Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২৩:৩১

বেড়েছে চালের দাম, পঞ্চাশ টাকার নিচে নেই সবজি

নিজস্ব প্রতিবেদক

বেড়েছে চালের দাম, পঞ্চাশ টাকার নিচে নেই সবজি
বাজার দর

হঠাৎ করে বেড়েছে চালের দাম। রাজধানীর বাজারগুলোতে আগের সপ্তাহের চেয়ে কেজি প্রতি ২ থেকে ৩ টাকা পর্যন্ত দাম বেড়েছে চালের। অন্যদিকে বাজারে এখনো প্রচুর ইলিশের সমাগম। তবে কয়েকদিন ধরে ইলিশের দাম কিছুটা বেড়েছে। বিশেষ করে বড় ইলিশের দাম আগের চেয়ে বেড়েছে। এখন এক কেজি ওজনের ইলিশ ১২০০ থেকে ১৩০০ টাকার নিচে পাওয়া যাচ্ছে না। অন্যদিকে সবজি, পিয়াজ, রসুন, আদার দাম নিয়ে অস্বস্তিতে ভুগছেন ক্রেতারা। বাজারে এখন ৫০ টাকার নিচে কোনো সবজি পাওয়া যাচ্ছে না। গতকাল রাজধানীর বনশ্রী, বাড্ডা, ভাটারা, মহাখালী, খিলক্ষেত, উত্তরার বিভিন্ন বাজার ঘুরে ক্রেতা ও বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এ সব তথ্য জানা গেছে। কয়েকটি খুচরা বাজারে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সব ধরনের চালের মূল্য কেজিতে বেড়েছে ২ থেকে ৩ টাকা। ৩৪ টাকা কেজি দরের মোটা চাল (স্বর্ণা) বিক্রি হয়েছে ৩৫ থেকে ৩৭ টাকায়। গত সপ্তাহে ৫০ থেকে ৫২ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া নাজিরশাইল চাল এ সপ্তাহে বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়। মিনিকেট বিক্রি হচ্ছে ৫৮ থেকে ৬২ টাকা কেজি দরে, যা গত সপ্তাহে বিক্রি হয়েছে ৫৫ থেকে ৬০ টাকায়। পাশাপাশি মূল্য বেড়েছে সুগন্ধি চালেরও। ৯০ টাকা কেজি দরের খোলা কালিজিরা চাল বিক্রি হচ্ছে ১১০ টাকায়। আর প্যাকেটজাত বিভিন্ন ব্র্যান্ডের কালিজিরা চাল বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৩০ টাকা কেজি দরে। এদিকে, বাজারে বিভিন্ন কার্প জাতীয় মাছ, কই, টেংরাসহ দেশি মাছের দাম তুলনামূলক কম। ব্যবসায়ীরা জানান, শীতের আগাম সবজি শিম, ফুলকপি, বাঁধাকপি, মুলা কয়েক সপ্তাহ ধরেই বিক্রি হচ্ছে। তবে এখনো এ সবজির কেজি বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকার ওপরে। দেখা গেছে, শীতের আগাম সবজি শিমের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১০০-১২০ টাকা। শিমের পাশাপাশি চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে ফুলকপি, বাঁধাকপি ও মুলা। ছোট আকারের ফুলকপি বিক্রি হচ্ছে ৪০-৫০ টাকা পিস। একই দামে বিক্রি হচ্ছে বাঁধাকপি। মুলা বিক্রি হচ্ছে ৫০-৬০ টাকা কেজি। পাকা টমেটো বিক্রি হচ্ছে ১০০-১২০ টাকা। গাজর বিক্রি হচ্ছে ৭০-৮০ টাকা  কেজি। করলা ৬০-৭০ টাকা, বরবটি ৭০-৮০ টাকা,  বেগুন ৫০-৬০ টাকা, চিচিঙ্গা, ঝিঙা, ধুনদল ৫০-৬০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। বাজারে এখন পিয়াজের কেজি ৫০-৫৫ টাকা। ঈদের আগে যা ৪০ টাকার নিচে ছিল। চীনা রসুন ১৫০ থেকে ১৭০ টাকা।

১০০ টাকা কেজির  আদা ১৫০ টাকার বেশি বিক্রি হচ্ছে। বাজারে সাদা বয়লার মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৩০-১৩৫ টাকা। লাল কক মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২৪০-২৫০ টাকা কেজি। আর লাল লেয়ার মুরগি ২০০-২১০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৫৫০ থেকে ৬০০ টাকা, খাসির মাংস ৭২০ থেকে ৭৮০ টাকা।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর