শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৫ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ মে, ২০১৯ ২২:৩৫

প্রতিশোধের মিশন আবাহনীর

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সন্ধ্যায় আবাহনী মুখোমুখি হচ্ছে ভারতের চেন্নাই এএফসির বিপক্ষে। এএফসি ক্লাব কাপ বাছাই পর্বে ‘ই’ গ্রুপে দুই দলের এটি ফিরতি ম্যাচ

ক্রীড়া প্রতিবেদক

প্রতিশোধের মিশন আবাহনীর

ঘরের মাঠে লড়বে ঢাকা আবাহনী। অথচ ম্যাচ ঘিরে দুশ্চিন্তার শেষ নেই স্বাগতিকদের। জিতলে লড়াইয়ে ফিরবে। হারলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়নের সম্ভাবনা অনেকটাই ম্লান হয়ে যাবে। এমন সমীকরণকে সামনে রেখে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সন্ধ্যায় আবাহনী মুখোমুখি হচ্ছে ভারতের চেন্নাই এএফসির বিপক্ষে। এএফসি ক্লাব কাপ বাছাই পর্বে ‘ই’ গ্রুপে দুই দলের এটি ফিরতি ম্যাচ। ৩০ এপ্রিল আহমেদাবাদে প্রথম সাক্ষাৎকারে  চেন্নাই এএফসি ১- ০ গোলে হারায় আবাহনীকে। এই জয়ে চেন্নাই এককভাবে শীর্ষে উঠে গেছে। এমনকি গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার উজ্জ্বল সম্ভাবনা রয়েছে।

তিন ম্যাচে চেন্নাই সংগ্রহ ৭ পয়েন্ট। অন্যদিকে বাংলাদেশ ৪ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। মিনার্ভা পাঞ্জাব তিন পয়েন্ট নিয়ে তিনে। আর নেপালের মানাং মার্সিয়াংদি ১ পয়েন্টে সবার নিচে রয়েছে। ঢাকা আবাহনী ফুটবলে দেশের সেরা দল এনিয়ে কারও সংশয় নেই। সর্বোচ্চ লিগ ছাড়াও অন্য টুর্নামেন্টে একাধিক ট্রফি জয়ের রেকর্ড থাকলেও এএফসি কাপে পুরোপুরি ব্যর্থ। কখনো গ্রুপপর্ব পেরুতে পারেনি। এবার তাদের লক্ষ্য গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে পরবর্তী রাউন্ডে খেলা। তা সম্ভব কিনা আজকের ম্যাচের ওপর নির্ভর করছে। চেন্নাইকে হারাতে পারলেই শীর্ষে ওঠার পথ খুঁজে পাবে। ড্র করলেও আশা থাকবে। তখন আবার পথটা কঠিন হয়ে যাবে। ফিরতি ম্যাচে মানাং ও মিনার্ভাকে হারালেই চলবে না চেন্নাইয়ের ম্যাচে কি ঘটে তা অপেক্ষা করতে হবে।

চেন্নাই শক্তিশালী প্রতিপক্ষ এ নিয়ে সংশয় নেই। বিশেষ করে অভিষেক বচ্চন দায়িত্ব নেওয়ার পর ভারতীয় ফুটবলে ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছে। আহমেদাবাদের হারের প্রতিশোধ নেওয়ার সুযোগ আছে আবাহনীর। ম্যাচের আগে দুই দল সংবাদ সম্মেলনে মুখোমুখি হয়। এমন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আবাহনী ইনজুরিতে ভুগছে। তবে দলের নির্ভরযোগ্য তারকা নাবীব নেওয়াজ জীবন বলেন, ইনজুরি খেলার একটা অংশ। এনিয়ে ভাবছি না। আমাদের মাথায় শুধুই জয়। ভালো খেললে অবশ্যই চেন্নাইকে হারানো সম্ভব। চেন্নাইয়ের কোচ জন গ্রেগরি বলেন, ঘরের মাঠে প্রতিপক্ষ আবাহনী জয়ের জন্য মরিয়া হয়ে লড়বে। আমরাও কৌশল কাজে লাগাব। আশা করি দর্শকরা একটি প্রতিদ্বন্দ্বিতা ম্যাচ দেখবে। কোচ বলেন, আবাহনীর বেশ কজন ভালোমানের খেলোয়াড় রয়েছেন। তা আমরা জানি। কিভাবে জিততে হবে সেই পরিকল্পনাও নিয়ে রেখেছি।


আপনার মন্তব্য