বুধবার, ১৫ জুন, ২০২২ ০০:০০ টা

মোজাফ্ফর হোসেন পল্টুকে সংবর্ধনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

মোজাফ্ফর হোসেন পল্টুকে সংবর্ধনা

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও বিশিষ্ট ক্রীড়া সংগঠক মোজাফ্ফর হোসেন পল্টুকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় কতৃর্ক ক্রীড়া সংগঠক (ক্রিকেট) পুরস্কার ২০১৩ পাওয়ায় গতকাল সন্ধ্যায় পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে শান্তিনগর ক্লাব এ সংবর্ধনা দেয়। শান্তিনগর ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান সভাপতি মোজাফ্ফর হোসেন পল্টুকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন স্থানীয় এমপি ও ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন। ক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও ঢাকা দক্ষিণ সিটির ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর এনামুল হক আবুলের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন, আওয়ামী লীগের যুব এ ক্রীড়া সম্পাদক হারুনুর রশিদ, ক্লাবের সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম মাসুদ সেরনিয়াবাত। সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরমান হোসেন বাবুর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন  সাবেক এমপি আবদুর রহিম, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ, সাবেক ডিআইজি ও ক্রীড়া সংগঠক শেখ মারুফ হাসান, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আলী আশরাফ, নাট্য শিল্পী কেরামত উল্লাহ, প্রবীণ সাংবাদিক কামরুজ্জামান, ক্রীড়া সংগঠক বদরুল হাসান ঝন্টু, ক্রীড়াবিদ সাইফুল আলম দুলাল প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, পল্টু দক্ষ ক্রীড়া সংগঠক। শান্তিনগর ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত হয়ে ধীরে ধীরে অনেক ক্রীড়া সংগঠন করেছেন। খেলাধুলা করার পাশাপাশি রাজনীতি, পত্রিকা প্রকাশসহ অসংখ্য গুনের অধিকারী। দক্ষ ক্রীড়া সংগঠকের পুরস্কার তার অনেক আগেই প্রাপ্য ছিলেন। উনি যখন ক্রিকেট কন্ট্রোলবোর্ডের দায়িত্ব নিয়েছিলেন, তখন সংগঠন চালানোর মতো অর্থ ছিল। এত সহজ ছিল না। পল্টু সাহেব ক্রিকেট ও ফুটবলের জন্য যা করেছেন তাকে এই সংবর্ধনা দিয়ে মূল্যায়ন করার সুযোগ নেই। দেশের শ্রেষ্ঠ সংগঠক হিসেবে পুরস্কার দেওয়া উচিত। সংগঠক (ক্রিকেট) ব্যারেকট দিয়ে সীমাবদ্ধ করা উচিত নয়। বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন এগিয়ে নিতে হলে পল্টুর মতো দক্ষ সংগঠক বেশি প্রয়োজন।

সর্বশেষ খবর