শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১০ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ জুলাই, ২০১৮ ২৩:৪৮

জার্সিই কাল হলো ব্রাজিলের!

জার্সিই কাল হলো ব্রাজিলের!

বেলজিয়ামের বিরুদ্ধে ২-১ গোলে হেরে সেমিফাইনালে যাওয়ার টিকিট হাতছাড়া করে ফেলে ব্রাজিল। দুই ধাপ আগেই বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের স্বপ্নের অপমৃত্যু ঘটে তাদের। হৃদয় ভঙ্গের কারণ হয় লক্ষ কোটি ভক্তেরও। প্রশ্ন আসতে পারে, ভালো ফর্মে থেকেও ব্রাজিলের এমন পতনের কারণ কী? উত্তর হিসেবে দায়ী করা হচ্ছে ভুল জার্সি পরাকে। ঠিকঠাক জার্সি না পরার ফলেই নাকি এমন বিপত্তি ঘটে ব্রাজিলের!

এমনিতেই এই ম্যাচে ক্যারিয়ারের সম্ভবত সবথেকে বাজে পারফর্ম করেছেন ফার্নান্দিনহো। অথচ তিনি ব্রাজিলের নির্ভরতার অপর নাম। ডিফেন্সিভ ব্লকার হিসেবে ক্যাসেমিরো না থাকায় কোচ তিতের ভরসা ছিলেন ফার্নান্দিনহো। তবে একেবারেই ডুবিয়ে দিয়ে যান তিনি। নিজে আত্মঘাতী গোল যেমন করেছেন, তেমনি আবার কেভিন ডি ব্রুইন, হ্যাজার্ডদের সামলাতেও ব্যর্থ হয়েছেন। ব্রাজিল সমর্থকদের কাছে তিনি এখন এক ভিলেনের নাম। তবে ফার্নান্দিনহোর জার্সি নম্বরই নাকি সব খারাপ পারফরম্যান্সের কারণ। এমনটাই জানানো হয়েছে ব্রাজিলের ক্রীড়া দৈনিক ‘ল্যান্স’-এ। ল্যান্সে এমন অভিযোগের বিপরীতে কারণ ব্যাখ্যা করা হয়েছে সবিস্তারে। তাতে লেখা হয়েছে, সাধারণত, ক্লাবে ফুটবলাররা যে নম্বরের জার্সি পরে খেলেন, জাতীয় দলের হয়েও সেই জার্সি দেওয়া হয়। এতে খেলোয়াড়দের মানসিক স্বস্তির একটি জায়গা থাকে। এটা বুঝতে বাকি থাকে না টিমের কোচের। তিতেও হয়তো সেই ভাবনা থেকে ফুটবলারদের ক্লাবের জার্সিই দেন। তবে বেলজিয়ামের বিরুদ্ধে সেদিনের ম্যাচে ফার্নান্দিনহোর ক্ষেত্রে তা সম্ভব হয়নি। পেপ গুয়ার্দিওলার সিটি-তে ২৫ নম্বর জার্সি পরলেও, জাতীয় দলের হয়ে ফার্নান্দিনহোকে দেওয়া হয় ১৭ নম্বর জার্সি। জার্সির সঙ্গে সঙ্গে বদলে যায় চেনাজানা ফার্নান্দিনহোর পারফরম্যান্স। অচেনা কেউ গুঁড়িয়ে দিয়ে যায় পুরো ম্যাচটি। ঘটনাচক্রে, চার বছর আগে জার্মানির বিরুদ্ধে মহা বিপর্যয়ের ম্যাচেও ১৭ নম্বর জার্সি পরে খেলেছিলেন তিনি। সেই ম্যাচেও এমন অচেনা পারফরম্যান্স উপহার দিয়েছিলেন। বলা হয়েছে, অতীত বিপর্যয়ের স্মৃতিই হয়তো অবচেতনে রয়ে গিয়েছিল। তাতেই নাকি আত্মঘাতী গোল করেন। পণ্ড হয় ২০১৮ বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ের গৌরব।


আপনার মন্তব্য