সোমবার, ২৭ জুন, ২০২২ ০০:০০ টা

বড় বাধা পাড়ি দিল বসুন্ধরা কিংস

ক্রীড়া প্রতিবেদক

বড় বাধা পাড়ি দিল বসুন্ধরা কিংস

টিভিএস বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলে শিরোপা জয়ের পথে বড় বাধা পাড়ি দিল বসুন্ধরা কিংস। গতকাল বসুন্ধরা কিংস অ্যারিনায় শক্তিশালী প্রতিপক্ষ শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে অস্কার ব্রুজোনের শিষ্যরা। এ জয়ে শিরোপার স্পর্শ থেকে আর মাত্র তিন ম্যাচ দূরে আছে বসুন্ধরা কিংস। তিন ম্যাচ জিতলেই লিগ শিরোপা নিশ্চিত হয়ে যাবে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের। ১৭ ম্যাচে ৪৪ পয়েন্ট সংগ্রহ করে শীর্ষে আছে কিংস।

গতকাল হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে বসুন্ধরা কিংস অ্যারিনায়। ম্যাচের শুরু থেকেই পরস্পরের রক্ষণে জোরাল আক্রমণ করেছে বসুন্ধরা কিংস ও শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। ম্যাচে প্রথম গোল করে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। ম্যাচের ২৩তম মিনিটে বসুন্ধরা কিংসের ডিফেন্ডার বিশ্বনাথ শেখ রাসেলের রিচার্ড গাডজেকে ডি বক্সের লাইনে ফেলে দিলে লাইন্সম্যানের ইশারায় পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি সাইমন। বসুন্ধরা কিংসের ফুটবলাররা সঙ্গে সঙ্গেই প্রতিবাদ জানান। পেনাল্টির পরিবর্তে ফ্রি কিকের দাবি জানান তারা। কিন্তু রেফারি নিজের সিদ্ধান্তে অটল থাকেন। পেনাল্টি থেকে জোরাল শটে গোল করেন শেখ রাসেলের কিরগিজ ডিফেন্ডার আইজার আকমাতভ। সমতায় ফিরতে অবশ্য খুব একটা সময় নেয়নি চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস। ম্যাচের ৩৮তম মিনিটে কিংসের নুহা মারঙ অনেকটা পথ ড্রিবলিং করে ডি বক্সের বাম দিকে পাস বাড়িয়ে দেন রবসনকে। ব্রাজিলিয়ান এই তারকা কিছুক্ষণ বল পায়ে রেখে ডি বক্সের লাইনে ফাঁকায় দাঁড়িয়ে থাকা স্বদেশি মিগেল ফিগেইরাকে বল বাড়িয়ে দেন। ফিগেইরা নিজের স্থানে দাঁড়িয়ে বাম পায়ের শটে গোল করে বসুন্ধরা কিংসকে সমতায় ফেরান। প্রথমার্ধ্বে সমতায় থেকেই বিরতিতে যায় দুই দল।

দ্বিতীয়ার্ধ্বে খেলতে নেমেই দুই দল পরস্পরের গোলমুখে জোরাল আক্রমণ করে। ম্যাচের ৬৫তম মিনিটে এগিয়ে যায় বসুন্ধরা কিংস। ডি বক্সের ডান পাশে নুহা মারঙকে হেমন্ত ফাউল করলে ফ্রি কিক দেন রেফারি। মিগেল ফিগেইরার ফ্রি কিকে বল পেয়ে ছোটো ডি বক্সের ভিতরে হেড করেন নুহা। তার হেড ফিরিয়ে দেন শেখ রাসেলের গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলাম রানা। তবে ফিরতি বল পেয়ে ফাঁকায় দাঁড়িয়ে থাকা খালেদ শাফি ডান পায়ের শটে গোল করেন। ৮৫তম মিনিটে  মিগেল ফিগেইরার লং পাসে বল পেয়ে বাম দিক দিয়ে ডি বক্সে ঢুকেন রবসন। তিন জন ডিফেন্ডার ছুটে যান ব্রাজিলিয়ান তারকাকে আটকাতে।

শেখ রাসেলের ডিফেন্ডার নাসিরের দুই পায়ের ফাঁক গলে মাটি গড়ানো শটে গোল করেন রবসন। রানা বল জালে জড়াতে দেখে বোকা বনে যান। ম্যাচের যোগ করা সময়ে ব্যবধান কমায় শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। ডি বক্সের ভিতর থেকে দীপকের পাসে বল পেয়ে ডান পায়ের শটে গোল করেন মান্নাফ রাব্বি।

জয় নিয়ে মাঠ ছাড়লেও বসুন্ধরা কিংসের কোচ অস্কার ব্রুজোন বললেন, ‘ম্যাচটা বেশ কঠিন ছিল। প্রতিপক্ষ অনেক শক্তিশালী ও ভালো খেলেছে। তবে আমরা আরও বেশি গোল পেতে পারতাম।’

সর্বশেষ খবর