শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২৩:২১

ব্যালন ডি’অরেও মডরিচ!

রাশেদুর রহমান

ব্যালন ডি’অরেও মডরিচ!

একটা বিশ্বকাপ যে কত কিছুই উপহার দিতে পারে! লুকা মডরিচ একজন মাঝারি মানের তারকা হিসেবে পরিচিত ছিলেন আগে থেকেই। অন্তত মেসি-রোনালদোর কাতারে তাকে কখনো ভাবা হয়নি। কিন্তু রাশিয়া বিশ্বকাপ তাকে মেসি-রোনালদোরও ওপরে তুলে ধরল। ক্রোয়েশিয়ার এই অধিনায়ক বিশ্বকাপে দলটাকে ফাইনালে তুলেছেন। টুর্নামেন্ট জুড়ে দৃষ্টিনন্দন ফুটবল খেলে ক্রীড়ামোদীদের অন্তর জুড়িয়েছেন। ক্রোয়েশিয়ায় জাতীয় বীরের মর্যাদা পেয়েছেন। বছরের সেরা ফুটবলার হিসেবে এরই মধ্যে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেয়েছেন নানাভাবে। ফিফার বর্ষসেরা এবং উয়েফার বর্ষসেরা হওয়ার পর তার চোখ এবার ব্যালন ডি’অরে। গত ১০ বছরে মেসি ও রোনালদোর সাম্রাজ্যে প্রবেশাধিকার পায়নি কোনো ফুটবলারই। ফিফা বর্ষসেরা হোক কিংবা ব্যালন ডি’অর। দুজনে মিলেই ভাগাভাগি করেছেন। একেবারে ঠিক ৫-৫। সমানে সমান। এরই মধ্যে দুই দুটি বিশ্বকাপ জিতেও কেউ মেসি-রোনালদোর এই সাম্রাজ্য দখল করতে পারেনি। অবশেষে এক দশকের নিয়মটা ভেঙে দিয়েছেন লুকা মডরিচ। রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছেন। বিশ্বকাপে দলকে তুলে নিয়েছেন ফাইনালে। সেরা হওয়ার লড়াইয়ে শীর্ষে উঠে আসার জন্য এরচেয়ে বেশি আর কী চাই! এতদিন ধরে জল্পনা চলেছে। গুজব রটেছে ইউরোপিয়ান মিডিয়ায়। মেসি-রোনালদোকে টপকে নাকি ব্যালন ডি’অর জিতে নিয়েছেন লুকা মডরিচ। লিওনেল মেসি নাকি শীর্ষ তিনেও স্থান পাননি। সবকিছুর সমাধান হতে আর বেশি দেরি নেই। আজ মধ্যরাতেই জানা যাবে ব্যালন ডি’অর জয়ীর নাম। প্যারিসে এক আলো ঝলমলে অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়েই সেরা ফুটবলারের হাতে ব্যালন ডি’অর ট্রফি তুলে দিবে কর্তৃপক্ষ। লুকা মডরিচের পক্ষে গুজব রটানো হলেও উইকিপিডিয়ার ব্যালন ডি’অর পেজের ভূমিকায় মেসির পক্ষ নিয়ে লেখা হয়েছে। ‘৩ ডিসেম্বর বিজয়ী মেসির নামই ঘোষণা হতে যাচ্ছে। মেসি এই পুরস্কারটা ষষ্ঠবারের মতো জিতে রোনালদোকে ছাড়িয়ে যাবেন।’ উইকিপিডিয়ার এই ভাষ্য কতটা সঠিক তা কেবল সময়েই জানা যাবে। লুকা মডরিচ যেমন বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলেছেন। জিতেছেন উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। রোনালদোর কৃতিত্বও তো কম নয়। পর্তুগিজ এই তারকা রিয়ালের জার্সিতে জিতেছেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। অন্যদিকে লিওনেল মেসি জিতেছেন লা লিগা এবং কোপা দেল রে কাপ। গোলের সংখ্যায়ও এগিয়ে মেসি এবং রোনালদো। তাছাড়া লড়াইয়ে আছেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের বিশ্বকাপজয়ী ফরাসি তারকা আঁতোয়ান গ্রিজমান। রাশিয়া বিশ্বকাপ জয়ে তার অবদানই ছিল সবচেয়ে বেশি। দেখা যাক, শেষ পর্যন্ত কার হাতে উঠে এবারের ব্যালন ডি’অর ট্রফি!


আপনার মন্তব্য