শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০১:৫৬

ভারতের সঙ্গে ৯ রেল রুট সংযুক্ত হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক

ভারতের সঙ্গে ৯ রেল রুট সংযুক্ত হচ্ছে

রেলপথমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, বাংলাদেশ রেলওয়ের সঙ্গে ভারতের রেলওয়ের সংযোগের জন্য মোট ৯টি ইন্টারচেঞ্জ পয়েন্ট হচ্ছে। এর মধ্য ৪টি চালু আছে, তিনটি বন্ধ ইন্টারচেঞ্জ পয়েন্ট পুনরায় চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া নতুন আরও দুটি ইন্টারচেঞ্জ পয়েন্ট চালুর পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে গতকাল একাদশ সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে আলী আজমের (ভোলা-২) লিখিত প্রশ্নের জবাবে রেলথপথমন্ত্রী এসব তথ্য জানান। মন্ত্রীর দেওয়া তথ্যানুযায়ী, বাংলাদেশ রেলওয়ের সঙ্গে ভারতের রেলওয়ের ৪টি চালু পয়েন্টের মধ্যে রয়েছে  দর্শনা (বাংলাদেশ)- গেদে, বেনাপোল (বাংলাদেশ)-পেট্রাপোল (ভারত), রোহনপুর (বাংলাদেশ)-সিঙ্গাবাদ (ভারত), বিরল (বাংলাদেশ)-রাধিকাপুর (ভারত)।

ঢাকা শহরের চারদিকে বৃত্তাকার রেলপথ নির্মাণের সম্ভাব্যতা যাচাই চলছে

নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনের (ভোলা-৩) এক প্রশ্নের জবাবে রেলপথমন্ত্রী জানান, ঢাকা শহরের  চারদিকে বৃত্তাকার রেলপথ নির্মাণের জন্য একটি সম্ভাব্যতা সমীক্ষা প্রস্তাব ২০১৭ সালে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় অনুমোদন করেছে। সে অনুযায়ী পরামর্শক নিয়োগের জন্য গত বছর দ্বিতীয়বার ইওআই আহ্বান করা হয় এবং পরামর্শক নিয়োগের নেগোসিয়েশন কার্যক্রম চলমান রয়েছে। সমীক্ষা কার্যক্রম শেষে সমীক্ষা প্রতিবেদনের ভিত্তিতে নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ করা হবে, যা ঢাকার যানজট নিরসনে নতুন মাত্রা সংযোজন করবে। তিনি আরও জানান, গত ডিসেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত প্রকল্পের বাস্তবায়ন অগ্রগতি  ১৯%।

দ্রুত গতির রেল রুট চালুর উদ্যোগ

নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনের (ভোলা-৩) সম্পূরক  প্রশ্নের জবাবে রেলমন্ত্রী বলেন, ঢাকা থেকে সিলেট এবং ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত দ্রুত গতির রেল রুট চালুর ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশক্রমে রেলওয়ে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। ইতিমধ্যে এ রুটের সম্ভাব্যতা যাচাই করার কাজ চলছে। আশাকরি সম্ভাব্যতা যাচাই শেষ হলে আমরা ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে দ্রুত গতির রেল লাইন চালু করতে পারব।


আপনার মন্তব্য