শিরোনাম
প্রকাশ : ১৬ জানুয়ারি, ২০২১ ২১:০৪
আপডেট : ১৬ জানুয়ারি, ২০২১ ২২:২৩
প্রিন্ট করুন printer

ভোট দিতে গিয়ে জানলেন ‘তিনি মারা গেছেন’

নাটোর প্রতিনিধি

ভোট দিতে গিয়ে জানলেন ‘তিনি মারা গেছেন’
মানিক ইসলাম

ঢাকা থেকে বাবাকে ভোট দিতে এসেছিলেন নাটোরের নলডাঙ্গা পৌরসভার বাসিন্দা মানিক ইসলাম। কিন্তু ভোট দেওয়া হলো না তার। তিনি ভোটকেন্দ্রে গিয়ে দেখলেন, ভোটার তালিকায় তার নাম নেই। পরে উপজেলা নির্বাচন অফিসে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, তাকে ‘মৃত’ দেখানো হয়েছে। যে কারণে ভোট না দিয়েই কেন্দ্র থেকে ফিরতে হয় তাকে।

শনিবার দুপুর ১২টার দিকে নলডাঙ্গা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিতে গিয়ে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী মানিক ইসলাম নলডাঙ্গা পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী মো. বাবলু সরদারের ছেলে। 

মানিক ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, বাবাকে ভোট দেওয়ার জন্য কর্মস্থল ঢাকা থেকে শুক্রবার দিনগত রাতে বাড়িতে আসেন। দুপুরের দিকে স্মার্ট কার্ড নিয়ে ভোট দিতে নলডাঙ্গা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে যান। তখন ভোটার তালিকায় তার নাম না থাকায় ওই কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার তাকে ফিরিয়ে দেন।

পরে বিষয়টির কারণ জানতে তিনি উপজেলা নির্বাচন অফিসে যান। সেখানে তিনি স্মার্ট কার্ডটি দেখিয়ে সমস্যার কথা জানান। তারা মেশিনে পরীক্ষা করে জানান, ‌তাকে মৃত দেখানো হয়েছে। 

নলডাঙ্গা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার মো. কিশোয়ার জানান, ওই ব্যক্তির স্মার্ট কার্ড থাকলেও ভোটার তালিকায় তার নাম ছিল না। এজন্য তার ভোট দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। তাই তাকে উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে সংশোধন বা কাগজ নিয়ে ভোটকেন্দ্রে আসার পরামর্শ দেওয়া হয়।

নলডাঙ্গা উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. সাইফুল ইসলাম জানান, ভোটার আইডি কার্ড থাকলেও তালিকায় নাম না থাকলে তার ভোট দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। তবে ভোটের পর কার্ডটি সংশোধন করে নেওয়া যাবে।

তিনি বলেন, ভোটার তালিকা প্রকাশের পর ওই তালিকায় তার নাম আছে কি না, তা আগেই যাচাই করা উচিত ছিল। কিন্তু উনি সেটা করতে ব্যর্থ হয়েছেন। ভুলবশত তার নামটি মৃতের তালিকায় যেতে পারে। তা সময়মতো সংশোধন করা যাবে। 

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ
    
  


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর