শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১১ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ মে, ২০২১ ২৩:২৫

রিমান্ড শেষে মামুনুল কারাগারে

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গ্রেফতার আরও ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক

Google News

হেফাজতে ইসলামের বিলুপ্ত কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে চলতি বছরে রাজধানীর পল্টন থানার পৃথক দুই মামলায় পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষে তাকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। গতকাল ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট নিভানা খায়ের জেসির আদালত শুনানি শেষে এ আদেশ দেয়।

এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রিমান্ড শেষে মামুনুলকে আদালতে হাজির করেন। একই সঙ্গে মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয়।

গত ১৮ এপ্রিল রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসা থেকে মামুনুল হককে গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। পরদিন ১৯ এপ্রিল মামুনুলকে মোহাম্মদপুর থানার হামলা, মারধর ও চুরির মামলায় প্রথম দফায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত। এরপর ২৬ এপ্রিল হেফাজতের সমাবেশকে ঘিরে ২০১৩ সালের পল্টন ও মতিঝিল থানার দুই মামলায় সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়। এরপর গত ৪ মে তৃতীয় দফায় তার পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের ৫ মে হেফাজতের তান্ডবের মামলা ছাড়াও সম্প্রতি মোদিবিরোধী আন্দোলনের সূত্র ধরে সহিংসতার ঘটনায় রাজধানীর পল্টন ও মতিঝিল থানায় ১২টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে মতিঝিল ও পল্টন থানার পাঁচটি মামলায় মামুনুল হকের নাম রয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গ্রেফতার ৩ : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের তান্ডবের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নতুন করে হেফাজতে ইসলামের তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত গ্রেফতারকৃতের সংখ্যা ৪৫৭ জনে দাঁড়াল। তান্ডবের ঘটনায় দায়ের করার ৫৬টি মামলায় তাদের গ্রেফতার করা হয়। গতকাল ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত এসপি রইছ উদ্দিন জানান, গতকাল সকালে বিশেষ অভিযানে হেফাজতের তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়। সহিংস ঘটনার স্থিরচিত্র ও ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনা করে তাদের শনাক্ত করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হেফাজতে ইসলামের কর্মী-সমর্থক। তাদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সরাইলের ওসিকে বদলি : হেফাজতে ইসলামের তান্ডবের জেরে এবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাজমুল আহমেদকেও বদলি করা হয়েছে। গত রবিবার বিকালে পুলিশ সদর দফতরের এক আদেশে তাকে বরিশাল রেঞ্জে যুক্ত করা হয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত এসপি (প্রশাসন ও অপরাধ) রইছ উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ওসি নাজমুলকে সরাইল থেকে বদলি করে বরিশাল রেঞ্জে যুক্ত করা হয়েছে। তবে সরাইলের নতুন ওসির জায়গায় এখনো কাউকে পদায়ন করা হয়নি।

হেফাজত নেতা জাকারিয়ার ধর্ষণ মামলার ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন : হেফাজতে ইসলামের সদ্য বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া নোমান ফয়েজীর বিরুদ্ধে দায়ের করা ধর্ষণ মামলার ভুক্তভোগীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল বিকালে এ বিষয়ে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক জানান, জাকারিয়া নোমান ফয়েজীর বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী নারী একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগসহ বিয়ের প্রলোভন ও প্রতারণার অভিযোগ এনে মামলাটি দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর গত শনিবার চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস (ওসিসি) সেন্টারে ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। 

গত বৃহস্পতিবার রাতে ২ টায় হাটহাজারী থানায় ওই নারী বাদী হয়ে ধর্ষণের মামলাটি দায়ের করেন। 

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ফেসবুকের মাধ্যমে জাকারিয়া নোমান ফয়েজীর সঙ্গে ওই নারীর পরিচয় ঘটে।  ফেসবুক মেসেঞ্জার ও হোয়াটসঅ্যাপে নিয়মিত চ্যাটিং হয় তাদের। বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ২০১৯ সালের নভেম্বরে হাটহাজারীর কনক বিল্ডিংয়ের নিচ তলায় বাসা ভাড়া করে দেন ফয়েজী। দীর্ঘ ১ বছর ওই ভাড়া বাসায় ভিকটিমের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেন ফয়েজী। গত বছর হাটহাজারী থেকে চট্টগ্রাম নগরীতে খালার বাসায় চলে আসার পরও বিভিন্ন বাসা ও হোটেলে নিয়ে গিয়ে সুকৌশলে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেন।

গত বুধবার বিকালে কক্সবাজারের চকরিয়া থেকে জাকারিয়া নোমানকে গ্রেফতার করে চট্টগ্রাম জেলা  গোয়েন্দা পুলিশ। গ্রেফতারের পর ওইদিন সন্ধ্যায় তাকে চট্টগ্রাম নিয়ে আসা হয়। এরপর তাকে ৬ মে আদালতে তুলে ১০ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ। শুনানি শেষে আদালত ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এই বিভাগের আরও খবর