Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ জানুয়ারি, ২০১৬ ২৩:৪৩

বিএনপির সংবাদ সম্মেলন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি

দৌড়ের ওপর সংবাদ সম্মেলন করল জেলা বিএনপি। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডবের ঘটনা নিয়ে অবস্থান স্পষ্ট করতে জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান মোল্লা কচির মৌড়াইলের বাসভবনে গতকাল বেলা ১১টায় সংবাদ সম্মেলন আহ্বান করা হয়। তবে জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে সকালে সাংবাদিকদের জানানো হয়, রাতেই সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মঈনুর রহমান সংবাদ সম্মেলন বন্ধ করতে নির্দেশ দিয়েছেন। সকাল থেকেই র‌্যাব-বিজিবিসহ বিপুলসংখ্যক পুলিশ কচির বাসভবন ও আশপাশ এলাকা ঘিরে রাখে। এ অবস্থায় পাওয়ার হাউস সড়কে দাঁড়িয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ। সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে দলের সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক খোকন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেছেন। সাম্প্রতিক ঘটনায় বিএনপির কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। এ ঘটনায় থানার সাবেক এএসপি তাপস রঞ্জন ঘোষ ও সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আকুল চন্দ্র বিশ্বাসকে দায়ী করার পাশাপাশি পৌর নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীকে মাঠছাড়া করতে তাদের নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়। মাহমুদুর রহমান মাহিনকে কারাগারে থাকা অবস্থায় মামলায় আসামি করা হয়েছে। বিএনপি নেতাদের হয়রানি বন্ধ, তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদ জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলন শেষ করার আগেই র‌্যাব-বিজিবি-পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে তারা তড়িঘড়ি সটকে পড়েন। সম্মেলনে জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান শাহিন, ওয়ার্ড বিএনপি সভাপতি ও কাউন্সিলর কাউসারসহ নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এ ব্যাপারে দায়িত্বরত ম্যাজিস্ট্রেট রুহুল আমীন জানান, এটি অতিরিক্ত কিছু নয়। এটি নিয়মিত টহল। আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রয়েছে।

এদিকে, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঘটনায় পুলিশ আরও একজনকে গ্রেফতার করেছে। তিনি সদর উপজেলা যুবদলের যুগ্ম-সম্পাদক মো. শাহেদ হোসেন। পুলিশ জানায়, আলাউদ্দিন সংগীতাঙ্গনে অগ্নিসংযোগসহ বিভিন্ন ঘটনায় তার সংশ্লিষ্টতা রয়েছে।


আপনার মন্তব্য