শিরোনাম
প্রকাশ : ৩১ জুলাই, ২০২১ ১২:০২
আপডেট : ৩১ জুলাই, ২০২১ ১২:৩৪
প্রিন্ট করুন printer

বোনের ছেলে-মেয়ের লাশ গাড়িতে নিয়ে ঘুরছিলেন, ট্রাফিক আইন ভেঙে গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্ক

বোনের ছেলে-মেয়ের লাশ গাড়িতে নিয়ে ঘুরছিলেন, ট্রাফিক আইন ভেঙে গ্রেফতার
Google News

দুই ছেলে-মেয়ের দেখাশুনা করতে বোনের কাছে দিয়েছিলেন আরেক বোন। সেই দুই সন্তানকে অকালেই হারালেন মা। ২০২০ মে মাসে মেয়েটির মৃত্যু হয়। ৭ বছর বয়সী ভাগ্নি জসলিনের মরদেহ গাড়িতে রেখে দিয়েছিলেন অভিযুক্ত নারী। তখন থেকে জসলিনের মরদেহ গাড়িতেই ছিল। এর এক বছর পর ৫ বছর বয়সী ল্যারিও মারা যায়। তার মরদেহ গাড়িতে রেখে দেন নিকোল জনসন। যদিও এসব কিছুই জানতেন না দুই সন্তানের সেই জননী। অবশেষে পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পালিয়ে যেতে চেয়েছিলেন নিকোল। তবে শেষ রক্ষা হয়নি। 

ইয়াহু নিউজ জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের বাল্টিমোরে এ ঘটনা ঘটেছে। বোনের মেয়েকে পিটিয়ে মেরেছিলেন নিকোল। তবে ছেলেটি কীভাবে এবং কখন মারা গেছে তা স্পষ্ট নয়। তবে দুটি শিশুই অপুষ্টিতে আক্রান্ত ছিল। এখন মরদেহ দুটি পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।

পুলিশ জানিয়েছে, বোনের ছেলেমেয়েকে খুনের বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে নিকোলের ট্রাফিক আইন ভাঙার বিষয়টি কেন্দ্র করে। ট্রাফিক আইন ভেঙে জোরে গাড়ি চালানোর জন্য গত বুধবার পুলিশ তাকে আটক করে। নিকোলের কাছে গাড়ির কাগজপত্র দেখতে চাওয়া হয়। কিন্তু তিনি সঠিক কাগজ দেখাতে পারেননি ট্রাফিক পুলিশকে।

দায়িত্বে থাকা পুলিশ কর্মকর্তা নিকোলকে জানান, ‘গাড়ি তুলে নিয়ে যাওয়া হবে।’ এ কথা শোনার পর কোনও আপত্তি জানাননি নিকোল। বরং তিনি জানান, ‘গাড়িটা তারা নিয়ে যেতে পারেন। কেননা তিনি পাঁচ দিন বাড়িতে থাকবেন না।’ এর পরই নিকোল বলেন, ‘সংবাদের শিরোনামে খুব শিগগিরই আসতে চলেছি।’

পুলিশ জানিয়েছে, ‘নিকোলের গাড়ির ডালা খুলতেই দুর্গন্ধ ভেসে আসে। সেখানে একটি বাক্স দেখা যায়। সেই বাক্সের মধ্যে গলিত একটি শিশুর হাড়। তার পাশেই আরও একটি শিশুর পচাগলা দেহ। এর পরই শুক্রবার গ্রেফতার করা হয় নিকোলকে।’

জেরা করে পুলিশ জানতে পেরেছে, নিকোলকে ভরসা করে ২০১৯ সালে ছেলেমেয়েকে তার কাছে রেখে গিয়েছিল বোন।

 

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা

এই বিভাগের আরও খবর