শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৮ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ জুলাই, ২০২১ ২৩:৫৬

ঈদে বাড়ি ফিরতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস চান ইবি শিক্ষার্থীরা

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

Google News

লকডাউনে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) ক্যাম্পাস পার্শ্ববর্তী মেস ও বাসাবাড়িতে বিভিন্ন কারণে অবস্থান করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকশ’ শিক্ষার্থী। চলমান লকডাউন ১৪ জুলাই পর্যন্ত বৃদ্ধি পাওয়ায় আসন্ন ঈদুল আজহায় বাড়ি না ফিরতে পারার আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে। ফলে শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব পরিবহনে বিভাগীয় শহরে পৌঁছানোর দাবি উঠেছে। এ দাবিতে গতকাল উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রমৈত্রী। স্মারকলিপিতে বলা হয়, ১৯ জুন একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় হল বন্ধ রেখে পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্তের সংবাদ জানতে পারে শিক্ষার্থীরা। ফলে ক্যাম্পাস পার্শ্ববর্তী ও কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহে বাসাবাড়ি বা মেসে হঠাৎ সিট না পাবার আশঙ্কায় শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাস আশপাশের বিভিন্ন মেস ও বাসাবাড়িতে অবস্থান শুরু করে। পরবর্তীতে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় পরীক্ষা গ্রহণ না করার সিদ্ধান্ত হয়। লকডাউনে দূরপাল্লার সব গণপরিবহন বন্ধ রয়েছে। ফলে শিক্ষার্থীরা নিজ বাড়ি পৌঁছে পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে না পারার আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে। একই সঙ্গে কুষ্টিয়া ও ঝিনাইদহ জেলায় করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার ঊর্ধ্বগতি হওয়ায় শিক্ষার্থীরা মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকিতে রয়েছে। স্বাস্থ্যঝুঁকি বিবেচনা করে এবং পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপনের ব্যবস্থা করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব পরিবহনে শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ বিভাগীয় শহরে পৌঁছানোর ব্যবস্থা গ্রহণে প্রশাসনের কাছে দাবি জানিয়েছে ছাত্র মৈত্রী।

বিশ্ববিদ্যালয় পরিবহন প্রশাসক অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘পরিবহন প্রশাসকের বাস পাঠানোর এখতিয়ার কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ পর্যন্ত। ভিসি স্যার অনুমোদন দিলেই সে অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’ প্রক্টর প্রফেসর ড. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘ভিসি স্যার নির্দেশ দিয়েছেন কতজন শিক্ষার্থী আছে এর পরিসংখ্যান বের করতে। এটা বের করতে পারলে একটা সিদ্ধান্তে আসা যাবে।’ উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের পরিসংখ্যানের উপর ভিত্তি করে একটা পরিকল্পনা নিতে বলেছি প্রক্টরকে।’

এই বিভাগের আরও খবর