শিরোনাম
শনিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২৩ ০০:০০ টা

জয়ের ক্ষণ গোনা শুরু করেছে বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক

জয়ের ক্ষণ গোনা শুরু করেছে বাংলাদেশ

নিউজিল্যান্ড ব্যাটসম্যান টম ব্লান্ডেলের উইকেট শিকারের পর উচ্ছ্বসিত তাইজুল ইসলাম -এএফপি

ড্যারেন মিচেল ও ইস সোধির দৃঢ়তায় সিলেট টেস্ট গড়িয়েছে পঞ্চম ও শেষ দিনে। চার দিন শেষে টেস্টের যে চিত্র, তাতে জয়োৎসবের ক্ষণ গুনতে শুরু করে দিয়েছেন নাজমুল হাসান শান্ত, তাইজুল ইসলামরা। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে নতুন স্লটে প্রথম জয় পেতে বাংলাদেশের দরকার নিউজিল্যান্ডের অবশিষ্ট ৩ উইকেট। জিততে সফরকারীদের দরকার ২১৯ রান। সাদা চোখে অবিশ্বাস্য! চতুর্থ দিন শেষে প্রায় চালকের আসনে বসে পড়েছে নাজমুল বাহিনী। এখন শুধু জয়ের অপেক্ষা। তারপরও ক্রিকেট যেহেতু অনিশ্চয়তার খেলা, সেহেতু একটু সন্দেহ নিয়েই আজ খেলতে নামবে বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ড। গত জুনে মিরপুর স্টেডিয়ামে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ জিতেছিল ৫৪৬ রানের আকাশসমান ব্যবধানে। যা বাংলাদেশের টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে রানের হিসাবে সর্বোচ্চ জয়। ওই টেস্টের উভয় ইনিংসে সেঞ্চুরি করেছিলেন নাজমুল শান্ত। চার ইনিংসে তৃতীয় সেঞ্চুরি করেন নাজমুল এবার অধিনায়ক হিসেবে। বাংলাদেশ টেস্টটি জিততে চলেছে বিশ্বকাপ ক্রিকেটে বিপর্যয়কর পারফরম্যান্সের পর। টেস্টের প্রথম   দুই ইনিংসে সমানে সমান লড়াই করেছে নাজমুল বাহিনী ও সোধি বাহিনী। বরং স্বাগতিক স্পিনারদের সাঁড়াশি আক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করে সফরকারীরা এগিয়ে ছিল ৭ রানে। দ্বিতীয় ইনিংস থেকে ধীরে ধীরে চালকের আসনে বসতে শুরু করে বাংলাদেশ। অধিনায়ক নাজমুল শান্তর ইতিহাস গড়া সেঞ্চুরিতে ৩ উইকেটে ২১২ রান তুলে তৃতীয় দিন শেষ করে টাইগাররা। এগিয়ে যায় ২০৫ রানে। গতকাল ব্যাটিংয়ে নেমেও আগের দিনের স্কোরের সঙ্গে টাইগার অধিনায়ক যোগ করতে পারেননি ১ রানও। ব্যক্তিগত ১০৫ রানে সাজঘরে ফেরেন শান্ত। সাজঘরে ফেরার আগে তৃতীয় দিন ইতিহাসের সোনালি পাতায় জায়গা করে নেন টাইগার অধিনায়ক। শুধু বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট অধিনায়ক নন, ১৪৬ বছরের টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে ৩২ নম্বর অধিনায়ক হিসেবে অধিনায়কত্বের অভিষেকে সেঞ্চুরি করেন নাজমুল। তার ইতিহাস গড়া সেঞ্চুরির টেস্টের চতুর্থ দিনে আরও দুটি হাফ সেঞ্চুরির ইনিংস রয়েছে। আগের দিন ৪৩ রানে অপরাজিত থাকা সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম খেলেন ৬৭ রানের প্রত্যয়ী ইনিংস। ১১৬ বলের ইনিংসটিতে ছিল ৭টি চার। ৮৭ টেস্ট ক্যারিয়ারে এটা তার ২৭তম হাফ সেঞ্চুরি। শেষ দিকে ৭৬ বলে ৫ চারে ৫০ রান করেন মেহেদি হাসান মিরাজ। ৪০ টেস্ট ক্যারিয়ারে মিরাজ পঞ্চম হাফ সেঞ্চুরি করলে দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩৩৮ রান।

টার্গেট ৩৩২ রান। এত রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড নেই নিউজিল্যান্ডের। ৩০০ রানের ওপরে রান তাড়া করে ব্ল্যাক ক্যাপসদের জয়ের রেকর্ড সাকল্যে দুটি। একটি পাকিস্তান ৩২৪ রান ও দ্বিতীয়টি বাংলাদেশ ৩১৭ রান। ১৯৯৪ সালে ক্রাইস্টচার্চে ল্যাঙ্কাস্টার পার্কে পাকিস্তানের ছুড়ে দেওয়া ৩২৪ রান টপকে গিয়েছিল ৫ উইকেট হারিয়ে। ২০০৮ সালে চট্টগ্রামে টাইগারদের ৩১৭ রান টপকে ৩ উইকেটে জিতেছিল নিউজিল্যান্ড। গতকাল ৩৩২ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ফের তাইজুল ইসলামের ঘূর্ণিতে বিভ্রান্ত হয়। ৪৯ ওভার ব্যাটিং করে ৭ উইকেটে ১১৩ রান তুলে দিন পার করেছে টিম সাউদির দল। ৪৬ রানে ড্যারেন মিচেল ও ইস সোধি ৭ রানে ব্যাট করছেন। অবশ্য দিনের শেষ ওভারে নাঈম হাসানের বলে লেগ বিফোর হয়েও রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান। তাইজুল প্রথম ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিংসেও নেন ৪ উইকেট। পাঁচ বছর আগে সিলেটের অভিষেক টেস্টে জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে ১১ উইকেট নিয়েছিলেন বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল।

সর্বশেষ খবর