শিরোনাম
১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ০৩:২১
হামলার অভিযোগ ঢাবির, তদন্ত কমিটি গঠন

রাবিতে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ফাইনাল পণ্ড, যৌথ বিজয়ী ঘোষণা

রাবি প্রতিনিধি :

রাবিতে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ফাইনাল পণ্ড, যৌথ বিজয়ী ঘোষণা

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল প্রতিযোগিতা বিশৃঙ্খলায় পণ্ড হয়েছে। পরে আলো স্বল্পতার কারণ দেখিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় উভয় দলকে যৌথভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ কামাল স্টেডিয়ামে এ ঘটনা ঘটে। 

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক বলেন, শুরুতে খেলা ভালই চলছিল। তবে শেষ দিকে দর্শক গ্যালারি থেকে শিক্ষার্থীরা মাঠে আসলে বিশৃঙ্খলা হয়। আমরা শৃঙ্খলা রক্ষার যথেষ্ট চেষ্টা করেও পর্যন্ত সক্ষম হয়নি। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এবছর দেশের ২৬টি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে 'আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট প্রতিযোগিতা চলছিল। এতে ফাইনাল রাউন্ডে ওঠে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি)। রাবির শেখ কামাল স্টেডিয়ামে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট ফাইনাল প্রতিযোগিতা চলাকালে নিরাপত্তা বেষ্টনী উপেক্ষা করে মাঠে প্রবেশ করে সমর্থকেরা। প্রথম ইনিংসে ঢাবি ২০ ওভার ব্যাট করে ১৪৯ রান করে। ১৫০ রানের টার্গেটে নেমে ১ উইকেটে ১০০ রান করে রাবি। তবে শেষের দিকে পরপর উইকেট পতন হলে চাপে পড়ে দলটি। ১৭ ওভার চলাকালে একটি বাউন্ডারি ক্যাচ নিয়ে বিতর্কের জেরে দর্শকরা মাঠে নেমে আসলে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়। ফলে উভয় দলের খেলোয়াড়দের নিজ নিজ তাবুতে আনা হয়। বিশৃঙ্খলার এক পর্যায়ে আলো স্বল্পতার কারণ দেখিয়ে উভয় দলকে বিজয়ী ঘোষণা করে ম্যাচ কর্তৃপক্ষ। 

এদিকে মাঠে খেলোয়াড়দের ওপর হামলা ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগ তুলেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। রাতে জনসংযোগ দপ্তরের প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টিম যখন বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে ঠিক তখনই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েক শত শিক্ষার্থী মাঠে ঢুকে ঢাবি ক্রিকেট টিমের খেলোয়াড়দের উপর অতর্কিত ঝাঁপিয়ে পড়ে এবং হামলা চালায়। এতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টিমের ৫/৬জন খেলোয়াড় গুরুতর আহত হয়। পূর্ব সতর্কতা ও সার্বিক শৃঙ্খলায় যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ায় আয়োজক হিসেবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব ছিল। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

নিরাপত্তার বিষয়টি জানতে চাইলে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রিয়া প্রতিযোগিতার সদস্য সচিব মোহাম্মদ আলী বলেন, যথেষ্ট নিরাপত্তার মধ্যেই খেলা চলছিল। কিন্তু দর্শকরা গ্যালারি থেকে বেষ্টনী ভেঙে মাঠে প্রবেশ করে এবং খেলা দেখতে থাকে। তখন পুলিশ ও প্রক্টরিয়াল বডি শৃঙ্খলার রক্ষায় মাঠে কাজ করছিল। কিন্তু শেষে দিকে আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হলে দর্শকেরা মাঠে প্রবেশ করে এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে উভয় দলকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। 

তিনি বলেন, খেলা চলাকালে ঢাবি দলের সদস্যরা নানা কারণে কালক্ষেপণ করছিল এবং আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করছিল। আম্পায়রকে বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করেছে বলেও জানান তিনি। 

উল্লেখ্য, খেলায় চলাকালে ঘটা অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। এ ঘটনায় উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক হুমায়ুন কবিরকে আহ্বায়ক এবং শহীদ জিয়াউর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ ড. সুজন সেন ও শরীরচর্চা শিক্ষা বিভাগের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ আলীকে সদস্য করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তবে ঢাবি খেলোয়াড়দের ওপর হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছে রাবি কর্তৃপক্ষ।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর