৩১ আগস্ট, ২০২২ ১১:০৯

পাওনা পরিশোধে ব্যর্থ, বৃহস্পতিবার থেকে ফ্রান্সে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করছে রাশিয়া

অনলাইন ডেস্ক

পাওনা পরিশোধে ব্যর্থ, বৃহস্পতিবার থেকে ফ্রান্সে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করছে রাশিয়া

প্রতীকী ছবি

যুদ্ধের প্রভাবে ইউরোপজুড়ে চলছে জ্বালানি সংকট। এর মধ্যেই ফ্রান্সের জ্বালানি কোম্পানি ‘এনজি’কে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে রাশিয়া।

পাওনা পরিশোধে ব্যর্থতার অভিযোগ এনে এমন ঘোষণা দিয়েছে রুশ রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত গ্যাস কোম্পানি গ্যাজপ্রম। জুলাই গ্যাসের দাম পরিশোধ করতে ব্যর্থ হওয়ার কারণে ১ সেপ্টেম্বর থেকে ফ্রান্সকে গ্যাস দেওয়া বন্ধ করা হবে বলে জানিয়েছে রুশ প্রতিষ্ঠানটি।

মঙ্গলবার গ্যাজপ্রম নিজের অফিসিয়াল টেলিগ্রাম চ্যানেলে এক বিবৃতিতে জানায়, এনজি যথাসময়ে পাওনা পরিশোধ করতে ব্যর্থ হওয়ার কারণে রুশ আইন অনুযায়ী গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করতে বাধ্য গ্যাজপ্রম। গত মার্চ মাসে রুশ সরকার গ্যাজপ্রমকে এই নির্দেশ দেয় যে, যেসব বিদেশি ক্রেতা সময়মতো পাওনা পরিশোধ করতে ব্যর্থ হবে তাদের সরবরাহ বন্ধ করে দিতে হবে।

তবে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ৩০ আগস্ট ছিল জুলাই মাসের বিল পরিশোধ করার সর্বশেষ তারিখ। কিন্তু এনজি এদিন ওই পাওনা পরিশোধ করতে ব্যর্থ হয়েছে। গ্যাজপ্রম একইসঙ্গে বলেছে, এখন পর্যন্ত সরবরাহকৃত গ্যাসের দাম পরিশোধ করা মাত্র এনজিকে আবার গ্যাস দেওয়া শুরু হবে।

রাশিয়ার ইউক্রেন অভিযানকে ঘিরে যখন ফ্রান্সসহ বেশিরভাগ পশ্চিমা দেশের সঙ্গে মস্কোর সম্পর্কে টানাপড়েন চলছে তখন গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করার ঘোষণা দিল মস্কো। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে রাশিয়া ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করে। এরপর পশ্চিমা দেশগুলো মস্কোর ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

এরপর গ্যাজপ্রম ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ মারাত্মকভবে কমিয়ে দেয়। রাশিয়া ঘোষণা করে, নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার কারণে ইউরোপে গ্যাস পাম্প করার একটি টারবাইন পরিবর্তন করা যাচ্ছে না বলে ইউরোপে গ্যাস সরবাহ করা যাচ্ছে না। টারবাইনটির কানাডা থেকে রাশিয়ায় আসার কথা ছিল যার শিপমেন্ট নিষেধাজ্ঞার কারণে আটকে গেছে। তবে পশ্চিমা দেশগুলো অভিযোগ করছে, এটি একটি অজুহাত মাত্র। রাশিয়া আসলে নিষেধাজ্ঞার প্রতিশোধ নিতে চায়। সূত্র: সিএনএন, রয়টার্স, ফিন্যান্সিয়াল টাইমস

বিডি প্রতিদিন/কালাম

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর