড-১৯ রোগীর কাছ থেকে মাত্রাতিরিক্ত বা অযৌক্তিক ফি আদায় না করতে পারে সে বিষয়ে মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। অক্সিজেন সিলিন্ডারের খুচরা মূল্য এবং রি-ফিলিংয়ের মূল্য নির্ধারণ করার ব্যবস্থা নিতে কেন্দ্রীয় ঔষধাগারের পরিচালককে (ভান্ডার ও সরবরাহ) নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর