Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ নভেম্বর, ২০১৬ ২৩:৪৭

এ সময়ে ব্যথা অস্ট্রিও আর্থ্রাইটিস

এ সময়ে ব্যথা অস্ট্রিও আর্থ্রাইটিস

অস্টিও আর্থ্রাইটিস অব নি বা হাঁটু ব্যথা শুধু ক্ষয়জনিত রোগেই নয়, বিভিন্ন কারণেও হতে পারে। শীতের এ সময়টাতে এসব ব্যথা একটু বেশি পরিলক্ষিত হয়। যেমন— রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস, সেপটিক আর্থ্রাইটিস, গাউট, সোরিয়েটিক আর্থ্রাইটিস ইত্যাদি। তবে সবচেয়ে বেশি হাঁটু ব্যথা সাধারণত হাড় বা অস্থি ক্ষয়ের কারণেই হয়ে থাকে। হাড়ের জয়েন্টের ভিতর এক ধরনের আঠাল পদার্থ থাকে, যা জোড়াকে নড়াচড়া করতে সহজ করে। ক্ষেত্রবিশেষে এই তরল পদার্থ শুকিয়ে গেলে এ রোগ দেখা দেয়। অস্বাভাবিক ক্রিয়া-বিক্রিয়ার ফলে আস্তে আস্তে রোগের লক্ষণ প্রকাশ পায়। প্রাথমিক পর্যায়ে হালকা গরম হওয়া, ফুলে যাওয়া, ব্যথা হওয়া শুরু হয় এবং পরবর্তীতে হাঁটু নড়াচড়া করলে প্রচুর ব্যথা হয়। রোগীর নামাজ পড়তে, টয়লেট ব্যবহারে এবং দৈনন্দিন কাজ করতে অসুবিধা হয়। এভাবে চলতে থাকলে রোগীর হাঁটুর কর্মক্ষমতা হারিয়ে হাঁটাচলা বন্ধ হয়ে যায়। মহিলাদের সাধারণত ৪০ বছরের পর ঋতুচক্র বন্ধ হলে হরমোনের তারতম্যের কারণে অস্থির কণিকা ক্ষয়প্রাপ্ত হয়ে এ রোগ দেখা দিতে পারে। যেহেতু এ রোগের প্রধান কারণ ক্ষয়জনিত সমস্যা, তাই এর প্রধান চিকিৎসা ফিজিওথেরাপি। অনেক ক্ষেত্রে ওষুধের পাশাপাশি ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা বেশ ফলদায়ক।  চিকিৎসকরা রোগ নির্ণয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন চিকিৎসা দিয়ে থাকেন। তার মধ্যে শর্টওয়েভ ডায়াথার্মি, অতিলোহিত রশ্মি ও ব্যায়ামের মাধ্যমে চিকিৎসা দিয়ে থাকেন। তবে কিছু উপদেশ মানতে হয়— ডায়াবেটিস ও ওজন সঠিক মাত্রায় রাখা, হাঁটু গেড়ে না বসা, চিকিৎসকের নির্দেশিত নিয়মিত ব্যায়াম করা।

ডা. সফিউল্যাহ প্রধান, চেয়ারম্যান ডিপিআরসি হাসপাতাল, ঢাকা

ফোন : ০১৯৮৯০০০২২২।


আপনার মন্তব্য