২২ অক্টোবর, ২০২১ ২১:০৫

‘প্রত্যাবাসন বিরোধীরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে খুনোখুনির সাথে জড়িত থাকতে পারে’

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

‘প্রত্যাবাসন বিরোধীরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে খুনোখুনির সাথে জড়িত থাকতে পারে’

ফাইল ছবি

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া চলছে। এতে যারা রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন চায় না তাদের স্বার্থে আঘাত লেগেছে। তাই খুনোখুনির ঘটনা প্রত্যাবাসন বিরোধীরাই ঘটাতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। 

শুক্রবার ভোরে উখিয়া ক্যাম্পে ৭ রোহিঙ্গা হত্যাকাণ্ড প্রসঙ্গে সিলেটে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের কাছে এমন মন্তব্য করেন তিনি। তবে, এবিষয়ে বিস্তারিত খোঁজ নিচ্ছেন বলেও জানান মন্ত্রী। 
পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ও বাইরে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থতি উন্নতির জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাথে বৈঠক হয়েছে। এর পর এমন ঘটনা- আতঙ্কের বিষয়। রোহিঙ্গা ক্যাম্প ঘিরে মাদক ও অস্ত্র চোরাচালান বন্ধে প্রয়োজনে মিয়ানমার সীমান্তে গুলি চালানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। 

শুক্রবার সকালে বিমানযোগে ঢাকা থেকে সিলেটে এসে পৌঁছান ড. মোমেন। সকাল ১০টার দিকে তিনি নগরীর বালুচরস্থ ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেন। ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ এবং জালালাবাদ এসোসিয়েশনের উদ্যোগে রিজলব টু সেইভ লাইভ কার্যক্রম বিষয়ক ওই আলোচনা সভা শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তিনি।

মুহিবুল্লাহ হত্যা এবং উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে হত্যাকান্ডের ঘটনার মধ্যে কোন যোগসাজোশ আছে কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিভিন্ন লোকে বলছে যে, ওখানে ড্রাগের ব্যবসা হয়। আর কেউ কেউ তথ্য দিয়েছে, কিছু উইপন ও বন্দুকটন্দুকও আনা হয়। আমরা এসব নিয়ে কালকে আলোচনা করেছি। আমার প্রস্তাব হলো, এই ড্রাগ ও অস্ত্র পুরোপুরি বন্ধ করার জন্য প্রয়োজনে গুলি ছুঁড়তে হবে। এগুলো আমরা কালকে আলোচনা করেছি।”

এদিকে, গত মঙ্গলবার ভারত তিস্তা ব্যারেজের গাজলডোবা অংশের সবগুলো গেট খুলে দেয়। বাংলাদেশকে কিছু না জানিয়েই গেটগুলো খুলে দেওয়ায় আকস্মিক ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়ে দেশের উত্তরাঞ্চল। ক্ষতি হয়েছে ব্যাপক।

তিস্তার পানি এভাবে হুট করে বাংলাদেশে ছেড়ে দেওয়া প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন বলেন, ‘আজকে আমাদের স্বরাষ্ট্রসচিব ভারতীয় হাইকমিশনের সাথে আলাপ করবেন। একাধিক ইস্যু আছে, সেইসব নিয়ে। পানির বিষয়টি আগে আমাদেরকে জানিয়েছিল কিনা, আমি জানি না। তবে এটাসহ একাধিক বিষয় নিয়ে আলাপ হবে। আমাদের দুই দেশের মধ্যে রাজনৈতিক, সরকারি সম্পর্ক খুবই দৃঢ়। কিন্তু বিভিন্ন গোষ্ঠী বা ব্যক্তি বিশেষের কারণে অনেক সময় ঝামেলা হয়। আমরা এ নিয়ে আলোচনা করবো (ভারতের সঙ্গে)।’

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর