Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ জুলাই, ২০১৯ ০১:০৩
আপডেট : ২৪ জুলাই, ২০১৯ ১১:৫৮

অমিত শাহের সঙ্গে আসাদুজ্জামান খানের কী কথা হবে

গৌতম লাহিড়ী, নয়াদিল্লি

অমিত শাহের সঙ্গে আসাদুজ্জামান খানের কী কথা হবে
আসাদুজ্জামান খান কামাল-অমিত শাহ

আগামী ৭ আগস্ট দিল্লিতে বৈঠক বসছেন বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ও ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এটাই হবে তাদের প্রথম দ্বিপক্ষীয় বৈঠক। বাংলাদেশের মন্ত্রী ৬ আগস্ট দিল্লি আসছেন। তিনি ৮ আগস্ট ঢাকা ফিরে যাবেন। বৈঠকে তাদের মধ্যে কী কথা হয়, তাই নিয়ে দিল্লিতে কৌতূহল এখন তুঙ্গে। 

লোকসভা ভোটের আগে তদানীন্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গে বাংলাদেশের মন্ত্রীর বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সে বৈঠক স্থগিত হয়ে যায়। এবার ভারত ও বাংলাদেশের সাধারণ নির্বাচনের পরে দুই নতুন সরকারের মধ্যে প্রথম বৈঠক। এ বৈঠক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। 

সূত্র জানায়, ভারতের মন্ত্রী বাংলাদেশের মন্ত্রীর সঙ্গে তথাকথিত ‘বাংলাদেশি অনুপ্রবেশ’ এবং গরু পাচার রোধ নিয়ে আলোচনা করবেন। এ বৈঠক এমন সময়ে হতে যাচ্ছে যখন ভারতের আসামের বিদেশি চিহ্নিতকরণের নথি তৈরির কাজ শেষ পর্যায়ে। এ বিষয়ে বাংলাদেশের যথেষ্ট উদ্বেগ রয়েছে। 

কিন্তু বাংলাদেশ সরকারের বক্তব্য হলো, এখন পর্যন্ত তারা এটাকে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে মনে করে। কেননা, ভারত সরকারের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য বা সরকারি পর্যায়ে কোনো বৈঠকে বিষয়টি উত্থাপিত হয়নি। ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক এখন যে পর্যায়ে উন্নীত হয়েছে তাতে এমন কোনো বিষয়ে দুই সরকার গুরুত্ব দেবে না বলেই মনে করেন কূটনীতিকরা।

কিন্তু স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এ বিষয়ে কেবল নির্বাচনের সময়েই নয়, ভারতের সংসদে ‘বাংলাদেশের’ বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। সেই বিষয় তিনি বাংলাদেশের মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে তোলেন কিনা সেটাই দেখার। বাংলাদেশের সঙ্গে আলোচনায় সীমান্ত শান্তি, সন্ত্রাসবাদ রোধ এবং রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ নিয়ে বেশির ভাগ আলোচনা হবে। এ বিষয়ে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সহমত রয়েছে যে, রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত যেতে হবে। কেননা, ভারত সরকার সুপ্রিম কোর্টে জানিয়েছে তারা কোনো রোহিঙ্গাকে ভারতে আশ্রয় দেবে না। 

বাংলাদেশের তরফে সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে হত্যা শূন্যে নামিয়ে আনার বিষয়ে জোর দেওয়া হবে। দুই দেশের আলোচনায় প্রতিনিধি দল থাকবে। এ ছাড়া মাদকদ্রব্য পাচার এবং বিশেষ করে ভারত থেকে ফেনসিডিল পাচার রোধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া নিয়ে আলোচনা হবে। 

ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মনে করে, পশ্চিমবঙ্গে দেড় বছর বাদে যে বিধানসভা নির্বাচন রয়েছে সেই সময়ে বাংলাদেশ থেকে সন্ত্রাসবাদীরা যাতে প্রবেশ করতে না পারে সে বিষয়ে কার্যকর সীমান্ত সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা হবে। 

কিছুদিন আগে ভারতের তদন্তকারী সংস্থা জঙ্গি সংগঠন জামা’আতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ (জেএমবি)-এর কয়েকজন সদস্যকে আটক করে। অমিত শাহ কখনই বিদেশ সফর করেননি। বাংলাদেশ সরকারের আমন্ত্রণে তিনি ঢাকা গেলে সেটাই হবে তার প্রথম বিদেশ সফর। তবে আলোচনা শেষে কোনো যৌথ সংবাদ সম্মেলন হবে না। যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করা হবে।


বিডি-প্রতিদিন/ তাফসীর আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর