শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:২৪

মানুষের হাতে অর্থ পৌঁছলে অর্থনীতির চাকা ঘুরবে

-ড. রাশেদ আল-মাহমুদ তিতুমীর

মানুষের হাতে অর্থ পৌঁছলে অর্থনীতির চাকা ঘুরবে
Google News

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. রাশেদ আল মাহমুদ তিতুমীর বলেছেন, মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে দ্রুত সংক্রমণ বেড়ে করোনার মারাত্মক দ্বিতীয় ঢেউ চলছে। জীবন বাঁচানোর পাশাপাশি জনমনে বিভিন্ন ধরনের প্রশ্নের উদ্রেক ঘটেছে- প্রথম ঢেউয়ের চেয়ে দ্বিতীয় ধাক্কার অভিঘাত কি বেশি? প্রথম ধাক্কার পর সামষ্টিক অর্থনৈতিক সূচকগুলোয় ইতিবাচক পরিবর্তন হয়েছে কি? প্রথম            ধাক্কায় সৃষ্ট নতুন দারিদ্র্য কমেছে কি? এখন কোন পথে অর্থনীতি? তিনি গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, করোনার প্রথম ধাক্কা এখনো কাটেনি। প্রথম ধাক্কায় দিন আনে দিন খায় তথা এক দিন আয় না করলে সংসার চালানো দায় এমন মানুষ তাদের যৎকিঞ্চিত সঞ্চয় ভেঙে অথবা আত্মীয়স্বজনের সহায়তা নিয়ে অথবা জমি বিক্রি বা বন্ধক রেখে সংসার চালিয়েছিল। এখন তো সঞ্চয় নেই। এখন কোথায় ধার পাবে। আগের ঋণই কীভাবে শোধ হবে? এমন অনিশ্চয়তা ও দুশ্চিন্তায় অধিকাংশ মানুষ লকডাউনে জীবনযাপন করছে। প্রথম ও দ্বিতীয় ধাক্কার বাস্তবতা ভিন্ন। এর পরিপ্রেক্ষিতের পার্থক্যে আগের কৌশল কাজ করবে না। দ্রুত কার্যকর জরুরি ব্যবস্থা ও চলমান উদ্যোগগুলো থেকে শিক্ষা নিয়ে নতুন মাত্রা যুক্ত করার পাশাপাশি কাঠামোগত সীমাবদ্ধাতা মোকাবিলায় সুদূরপ্রসারী সর্বজনীন নিরাপত্তা, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য ব্যবস্থা স্থাপন এবং নতুন ক্ষেত্রে বিনিয়োগ ও কর্মসংস্থানের উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এই শিক্ষক বলেন, জরুরি ভিত্তিতে অভিঘাত মোকাবিলায় প্রত্যেক মানুষের কাছে নগদ পৌঁছে দিতে হবে। মনে রাখতে হবে সর্বজনের কাছে অর্থ পৌঁছালেই অর্থনীতির চাকা ঘুরবে। দ্রুত দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলাও সম্ভব হবে। পৃথিবীব্যাপী উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশের প্রত্যেক মানুষের কাছে নগদ সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। নিঃসন্দেহে রাজনৈতিক বন্দোবস্ত অর্থনৈতিক ফলাফল নির্ধারণ করে। যেমন দরিদ্র ও কর্মহীন মানুষের জন্য সামাজিক সুরক্ষাসংক্রান্ত সাতটি প্যাকেজের বরাদ্দের ১০ হাজার ১৭৩ কোটি টাকার মধ্যে মাত্র ৪ হাজার ৪৮২ কোটি টাকা বিতরণ হয়েছে। প্রায় ৫৬ শতাংশ এখনো বাস্তবায়ন হয়নি। করোনার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত দরিদ্র পরিবার ও কাজ হারানো শ্রমিকদের সহায়তা দিতে বরাদ্দ ২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার মধ্যে বিতরণ হয়নি প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা। অথবা করোনা রোগী হাসপাতালে ভর্তি আছে, অধিদফতরের খাতায় নেই। অর্থাৎ রাজনৈতিক বন্দোবস্তের সদিচ্ছা এবং আমলাতান্ত্রিক কার্যকারিতার ওপর নির্ভর করবে জনমানুষের জীবনের দুশ্চিন্তা থেকে পুনরুদ্ধারের দিকের যাত্রাপথ।

এই বিভাগের আরও খবর