শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ এপ্রিল, ২০২১ ২২:৪৪
প্রিন্ট করুন printer

রাজধানীতে শব্দ ও বায়ু দূষণের জরিপ করবে ক্যাপস

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীতে শব্দ ও বায়ু দূষণের জরিপ করবে ক্যাপস
Google News

রাজধানী ঢাকায় দূষণ নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার। তা হোক বায়ু বা শব্দ দূষণ। প্রতিনিয়ত এ সকল দূষণের মাত্রা বেড়েই  চলেছে। একই সাথে বাড়ছে বায়ু দূষণের উৎসও।

সকল দূষণ রুখতে ঢাকা শহরের কোন এলাকায় কি পরিমাণ দূষণ হচ্ছে, সেটি জানতে গবেষণার প্রয়োজন। আর গবেষণার জন্য দক্ষ জনবল দরকার। সম্প্রতি দক্ষ জনবল গড়তে USAID ও UKAID এর অর্থায়নে বায়ুমণ্ডলীয় দূষণ অধ্যয়ন কেন্দ্র (ক্যাপস) ’র আয়োজনে দুই দিনব্যাপী বায়ু ও শব্দ দূষণ জরিপ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এ কর্মশালাটি যৌথভাবে উদ্ধোধন করেন স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ও বিশ্ববিদ্যালয়টির বায়ুমণ্ডলীয় দূষণ অধ্যয়ন কেন্দ্র (ক্যাপস)এর প্রতিষ্ঠাতা  পরিচালক ড. আহমদ কামরুজ্জামান মজুমদার ও ওয়াটার কিপারস বাংলাদেশের কো-অর্ডিনেটর শরীফ জামিল। দু’দিনব্যাপী এ কর্মশালায় প্রশিক্ষক হিসেবে ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়টির পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক আব্দুল্লাহ্ আল নাঈম।

কর্মশালার মূল উদ্দেশ্য ছিল ঢাকা শহরের ১০টি তাৎপর্যপূর্ণ এলাকার বায়ু ও শব্দ দূষণ জরিপের জন্য দক্ষ জনবল তৈরি করা।

জানা যায়, ২০২১ সালের এপ্রিল থেকে ২০২২ সালের এপ্রিল মাস পর্যন্ত রাজধানীর কয়েকটি এলাকায় বায়ু ও শব্দ দূষণ জরিপ করবে ক্যাপস।

বায়ু ও শব্দ দূষণ নিয়ে কাজ করার মতো জনবলের যথেষ্ঠ অভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে জানিয়ে ড. আহমদ কামরুজ্জামান মজুমদার বলেন, দূষণের প্রকৃতি, ঘনত্ব এগুলো পরিমাপ করা জরুরি। ঢাকার বিভিন্ন অঞ্চল বিভিন্ন রকম। কারণ রাজধানীতে আবাসিক এলাকা , বাণিজ্যিক এলাকা, শিল্প এলাকা ও প্রশাসনিক এলাকা রয়েছে। বিভিন্ন এলাকায় বায়ু ও শব্দ  দূষণের প্রকৃতি বিভিন্ন রকম। এজন্য আমরা একটা গবেষণা কার্য পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ঢাকা শহরের ভূমির ব্যবহারের ওপর পরিমাপ করে বায়ু ও শব্দ দূষণের পরিমাপ করা হবে। এই কাজটি করার জন্য দক্ষ জনবল তৈরির লক্ষ্যে আমরা এ প্রশিক্ষণের আয়োজন করি।

এ বিষয়ে বায়ু ও শব্দ দূষণ জরিপ কর্মশালার প্রশিক্ষক আব্দুল্লাহ আল নাঈম বলেন, বায়ু ও শব্দ দূষণের  জরিপের জন্য আমরা স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট আট জনকে প্রশিক্ষণ দিয়েছি। নমুনা সংগ্রহের পর তা বিশ্লেষণ করে প্রতিবেদন তৈরির নিয়মটা ওই কর্মশালায় শেখানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত

এই বিভাগের আরও খবর