শিরোনাম
প্রকাশ : ৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৮:৫৩
প্রিন্ট করুন printer

বিয়ের রেজিস্ট্রি অফিস থেকে মুসলিম স্বামীকে গ্রেফতার, তরুণীকে হেনস্থা

অনলাইন ডেস্ক

বিয়ের রেজিস্ট্রি অফিস থেকে মুসলিম স্বামীকে গ্রেফতার, তরুণীকে হেনস্থা

হিন্দু তরুণীর সঙ্গে বিয়ের রেজিস্ট্রি করার ‘অপরাধে’ এক মুসলিম যুবক ও তার ভাইকে গ্রেফতার করল উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। মোরাদাবাদের এই ঘটনায় বজরং দলের সদস্যরা রেজিস্ট্রারের অফিসে গিয়ে গোলমাল করে বিয়ে থামায়। তার পরে ওই তিনজনকে স্থানীয় থানায় নিয়ে গিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

এই ঘটনার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এক মিনিট ১১ সেকেন্ডের ওই ভিডিওয় দেখা গেছে, মোরাদাবাদের কাঁঠ থানার চত্বরে ওই তরুণীকে ঘিরে ধরে আছে বেশ কিছু মানুষ। লাঠি নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন কয়েক জন পুলিশকর্মীও। ভিডিওয় শোনা গেছে, এক ব্যক্তি তরুণীকে বলছেন, ‘ধর্ম পরিবর্তনের জন্য জেলাশাসকের কাছ থেকে অনুমতি নেওয়ার কাগজ দেখান!’ আর এক ব্যক্তিকে বলতে শোনা যায়, আপনি কি নতুন আইনটা পড়েছেন না পড়েননি?

এর পরেই আর এক ব্যক্তি ওই তরুণীকে বলে বসেন, এই নতুন আইন তোমাদের মতো মানুষের জন্য বানানো হয়েছে! ওই তরুণী পরে সংবাদমাধ্যকে জানান, তিনি ওই মুসলিম ব্যক্তিকে নিজের ইচ্ছেতেই বিয়ে করছেন। তার কথায়, ‌‘আমি একজন প্রাপ্তবয়স্ক নারী, আমার ২২ বছর বয়স। আমি আমার নিজের ইচ্ছেয় জুলাই মাসের ২৪ তারিখে বিয়ে করেছিলাম। আজ ৫ মাস হয়ে গেল আমরা বিবাহিত। এর পরেই রেজিস্ট্রি করতে যাই।’

পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনায় আসল অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই হিন্দু তরুণীর মা। তিনি দাবি করেছেন, অভিযুক্ত মুসলিম যুবক তার মেয়েকে ফুঁসলে নিয়ে গিয়ে বিয়ে করে জোর করে ধর্ম পরিবর্তন করিয়েছে। এর পরেই ওই যুবক ও তার ভাইকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

যদিও এ কথা এখনও স্পষ্ট নয়, যে ওই যুবকের বা তরুণীর ধর্ম আদৌ পরিবর্তিত হয়েছে কিনা বা ধর্ম পরিবর্তন করার পরিকল্পনা তারা করছিলেন কিনা। তা সত্ত্বেও উত্তরপ্রদেশে জারি হওয়া নতুন অর্ডিন্যান্সের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয়েছে দুই যুবককে। সূত্র : দ্য ওয়াল।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর