Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ জুন, ২০১৯ ১৩:৫৬

ভাল্লুকের গুহায় বন্দি, উদ্ধার করলো শিকারি কুকুরের দল!

অনলাইন ডেস্ক

ভাল্লুকের গুহায় বন্দি, উদ্ধার করলো শিকারি কুকুরের দল!
উদ্ধারের পর আলেকজান্ডার

জঙ্গলে ঘেরা পাহাড়ি পথ ধরে যাচ্ছিলেন একদল শিকারি। শিকারের সাহায্যে তাদের দলে কয়েকটা কুকরও ছিল। হঠাৎ একটি পাহাড়ি গুহার পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় ওই দলের কুকুরগুলো খুব চিৎকার করতে শুরু করে দেয়। হাত ছাড়িয়ে ওই গুহার ভিতরে ঢুকতে চাইছিল কুকুরগুলো। 

কুকুরদের আচরণে হঠাৎ এই পরিবর্তন লক্ষ্য করে সন্দেহ হয় ওই শিকারিদের। গুহার ভিতরে ঢুকে তারা দেখেন, একটি মানুষের মমি রাখা রয়েছে সেখানে। কিন্তু তাদের সবাইকে চমকে দিয়ে চোখ খুলে গেল মমির। অস্পষ্ট স্বরে মমি তার নাম জানাল ওই শিকারিদের। শিকারিরা বুঝলেন, মমি নয়, গুহার মধ্যে দীর্ঘদিন অনাহারে প্রায় কঙ্কালসার হয়ে গেছে এই মানুষটির শরীর।

ঘটনাটি ঘটেছে রাশিয়ার জঙ্গলে ঘেরা পাহাড়ি, দুর্গম তুভা অঞ্চলে। গুহা থেকে উদ্ধার হওয়া ওই ব্যক্তির নাম আলেকজান্ডার। জানা গেছে, এই গুহাটিতে ওই ব্যক্তিকে ‘শিকার’ করে পরে খাবে বলে প্রায় আধমরা করে রেখে যায় একটি ভাল্লুক। ভাল্লুকের আক্রমণে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় একাধিক গভীর ক্ষত। দীর্ঘদিন এই অবস্থায় পড়ে থাকায় সংক্রমণ ছড়িয়েছে শরীরে। 

প্রায় টানা এক মাস ধরে আলেকজান্ডার এই গুহায় পড়ে রয়েছেন। শিরদাঁড়া ভেঙে যাওয়ায় পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাও করতে পারেননি তিনি। সৌভাগ্যবশত এই এক মাসের মধ্যে ওই ভাল্লুকটি আর গুহায় ফিরে আসেনি। কিন্তু এক মাস কিছু না খেয়ে, ক্ষতবিক্ষত শরীরে কী ভাবে বেঁচে ছিলেন আলেকজান্ডার। তিনি জানান, শুধুমাত্র নিজের প্রস্রাব পান করেই কোনো রকমে টিকে গিয়েছেন তিনি।


বিডি-প্রতিদিন/ তাফসীর আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য