শুক্রবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ টা

প্রধানমন্ত্রী গ্লাসগো লন্ডন ও প্যারিস যাচ্ছেন

শ্রমিক নেবে রোমানিয়া

কূটনৈতিক প্রতিবেদক

আগামী মাসের শুরুতে স্কটল্যান্ডের গ্লাসগো, ইংল্যান্ডের লন্ডন ও ফ্রান্সের প্যারিস সফর করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি ১ থেকে ৩ নভেম্বর পর্যন্ত জলবায়ু শীর্ষ সম্মেলন কপ-২৬-এ যোগদানের জন্য গ্লাসগো সফর করবেন। পরে তিনি যুক্তরাজ্যের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের জন্য লন্ডনে যাবেন। সেখান থেকে তিনি সরাসরি প্যারিসে যাবেন ইউনেস্কো থেকে ‘বঙ্গবন্ধু ক্রিয়েটিভ পুরস্কার’ প্রদানের জন্য। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন গতকাল নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী কপ-২৬ শীর্ষ বৈঠকে অংশগ্রহণের জন্য ৩১ অক্টোবর গ্লাসগোর উদ্দেশে রওনা হবেন। তিনি সেখানে ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের (সিভিএফ) প্রেসিডেন্ট হিসেবে অংশগ্রহণ করবেন। এ ছাড়া সাইডলাইনে কপ-২৬ সিভিএফের একটি বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা আছে। সেখান থেকে তিনি লন্ডনে যাবেন। আমরা চেষ্টা করছি, সেখানে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় একটি বৈঠকের জন্য। এ নিয়ে কাজ হচ্ছে। যুক্তরাজ্য দ্বিপক্ষীয় ওই বৈঠকটি গ্লাসগোতে করতে চেয়েছে। কিন্তু আমরা বলেছি, এটি লন্ডনে হলে ভালো হয়। ইউনেস্কো কর্তৃক প্রদেয় বঙ্গবন্ধু পুরস্কার দেওয়ার জন্য লন্ডন থেকে সরাসরি প্যারিসে যাবেন প্রধানমন্ত্রী বলে জানান আবদুল মোমেন। আগামী ১১ নভেম্বর প্রদেয় ওই পুরস্কার কে পাচ্ছে তা ইউনেস্কোর একটি নিরপেক্ষ কমিটি ঘোষণা করবে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নেবে রোমানিয়া : রোমানিয়া সফর শেষ করে দেশে ফেরা পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ইউরোপের দেশ রোমানিয়া বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নেওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ দেখিয়েছে। এখন কোন কোন ক্ষেত্রে শ্রমিক লাগবে, কোন কোন ক্ষেত্রে আমরা দিতে পারব তা বিবেচনা করা হবে। এখন পর্যন্ত ১ হাজার শ্রমিক পাঠানো হয়েছে। এখন প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় বিষয়টি দেখবে। শ্রমিক পাঠানোর বিষয়টি হবে সরকার টু সরকার পর্যায়ে। বেসরকারি খাত এখানে অন্তর্ভুক্ত করা হবে না। দেশটি থেকে এর মধ্যে ৮৬০ জন অবৈধ বাংলাদেশিকে দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। মন্ত্রী বলেন, বলকান যুদ্ধের সময় দুই দেশের মিশন বন্ধ করে দেওয়া হয়। এখন বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নিতে মূল সমস্যা হচ্ছে ঢাকায় তাদের কোনো মিশন নেই। দেশটি দিল্লির মিশনকে কাজে লাগাতে চায়। তবে সে মিশনটাও ছোট। এর মধ্যে যারা আবেদন করেছেন, তাদের ওয়ার্ক পারমিট আসেনি। তাই কনস্যুলার সেবা ঢাকা পাঠিয়ে দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ ছাড়া রোমানিয়ায় কয়েক শ বাংলাদেশি শিক্ষার্থীকে স্কলারশিপ দিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে। একসময় রোমানিয়ায় বাংলাদেশিরা পড়তে যেতেন। দেশটির পলিটেকশিয়া ইউনিভার্সিটি অব বুখারেস্টের রেক্টরের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। সেখানেও স্কলারশিপ দিয়ে শিক্ষার্থী নেওয়ার ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে।

সর্বশেষ খবর