শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৫ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ জানুয়ারি, ২০২১ ২৩:৪৭

ঘুড়ি উৎসবে মেতেছিল ঢাকা

সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক

ঘুড়ি উৎসবে মেতেছিল ঢাকা
পুরান ঢাকায় ঘুড়ি উৎসবে গতকাল অংশ নেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার -বাংলাদেশ প্রতিদিন

আকাশকে নানা রঙে বর্ণিল করে তুলেছিল পুরান ঢাকার শৌখিন মানুষেরা। একই সঙ্গে চোকদার, মাসদার, গরুদান, লেজলম্বা, চারভুয়াদার, পানদার, লেনঠনদার, গায়েলসহ প্রায় ২৬ ধরনের ঘুড়ির বৈচিত্র্যময় ডিজাইন ও রঙের বর্ণিলতায় গতকাল মুখরিত হয়ে উঠে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরশনের ৭৫টি ওয়ার্ড। দিনভর ঘুড়ি উড়িয়ে সন্ধ্যায় আতশবাজি ও রংবেরঙের ফানুস উড়িয়ে ঐতিহ্য আর ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি করেন বাসিন্দারা। সঙ্গে ছিল নানান মুখরোচক খাবারের আয়োজন। রাজধানীর গেন্ডারিয়ার ধূপখোলা মাঠের উৎসব প্রাঙ্গণে ঘুড়ি উড়িয়ে গোটা আয়োজনের উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। শামীম সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে আয়োজনের আনুষ্ঠানিকতায় উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা বেনজীর আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ। হাছান মাহমুদ উদ্বোধনীতে বলেন, দেশের ঐতিহ্য রক্ষায় আমাদের আবহমান বাংলার সংস্কৃতি ধরে রাখতে হবে। পুরান ঢাকার ঐতিহ্য তো বটেই, ঘুড়ি উৎসব পুরো বাংলাদেশের সংস্কৃতির অংশ। আমরা প্রায় সবাই ছোটবেলায় ঘুড়ি উড়িয়েছি। কিন্তু জায়গার অভাবে এখন আমাদের কিশোর-তরুণরা ঘুড়ি উড়াতে পারে না। এই ঘুড়ি উড়ানোর যে কি আনন্দ-উত্তেজনা, যারা ঘুড়ি উড়াননি, তারা বুঝতে পারবেন না। দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত একযোগে চলে এ উৎসব। ঐতিহ্যের অনুসন্ধানে এই উৎসবে আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা আনন্দ আর উদ্দীপনায় মিলেমিশে একাকার হয়ে যান। ‘এসো ওড়াই ঘুড়ি, ঐতিহ্য লালন করি’ স্লোগানে আয়োজিত এ উৎসব একযোগে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৭৫টি ওয়ার্ডে অনুষ্ঠিত হয়। আয়োজনের অংশ হিসেবে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৭৫টি ওয়ার্ডের সাধারণ আসনের ৭৫ জন কাউন্সিলর এবং সংরক্ষিত আসনের ২৫ জন মহিলা কাউন্সিলরকে ক্রীড়া ও সংস্কৃতিবিষয়ক স্থায়ী কমিটির পক্ষ থেকে ১০০টি করে ঘুড়ি সরবরাহ করা হয়। পরে কাউন্সিলররা সেসব ঘুড়ি সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের জনসাধারণের মাঝে বিলি করেন, যারা কমিটি নির্ধারিত মাঠ কিংবা বাড়ির ছাদে অবস্থান নিয়ে শূন্যে ঘুড়ি ওড়ান। অন্যদিকে ঢাকা সাংবাদিক ফোরামের আয়োজনে রাজধানীর গেন্ডারিয়ার ধূপখোলা মাঠে অনুষ্ঠিত হয় আরেকটি ঘুড়ি উৎসব। উৎসবে মেয়র তাপস : ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেছেন, ঢাকাবাসীর ঐতিহ্যবাহী সাকরাইন উৎসবের মাধ্যমে ঢাকার পুরো আকাশকে আমরা রঙিন করে দিয়েছি। এই আয়োজনের মাধ্যমে আমরা বিশ্ববাসীকে জানাতে চাই আমরা আনন্দ করতে জানি। উৎসব করতে জানি। আমাদের ঐতিহ্যকে সংরক্ষণ করতে জানি।

গতকাল বিকালে নগরীর ৪৩ নম্বর ওয়ার্ডে সাকরাইন/ঘুড়ি উৎসব-১৪২৭ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন। মেয়র শেখ তাপস আরও বলেন, প্রথমবারের মতো ঢাকা দক্ষিণ সিটির পক্ষ থেকে আমরা সমন্বিতভাবে ৭৫টি ওয়ার্ডে আয়োজন করেছি। এখন থেকে প্রতি বছরই আমরা এই আয়োজন করব এবং আগামী বছরগুলোতে এই আয়োজনের কলেবর আরও বৃদ্ধি করা হবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর