শিরোনাম
প্রকাশ : ১১ ডিসেম্বর, ২০২০ ২০:১৭
আপডেট : ১১ ডিসেম্বর, ২০২০ ২০:২২
প্রিন্ট করুন printer

ট্রাম্পের শেষ সময়ে সেই বার্নার্ডের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

অনলাইন ডেস্ক

ট্রাম্পের শেষ সময়ে সেই বার্নার্ডের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর
ব্র্যান্ডন বার্নার্ড

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ১৯৯৯ সালে দুই ব্যক্তিকে হত্যার দায়ে ব্র্যান্ডন বার্নার্ড নামে একজনকে বিষাক্ত ইনজেকশন দিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। ইন্ডিয়ানা রাজ্যে টেরে হট শহরের কারাগারে এই মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। তার আগে শেষ মুহূর্তে করা এক প্রাণভিক্ষার আবেদন মার্কিন সুপ্রিম কোর্ট খারিজ করে দেয়।

ব্র্যান্ডন বার্নার্ডের দেহে বিষাক্ত ইনজেকশন প্রয়োগের পর স্থানীয় সময় রাত ৯টা ২৭ মিনিটে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়। তার আগে তিন মিনিট ধরে শান্তভাবে দেয়া শেষ বার্তায় নিহতদের পরিবারের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেন বার্নার্ড।

"আমি দুঃখিত। আমার এখন যা অনুভব করছি, এবং সেদিন যা অনুভব করেছিলাম তা প্রকাশ করতে আমি শুধু এই ক'টি শব্দই বলতে পারি" - তাকে উদ্ধৃত করে বলা হয় এসোসিয়েটেড প্রেসের খবরে।

বার্নার্ডের অপরাধ কী ছিল?
১৯৯৯ সালের জুন মাসে টড এবং স্টেসি ব্যাগলি নামে এক দম্পতিকে হত্যায় জড়িত থাকার জন্য ব্র্যান্ডন বার্নার্ডকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়।

টেক্সাসে একদল তরুণ ওই দু'জনের জিনিসপত্র নিয়ে নেবার পর তাদেরকে তাদেরই গাড়ির পেছনের বুটে জোর করে ঢোকায়, তাদের গুলি করে এবং গাড়িটিতে আগুন লাগিয়ে দেয়া হয়।

ওই তরুণদের একজন ছিলেন এই বার্নার্ড। গুলি করেছিলেন তার সঙ্গী ক্রিস্টোফার ভিয়ালভা, আর গাড়িটিতে আগুন লাগান বার্নার্ড। ওই হত্যাকাণ্ডের জন্য ভিয়ালভারও মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয় গত সেপ্টেম্বর মাসে। বাকিদের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

বার্নার্ডের আইনজীবীরা বিচারের সময় বলেন, টড ও স্টেসি ব্যাগলি সম্ভবত গাড়িতে আগুন লাগানোর আগেই মারা গিয়েছিলেন। কিন্তু সরকারপক্ষ বলছে, গুলি করার পর টম ব্যাগলি তৎক্ষণাৎ মারা যান, কিন্তু স্টেসির শ্বাসনালীতে কালো ধোঁয়ার ঝুল পাওয়া গেছে - যার অর্থ, তিনি গুলিতে নয় বরং ধোঁয়ায় শ্বাসরুদ্ধ হয়ে মারা গিয়েছিলেন।

বার্নাডের মৃত্যুদণ্ড রহিত করে কারাদণ্ড দেবার জন্য অনেকেই আবেদন করেছিলেন। রিয়ালিটি টিভি তারকা কিম কার্দাশিয়ান ওয়েস্টসহ অনেকেই এই দণ্ড কার্যকর না করার জন্য আবেদন জানিয়েছিলেন।

গত ৭০ বছরে প্রথম তরুণতম অপরাধী যার মৃত্যুদণ্ড হলো
১৯৯৯ সালে বার্নার্ড যখন দোষী সাব্যস্ত হন, তখন তার বয়স ছিল ১৮। গত প্রায় ৭০ বছরে যুক্তরাষ্ট্রে যাদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়েছে তার মধ্যে তিনি হচ্ছেন সবচেয়ে কমবয়স্ক অপরাধী।

সবচেয়ে বেশি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর ট্রাম্পের সময়
যুক্তরাষ্ট্রে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট থাকার মেয়াদ শেষ হবার আগে আরো চারটি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার পরিকল্পনা রয়েছে।

এগুলো সম্পন্ন হলে, গত একশ বছরেরও বেশি সময়ের মধ্যে সবচেয়ে বেশি (মোট ১৩টি) মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের রেকর্ড স্থাপিত হবে ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট থাকার মেয়াদে।

তা ছাড়া গত ১৩০ বছরের মধ্যে এক প্রেসিডেন্টের বিদায় এবং পরবর্তী প্রেসিডেন্টের দায়িত্বগ্রহণের মধ্যবর্তী এই সময়টুকুতে কোন মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়নি। এবার সেই নজিরও ভাঙা হচ্ছে।

আগামী ২০শে জানুয়ারি জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন। সূত্র : বিবিসি বাংলা।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৮:০৬
আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৮:১১
প্রিন্ট করুন printer

ইরাকে আবারও মার্কিন বাহিনীর দু'টি গাড়ি বহরে হামলা

অনলাইন ডেস্ক

ইরাকে আবারও মার্কিন বাহিনীর দু'টি গাড়ি বহরে হামলা
ইরাকে মার্কিন সেনা

ইরাকে মার্কিন সেনাবাহিনীর লজিস্টিক ইকুইপমেন্ট বহনকারী আরও দু'টি গাড়ি বহরে হামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বাগদাদ ও বাবেল প্রদেশে আলাদা দু'টি গাড়ি বহরে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

তবে এখন পর্যন্ত নতুন এই হামলার বিষয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া দেখায়নি আমেরিকা। কোনো ব্যক্তি বা সংগঠনও এর দায় স্বীকার করেনি।

ইরাকে অবস্থিত মার্কিন সামরিক ঘাঁটি ও সামরিক বহরে হামলার ঘটনা সম্প্রতি বেড়েছে। ইরাকের জনগণ ও রাজনৈতিক দলগুলো সেদেশে মার্কিন সেনা উপস্থিতির বিরোধিতা করছে। তারা সেদেশ থেকে অবিলম্বে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার চায়।

এর আগে ইরাকের সংসদ মার্কিন সেনা বহিষ্কারের বিষয়ে একটি বিল অনুমোদন করেছে।

ইরাকের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও রাজনীতিবিদ নুরি আল মালিকি সম্প্রতি ঘোষণা করেছেন, সেদেশে বিদেশি সেনাদের কোনো প্রয়োজন নেই।ইরাকে তৎপর জঙ্গিগোষ্ঠীগুলোর প্রতি মার্কিন বাহিনী সমর্থন ও সহযোগিতা দিয়ে থাকে বলে অভিযোগ রয়েছে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৭:৩৫
প্রিন্ট করুন printer

নিজের বেতন ৭ কোটি টাকা কমিয়ে কর্মীদের বিপুল বেতন বৃদ্ধি!

অনলাইন ডেস্ক

নিজের বেতন ৭ কোটি টাকা কমিয়ে কর্মীদের বিপুল বেতন বৃদ্ধি!
ড্যান প্রাইস

সরকারি হোক বা বেসরকারি। বেতন নিয়ে কর্মচারীদের অভিযোগের যেন কোনও শেষ নেই। কিন্তু এমন একটি সংস্থা রয়েছে যেখানে না চাইতেই কর্মীদের বিপুল বেতন বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তাও আবার এই কোভিড আবহেই।

যা করতে গিয়ে সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা তথা সিইও নিজের বেতন কমিয়ে দিয়েছেন অনেকটাই! সংস্থা থেকে প্রতি বছরে কর্মচারীদের সমান বেতন নিচ্ছেন তিনিও! সংস্থাটির নাম গ্রাভিটি পেমেন্টস। আর কর্মীবান্ধব এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে সারা বিশ্বের নজরে এসেছেন সংস্থার সিইও ড্যান প্রাইস।

মাত্র ১৯ বছর বয়সে গ্রাভিটি পেমেন্টস সংস্থা চালু করেন তিনি। তখন তিনি কলেজে পড়েন। কলেজের একটি ঘর থেকেই শুরু হয়েছিল গ্রাভিটি পেমেন্টস-এর যাত্রা। গ্রাভিটি পেমেন্টস একটি ক্রেডিট কার্ড প্রসেসিং সংস্থা। ২০০৪ সালে ড্যান প্রাইস এবং তার ভাই লুকাস সংস্থাটি প্রতিষ্ঠা করেন।

মাত্র ৪ বছরের মধ্যেই ওয়াশিংটনের সবচেয়ে বড় ক্রেডিট কার্ড সংস্থায় পরিণত হয় এটি। সংস্থাটির গ্রাহকের সংখ্যা এখন ১৫ হাজারেরও বেশি। ওয়াশিংটনের বালার্ডে রয়েছে এর সদর দফতর। প্রায় দুইশ’ কর্মী কাজ করেন এই সংস্থায়।

২০১৫ সালে ছোট্ট এই সংস্থাটি সংবাদমাধ্যমের দৃষ্টি আকর্ষণ করে যখন এর সিইও ড্যান তার সংস্থার প্রত্যেক কর্মীর বেতন অন্তত ৭০ হাজার ডলার করে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন। ২০১৯ সালে প্রত্যেক কর্মীর বেতন ১০ হাজার ডলার বাড়িয়ে দেন তিনি। প্রতি বছরই এ ভাবে মাইনে বৃদ্ধি পাচ্ছে কর্মীদের।

২০২৩ সাল পর্যন্ত প্রতিটি কর্মীর বেতন বছরে অন্তত ৭০ হাজার ডলার করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ড্যান। কঠিন সময়ে এবং মূল্যবৃদ্ধির আবহে যাতে কোনও কর্মচারীকেই সমস্যায় না পড়তে হয় তার জন্যই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সিইও ড্যান। এর জন্য ড্যান নিজের বার্ষিক বেতন কমিয়ে এনেছেন অনেকটাই।

ড্যান আগে বছরে সংস্থা থেকে ১০ লাখ ডলার মাইনে নিতেন। এখন তিনি বছরে মাত্র ৭০ হাজার ডলার বেতন নেন। অর্থাৎ ৯ লাখ ৩০ হাজার ডলার। ড্যানের এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত হতে পারেননি সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং তার ভাই লুকাস। এ নিয়ে দু’জনের মধ্যে আইনি লড়াইও চলেছে।

তবে দু’ভাইয়ের মধ্যে মতবিরোধ থাকলেও এই সিদ্ধান্তে আখেরে সংস্থার লাভ হয়েছে অনেকটাই। ২০১৪ সালে যা লাভ করছিল সংস্থাটি ওই ঘোষণার পর তা দ্বিগুণ হয়ে যায়। ২০২০ সালে করোনা মহামারির প্রভাব পড়ার আগে পর্যন্ত প্রতি মাসে ৪০ লাখ ডলার আয় করেছিল সংস্থাটি।

ড্যানের এখন বয়স ৩৬ বছর। ৩১ বছরেই ড্যান কোটিপতি হয়ে গিয়েছিলেন। তার মতে, যে সমস্ত ধনকুবের নিজেদের আয়ের সামান্য অংশ দান করেন বা হয়তো নিজের নামে কোনও হাসপাতাল বানান, বেশির ভাগই কর ফাঁকি দেওয়ার উদ্দেশ্যে এমন করে থাকেন। তিনি যে সে পথে হাঁটেত নারাজ তা জানান তিনি।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৭:২১
প্রিন্ট করুন printer

ইরানবিরোধী চাপ প্রয়োগের নীতি ব্যর্থতার স্বীকার করলো আমেরিকা

অনলাইন ডেস্ক

ইরানবিরোধী চাপ প্রয়োগের নীতি ব্যর্থতার স্বীকার করলো আমেরিকা
নেড প্রাইস

ইরানের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের নীতি ব্যর্থ হয়েছে বলে স্বীকার করেছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন। এরপরও সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অনুসৃত নীতি থেকে সরে আসার সুস্পষ্ট কোনো অবস্থান ঘোষণা করেনি আমেরিকার নতুন সরকার।

বৃহস্পতিবার মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র নেড প্রাইস বলেন, যে সমস্ত লক্ষ্যকে সামনে রেখে ইরানের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের নীতি অনুসরণ করেছিল ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন তার একটিও অর্জন করা সম্ভব হয়নি।

প্রাইস বলেন, “আমি মনে করি-আপনি যখন সর্বোচ্চ চাপ সৃষ্টির দিকে নজর দেবেন তখন আপনাকে শুধুমাত্র একটি উপসংহারে আসতে হবে এবং সেটি হচ্ছে এ নীতি ব্যর্থ হয়েছে।” 

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র আরো বলেন, “ইরানের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের নীতি অনুসরণ করা হয়েছিল একটি ভালো চুক্তি সই করার লক্ষ্য নিয়ে, ইরান এবং তার মিত্রদের ভয় দেখানোর জন্য এবং আমেরিকার স্বার্থ ভালো অবস্থানে নেয়ার জন্য। কিন্তু এর একটিও অর্জন করা যায়নি বরং বিপরীতটাই সত্য। গত চার বছরে আমরা ভালো একটি চুক্তি করার কাছাকাছি যেতে পারিনি। এজন্য আমেরিকা এখন সুস্পষ্ট কূটনীতির পথ বেছে নিচ্ছে।” 

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৭:০১
প্রিন্ট করুন printer

ইসরায়েলের গোপন পরমাণু প্রকল্পের ছবি প্রকাশ

অনলাইন ডেস্ক

ইসরায়েলের গোপন পরমাণু প্রকল্পের ছবি প্রকাশ
গত ২২ ফেব্রুয়ারি স্যাটেলাইট থেকে এই ছবি প্রকাশ করা হয়

ইসরায়েলের ডিমোনা শহরের কাছে শিমন পেরেস নেগেভ পরমাণু গবেষণা কেন্দ্রের রিয়েক্টরের পাশেই একটি প্রকল্প শনাক্ত করা হয়েছে। 
গত ২২ ফেব্রুয়ারি স্যাটেলাইট থেকে এই ছবি প্রকাশ করা হয়।

এখানে গত এক দশকেরও বেশি সময় ধরে পরমাণু গবেষণা চলছে বলে এপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নতুন এ স্থাপনা আসলে কী জন্য নির্মাণ করা হয়েছে, তা এখনো স্পষ্ট নয়। এ নিয়ে ইসরায়েলি সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে এপি। তবে তারা কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। 

পরমাণু অস্ত্র সম্প্রসারণ বন্ধে যে নন-প্রোলিফেরাশন ট্রিটিতে বিশ্বের যে ৪টি দেশ এখনো স্বাক্ষর করেনি এর মধ্যে একটি হচ্ছে ইসরায়েল। অপর তিনটি রাষ্ট্র হলো, ভারত, পাকিস্তান ও দক্ষিণ সুদান।  

ইসরায়েল কখনো আনুষ্ঠানিকভাবে নিজের পরমাণু বোমা থাকার কথা স্বীকার করেনি। আবার কখনো অস্বীকারও করেনি। 

সূত্র: এপি  

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ 

 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৬:৩৬
প্রিন্ট করুন printer

রমজানের তারিখ ঘোষণা ইন্দোনেশিয়ায়

অনলাইন ডেস্ক

রমজানের তারিখ ঘোষণা ইন্দোনেশিয়ায়

রমজানের তারিখ ঘোষণা করেছে  বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ট দেশ ইন্দোনেশিয়া। দেশটিতে আগামী ১৩ এপ্রিল (মঙ্গলবার) প্রথম রোজা পালন করা হবে বলে জানানো হয়েছে। 

জ্যোতির্বিদ্যা সংক্রান্ত গণনার মাধ্যমে ১৪৪২ হিজরির পবিত্র রমজান মাসের প্রথম তারিখ ঘোষণা করেছে ইন্দোনেশিয়ার মোহাম্মাদিয়া অর্গানাইজেশনের প্রধান কার্যালয়। 

সংস্থাটি জানিয়েছে, ১৩ এপ্রিল রমজান শুরু হবে  ইন্দোনেশিয়ায়। একই দিন আরব বিশ্বেও রোজা শুরু হবে বলে তারা প্রত্যাশা করছেন। তবে হামারিওয়েব ডটকম জানিয়েছে বাংলাদেশ, ভারত পাকিস্তানসহ কিছু দেশে ১৪ এপ্রিল রমজান শুরু হবে।

সিএনবিসি ইন্দোনেশিয়া ডটকমের তথ্য মতে, জ্যোতির্বিজ্ঞানের গণনার ওপর ভিত্তি করে মোহাম্মদিয়া অর্গানাইজেশনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ১৪৪২ হিজরির আসন্ন পবিত্র রমজান মাসের শুরুর দিন ঘোষণা করেছে। ঘোষণা অনুযায়ী ১৪৪২ হিজরি সালের পবিত্র রমজান মাস ২০২১ সালের ১৩ এপ্রিল, মঙ্গলবার শুরু হতে যাচ্ছে।

এই গণনা অনুসারে, ১৪৪২ হিজরির শাওয়াল মাস শুরু হচ্ছে ১৩ মে, বৃহস্পতিবার। অর্থাৎ এই দিনে ঈদুল ফিতর পালিত হবে। এ ছাড়া তাদের গণনা অনুযায়ী কোরবানির ঈদ পালিত হবে ২০ জুলাই, মঙ্গলবার (১০ জিলহজ)। 

সূত্র: সিএনবিসি ইন্দোনেশিয়া  

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ 

 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর