শিরোনাম
প্রকাশ : ৯ জানুয়ারি, ২০২১ ২০:৫০
আপডেট : ৯ জানুয়ারি, ২০২১ ২০:৫৮
প্রিন্ট করুন printer

মুক্তিযোদ্ধাদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ ২৬ মার্চ

গাজীপুর প্রতিনিধি

মুক্তিযোদ্ধাদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ ২৬ মার্চ

আগামী ২৬ মার্চ মুক্তিযোদ্ধাদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী এডভোকেট আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি। 

শনিবার বিকেলে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কড্ডা এলাকায় সামিট গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় নির্মিত কালাকৈর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন তিনতলা ভবন উদ্বোধন ও হস্তান্তর অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান তিনি।

এ সময় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আরো বলেন, আগে যে তালিকা করা হয়েছিল সেখানে ভুলক্রমে যারা আওতাভুক্ত নন তাদের নাম এসেছে, আবার অনেকে যাদের নাম আওতাভুক্ত হওয়ার কথা তাদের নাম বাদ পড়েছে। সেজন্য আমরা তালিকা প্রকাশের কাজ ৩ সপ্তাহ পিছিয়ে দিয়েছি, এ মাসের ৩০ তারিখে সেটা হবে। কারো নাম ভুলভাবে বাদ গেলে তিনি যদি সেটি আমাদের নজরে আনেন তবে তা সংশোধন করব। ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে তালিকা প্রকাশ করে জাতির সামনে সেটি উপস্থাপন করা হবে, আপত্তি গ্রহণের জন্য ৩০ দিন সময় দেয়া হবে। আপত্তি না থাকলে ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে আমরা খসরা তালিকা প্রকাশ করব। ইনশাআল্লাহ ২৬ মার্চ আমরা মুক্তিযোদ্ধাদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করব। কারো ব্যাপারে যদি তদন্তাধীন থাকে সেই তদন্ত নিষ্পত্তির পর তারা যদি মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে বিবেচিত হন, তবে তারা সংযুক্ত হবেন বলে জানান মন্ত্রী। 

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও স্কুল কমিটির সভাপতি খোরশেদ আলম সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি লেফটেন্যান্ট কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান এমপি, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, সামিট গাজীপুর-২ পাওয়ার এবং এইস অ্যালায়েন্স পাওয়ারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মো. মোজাম্মেল হোসেন, গাজীপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ মোফাজ্জল হোসেন, কালাকৈর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফারজানা আক্তার প্রমুখ। 

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন সামিট গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান লতিফ খান, সামিট পাওয়ারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক লে. জে. (অব.) প্রকৌশলী আবদুল ওয়াদুদ, জিএমপির ডিসি অপরাধ (উত্তর) ও মিডিয়া জাকির হাসানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

এর আগে মন্ত্রী ফিতা কেটে বিদ্যালয়ের নবনির্মিত তিন-তলা বিশিষ্ট ভবন উদ্বোধন করেন। সামিট গ্রুপের পক্ষ থেকে সামিট গাজীপুর-২ পাওয়ার এবং এইস অ্যালায়েন্স পাওয়ারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মো. মোজাম্মেল হোসেন, গাজীপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ মোফাজ্জল হোসেনকে এই জমিসহ স্কুল ভবনটি হস্তান্তর করেন।

অনুষ্ঠানে সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর, শিক্ষাবিদ, আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা অংশ গ্রহণ করেন।

আয়োজকরা জানান, আধুনিক সুযোগ সুবিধা, সাইন্স ল্যাব ও কম্পিউটার ল্যাবের জন্য আলাদা কক্ষসহ তিনতলা বিশিষ্ট স্কুল ভবনটি ৫ কোটি ৫৭ লাখ টাকা ব্যয়ে সামিট গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় নির্মাণ করা হয়েছে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ২০:২৫
আপডেট : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ২০:২৯
প্রিন্ট করুন printer

আমি বলছি না বিমানে দুর্নীতি নেই: প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী

নিজস্ব প্রতিবেদক

আমি বলছি না বিমানে দুর্নীতি নেই: প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী
প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী ‘বাংলাদেশ ট্র্যাভেল এজেন্সি (নিবন্ধন ও নিয়ন্ত্রণ) (সংশোধন) বিল-২০২১’ পাসের আগে বিরোধী দলের সমালোচনার জবাবে বলেছেন, আমি বলছি না (বিমানে) দুর্নীতি নেই। সীমিত আকারে আছে। যে জড়িত তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি। মন্ত্রণালয় অনিয়ম-দুর্নীতি বন্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। জিডিএস সিস্টেম, টিকিট না পাওয়া এগুলো ছিল। আমরা তদন্ত করেছি। কিছু স্টেপ নিয়েছি, যাতে কোনো সমস্যা না হয়। টিকেটিং সিস্টেমে যাতে সমস্যা না হয়। ট্র্যাভেল এজেন্সি, এয়ারলাইন্সগুলোর অনেকে ক্ষতিগ্রস্ত করোনাভাইরাসে। অনেক সঙ্কটের মধ্যে চলছে। এখন কেউ বলতে পারবে না টিকিট নেই। আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। এজেন্সি ও ভোক্তা-উভয়ের স্বার্থে এ বিল আনা হয়েছে। 

সোমবার স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের একাদশ তথা শীতকালীন অধিবেশনে এসব কথা বলেন তিনি। 

এর আগে আলোচিত বিলের ওপর জনমত যাচাই-বাছাই কমিটিতে প্রেরণ ও সংশোধনী প্রস্তাব তোলার সময় বিরোধী দল জাতীয় পার্টি ও বিএনপির এমপিরা বিমানের টিকিটসহ নানা অনিয়ম-দুর্নীতি নিয়ে মন্ত্রণালয়ের সমালোচনা করেন। 

জাতীয় পার্টির মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, বিমানের ইতিহাস সুখকর নয়। বেশিরভাগ সময় এটি লস করেছে। লাভ করেছে কম সময়ে। বিমানের ম্যানেজমেন্টের দুর্বলার কারণে লাভ করা মুশকিল। যারা এজেন্ট তারা টিকিট বিক্রি টাকা দেয় না। এজেন্টরা কারসাজি করে। টিকিট পাওয়া যায় না। কিন্তু সিট ফাঁকা থাকে। এর জন্য কী করবেন?

বিএনপির রুমিন ফারহানা বলেন, সনদ বাতিল না করে শুধু অর্থদণ্ড দেওয়ার জন্য বিলটি আনা হয়েছে। ৫৩ থেকে ১০০টি কোম্পানি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। এজেন্সিগুলো নিজেরা ক্রেতা সেজে টিকিট বুক করে রাখে। এতে ক্ষতি হয় বিমানের। যে এজেন্সিগুলোর কথা বলা হচ্ছে। সেগুলোর নিয়ন্ত্রক মন্ত্রণালয়। অদক্ষ ব্যবস্থপনার জন্য বিমান লসে। আড়াই হাজার কোটি টাকা দেনা পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের কাছে। 
উড়োজাহাজ কেনা, ইজারা দেওয়া, ফুড ক্যাটারিংয়ে অনিয়ম হয়। এজেন্সি, জিডিএস সিন্ডিকেট বহাল আছে। 

বিএনপির হারুনুর রশীদ বলেন, ট্র্যাভেল এজেন্সিগুলোর স্বার্থ রক্ষার জন্য বিলটি আনা হয়েছে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৮:৩৬
প্রিন্ট করুন printer

শেখ হাসিনার আমলে কোন মানুষ গৃহহীন থাকবে না: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

ভোলা প্রতিনিধি

শেখ হাসিনার আমলে কোন মানুষ গৃহহীন থাকবে না: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি বলেছেন, শেখ হাসিনা শুধু মানবতার নেত্রী নন, তিনি উন্নয়নের নেত্রী। বর্তমান সরকারের আমলে বাংলাদেশে কোন মানুষ গৃহহীন থাকবে না। তিনি বাংলাদেশে একসঙ্গে ৭০ হাজার গৃহহীন ও ভূমিহীন মানুষকে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ঘর উপহার দিয়ে তা প্রমাণ করেছেন। 

আজ সোমবার চরফ্যাশন টিবি স্কুল মাঠে মুজিববর্ষ উপলক্ষে আন্তঃ কলেজ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। 

পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপি। অনুষ্ঠানে চরফ্যাসন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদনী আকন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদক নুরুল ইসলাম ভিপি, পৌর মেয়র বাদল কৃষ্ণ দেবনাথসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। 

চরফ্যাসন একটি উপজেলা হলেও বাংলাদেশের অনেক জেলার চেয়ে উন্নত উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, চরফ্যাশনে না আসলে উন্নয়ন কি তা আমার অজানা থেকে যেত। শেখ হাসিনার কল্যাণে সারাদেশের ন্যায় চরফ্যাশন-মনপুরায়ও ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে।  

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৩:২২
আপডেট : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৫:৩৬
প্রিন্ট করুন printer

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করবে না সরকার: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করবে না সরকার: কাদের
সংগৃহীত ছবি

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সরকার চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কোনো ধরনের হস্তক্ষেপ করবে না। চট্টগ্রামের জনগণ যাকে খুশি তাকেই ভোট দিবে, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে স্বাধীন ও কর্তৃত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনে কমিশনকে সরকার সম্পূর্ণ সহযোগিতা দিবে। 

ওবায়দুল কাদের আজ সোমবার সকালে তার সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন। 

শেখ হাসিনা সরকার ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় অবিরাম পরিশ্রম করছেন উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এদেশের রাজনীতিতে সততার অনন্য নজির বঙ্গবন্ধু পরিবার। এ পরিবার থেকে সবাইকে শিক্ষা নিতে হবে সততা ও সুমহান ত্যাগের।

ওবায়দুল কাদের আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের ক্ষমতার দাপট না দেখিয়ে জনমানুষের সেবায় নিবেদিতপ্রাণ হওয়ার আহবান জানান। 

ক্ষমতা চিরস্থায়ী নয় জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ভোগের লিপ্সা পরিহার করে ত্যাগের মহিমায় রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে জীবনকে সাজাতে হবে।

দেশের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের অবিরাম লড়াই চালিয়ে যেতে হবে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের। 

অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন এবং গণতন্ত্রের শত্রুদের বিরুদ্ধে লড়াই করার পাশাপাশি নিজেদের পরিশুদ্ধ করার লড়াইও এগিয়ে নিতে হবে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, আগামীর রাজনীতি হবে শুদ্ধতার, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আর বিজ্ঞানসম্মত। যারা দেশকে পিছিয়ে দিতে চায়, তাদের অপচেষ্টা ও ষড়যন্ত্র রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করতে হবে। আর সে লক্ষ্যে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি অভিযোগ করছে, তাদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে সরকার নাকি বাধা দিচ্ছে। বিএনপির মুখে শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের কথা ভূতের মুখে রাম রাম ধ্বনির মতো। আন্দোলনের নামে সহিংসতা ছড়ানো, মিছিলের নামে জনগণের সম্পদ পুড়িয়ে দেওয়া- কোন শান্তিপূর্ণ আন্দোলন হতে পারে না। যারা মানুষ হত্যার রাজনীতি করে, সন্ত্রাস আর দুর্নীতির পৃষ্ঠপোষকতা করে, তারা শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করবে, এদেশের মানুষ তা বিশ্বাস করে না। বিএনপির কর্মসূচি দেখলে সরকার নয়, জনগণই ভয়ে আতঙ্কিত থাকে।

তিনি বিএনপিকে 'প্রতিহিংসার রাজনীতির জনক' বলেও উল্লেখ করেন।

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৩:২২
আপডেট : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৩:২৮
প্রিন্ট করুন printer

বিএনপি বিমানের দুর্নীতির জন্মদাতা: প্রতিমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

বিএনপি বিমানের দুর্নীতির জন্মদাতা: প্রতিমন্ত্রী
ফাইল ছবি

বিএনপি বিমানের দুর্নীতির জন্মদাতা মন্তব্য করে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বলেছেন, বিমানের দুর্নীতি বিএনপির আমলে তৈরি হয়েছে।

সোমবার (২৫ জানুয়ারি) সকালে জাতীয় সংসদে এক আলোচনায় বিরোধী দলের সদস্যদের বিভিন্ন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি এ মন্তব্য প্রতিমন্ত্রী। অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

এসময় প্রতিমন্ত্রী মাহাবুব আলী বলেন, বিমানের অব্যবস্থাপনা বিএনপির আমলে তৈরি হয়েছিল। বিএনপির আমলে তারা বিমানকে লুটপাটের আখড়া বানিয়েছিল। হাওয়া ভবন তৈরি করে সর্বত্র দুর্নীতির লুটপাট চালানো হয়েছে। এখন বিমানে দুর্নীতি হয় না বলবো না, সামান্য হয়। আমরা তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিচ্ছি। বিএনপি বিমানের দুর্নীতির জন্মদাতা।

সংসদ সদস্যদের বিভিন্ন অভিযোগের বিষয়ে বেসরকারি বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বলেন, বিমানের টিকিট পাওয়া যায় না এ অবস্থা ছিল না এটা বলবো না। এর বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। টিকিটের ব্যবস্থা করেছি। এখন কেউ বলতে পারবে না বিমানে সিট আছে টিকিট নেই। ট্রাভেল এসেন্সিগুলোও বর্তমানে বিভিন্ন সংকটের মধ্যে আছে। এসব ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত ছিল তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

বিমানবন্দরে লাগেজ আসা দেরি হওয়ার অভিযোগ প্রসঙ্গে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ফাস্ট লাগেজ ১৫ থেকে ২০ মিনিটের মধ্যে এসে যায়। লাস্ট লাগেজ আসে ৪৫ মিনিটের মধ্যে। এখন এ সমস্যাগুলো আর নেই।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ২৩:০১
প্রিন্ট করুন printer

দেশে দারিদ্র্যের হার ২২-২৩ শতাংশের বেশি নয় : পরিকল্পনামন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

দেশে দারিদ্র্যের হার ২২-২৩ শতাংশের বেশি নয় : পরিকল্পনামন্ত্রী
পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান (ফাইল ছবি)

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, বর্তমানে দেশে দারিদ্রের হার ২২-২৩ শতাংশের বেশি নয়। আজ রবিবার রাজধানীর এফডিসিতে ‘শিল্প খাতে করোনার অভিঘাত মোকাবিলায় সরকারি উদ্যোগ’ নিয়ে ছায়া সংসদ বিতর্ক প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।  

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ। এসময় মন্ত্রী সম্প্রতি একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত ‘দেশে দারিদ্রের হার ৪১ শতাংশ’ খবরটি নিয়েও বেশি করে খোঁজখবর নেওয়ার তাগিদ দেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, করোনার অভিঘাত মোকাবিলায় সরকারি প্রণোদনার প্রবাহ যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি। কিছু কিছু ক্ষেত্রে প্রান্তিক পর্যায় পর্যন্ত সরকার ঘোষিত প্রণোদনা পৌঁছায়নি। তবে করোনাকালীন সময়ে সামাজিক নিরাপত্তা খাতে সরকার তার কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে সমর্থ হয়েছে বলেও তিনি দাবি করেন।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

এই বিভাগের আরও খবর