শিরোনাম
২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ২০:৩২

বাঁচানো গেল না প্রাণীটিকে

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

বাঁচানো গেল না প্রাণীটিকে

খাবারের সন্ধানে লোকালয়ে আসা বিরল গন্ধগোকুলটিকে বাঁচানো যায়নি। সারাদিন লড়াই করে সন্ধ্যায় মারা যায় মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত প্রাণিটি।

বৃহস্পতিবার রাতে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার মানিকদিয়ার গ্রামে এক কৃষকের বাড়িতে পাম্প মেশিনের ঘরে ঢুকে পড়ে গন্ধগোকুলটি। সেখানে আটকে পড়ে। পরে শুক্রবার সকালে মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত প্রাণিটিকে পাওয়া যায় গ্রামের মাঠের মধ্যে। সেখান থেকে স্থানীয় সাংবাদিক শফিকুল সোহাগ উদ্ধার করে একটি লোহার খাঁচায় রেখে দেন। 

সোহাগ জানান, সারাদিন দৌলতপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর ও বন বিভাগে যোগাযোগ করা হলেও কেউ আসেনি। শেষ পর্যন্ত বন্যপ্রাণী সুরক্ষায় স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করা কুষ্টিয়ার নাব্বির আল নাফিজ ও আহসান হাবিব বিদ্যুৎকে খবর দেয়া হয়। 

নাব্বির জানান, শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে গিয়ে শুশ্রূষা দেয়া শুরু করার কিছুক্ষণের মধ্যে মারা যায় বিরল গন্ধগোকুলটি। তার ধারণা মাথায় শক্ত কিছু দিয়ে আঘাত করেছে কেউ।

নাব্বির বলেন, প্রাণিটি কটাশ বা ভাম বা কলকাট বা খাটাশ বা ছোট বাঘডাশ নামে পরিচিত। এর ইংরেজি:  Small Indian civet.   বৈজ্ঞানিক নাম:  Viverricula indica . এটি ভিভেরিডি পরিবারের একটি গন্ধগোকুল জাতীয় প্রাণী। এটি প্রায় বিলুপ্ত হতে চলেছে।

 

বিডি প্রতিদিন/নাজমুল

এই রকম আরও টপিক

সর্বশেষ খবর