শিরোনাম
প্রকাশ : ৭ মে, ২০২১ ০৮:৪১
আপডেট : ৭ মে, ২০২১ ১৪:২২
প্রিন্ট করুন printer

মাঝ আকাশে খুলে পড়ল রোগী বহনকারী প্লেনের চাকা, অতঃপর…

অনলাইন ডেস্ক

মাঝ আকাশে খুলে পড়ল রোগী বহনকারী প্লেনের চাকা, অতঃপর…
Google News

বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে বাঁচল ভারতের নাগপুর-হায়দরাবাদগামী রোগী বহনকারী (এয়ার অ্যাম্বুল্যান্স) এক প্লেনের। আকাশ থেকে সেটির একটি চাকা খুলে মাটিতে পড়ে গেলেও তৎপরতার সঙ্গে জরুরি অবতরণ করিয়ে বিপর্যয় এড়াতে সক্ষম হলেন বিমান চালক।

জানা গেছে, নাগপুর থেকে হায়দরাবাদ যাচ্ছিল প্লেনটি। তাতে ছিলেন একজন রোগী ও একজন চিকিৎসক। কিন্তু আকাশে ওড়ার পরই ত্রুটি দেখা দেয় বিমানটির যন্ত্রাংশে। সেটির একটি চাকা খুলে মাটিতে পড়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় সেটিকে জরুরি অবতরণ করানো হবে।

এতে সফলও হন বিমান চালক। পরিকল্পনা মতো, মুম্বাই বিমানবন্দরে সেটিকে নামানো হয়। জানা গেছে, রোগী, চিকিৎসক ও বিমানকর্মীরা সকলেই নিরাপদে ও অক্ষত অবস্থায় আছেন। তবে অবতরণ খুব সহজ ছিল না। ল্যান্ডিং গিয়ার ব্যবহার না করে বেলি ল্যান্ডিংয়ের পরিকল্পনা করেছিলেন বিমান চালক। অর্থাৎ বিমানের চাকা ভিতরে না ঢুকিয়েই তাকে মাটিতে নামিয়ে আনা। সেই কারণে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে রানওয়েতে ফোমের বন্দোবস্ত করেছিলেন বিমানবন্দরের কর্মীরা। উদ্দেশ্য, যাতে কোনওভাবেই বিমানটিতে আগুন ধরে যায়।  

উত্তেজিত ছিলেন বিমানচালক কেশরী সিংও। তিনি জানিয়েছেন, “যখন দেখলাম বিমানটির চাকা খসে পড়ে গিয়েছে, তখন বুঝেছিলাম নামতে হলে অনেকটা জ্বালানি পোড়াতে হবে। আমি বেলি ল্যান্ডিংয়ের পক্ষে ছিলাম। তবে জানতাম না রানওয়ের কোনও ক্ষতি হবে কিনা। অবশেষে সব কিছু ঠিকভাবে মেটায় এবার স্বস্তি।”

প্রসঙ্গত, বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, বিমানচালক বেশ উদ্বিগ্ন ছিলেন ওই ঝুঁকিবহুল অবতরণের আগে। তবে শেষ পর্যন্ত ঘণ্টা তিনেকের চেষ্টায় তিনি সফল হন একদম নিরাপদে বিমানটিকে অবতরণ করাতে। সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, টাইমস অব ইন্ডিয়া

বিডি প্রতিদিন/কালাম

এই বিভাগের আরও খবর