Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ জুন, ২০১৯ ১৬:২২

রেল দুর্ঘটনায় গাফিলতি পেলে কঠোর ব্যবস্থা: রেলপথমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট:

রেল দুর্ঘটনায় গাফিলতি পেলে কঠোর ব্যবস্থা: রেলপথমন্ত্রী

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ার রেল দুর্ঘটনার কারণ তদন্তে গঠিত কমিটি দু’টির রিপোর্টে কারও বিরেুদ্ধে গাফিলতির প্রমাণ পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন রেলপথমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন। আজ বুধবার সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কুলাউড়ার বরমচালে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনায় আহতদের দেখতে গিয়ে একথা জানান মন্ত্রী। 

এসময় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন এমপিও তার সাথে ছিলেন। দুই মন্ত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহতদের চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন।

পরিদর্শন শেষে রেলপথমন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, রেল দুর্ঘটনায় নিহতদের প্রত্যোকের পরিবারকে একলাখ টাকা ও আহত প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা অনুদান দেয়া হবে। 

রেলপথ মন্ত্রী জানান, ‘সিলেট-ঢাকা রেলপথ উন্নয়নে সরকার প্রকল্প গ্রহণ করেছে। ঢাকা থেকে আখাউড়ার পর্যন্ত ইতোমধ্যে ডুয়েল গেজ হয়েছে। এখন আখাউড়া থেকে সিলেট পর্যন্ত ডুয়েল গেজ রেলপথ নির্মাণে ১৬ হাজার ১০৪ কোটি ৪৪ লাখ টাকার প্রকল্প জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (একনেক) নির্বাহী কমিটি অনুমোদন করেছে। এই প্রকল্পের অধীনে এই রুটে আরও ১৬ টি নতুন রেলস্টেশন নির্মান এবং সিলেট রেলস্টেশনকে আরো আধুনিকায়ন করা হবে।’

কুলাউড়ায় ভয়াবহ রেল দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত কারও গাফিলতির প্রমাণ পাওয়া গেছে কিনা এমন প্রশ্নে মন্ত্রী জানান, তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে , তদন্তে কারও গাফিলতি কিংবা কাজে অবহেলার প্রমাণ পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রেলপথমন্ত্রী নুরুল ইসলাম বলেন, ‘রেল বিভাগ দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত ছিল। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর রেলপথের উন্নয়নে হাত দিয়েছে। সারা দেশেই মিটারগেজ রেললাইনগুলো ডুয়েল গেজে রূপান্তরের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে সরকার।’

রেল লাইন জরাজীর্ণ থাকায় রেল ভ্রমণে বেশি সময় লাগে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন,‘দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়া এই লাইনগুলো যতক্ষণ পর্যন্ত ভাল অবস্থায় নেয়া না যাবে ততক্ষণ পর্যন্ত সময় তো লাগবেই।’

পরিদর্শনকালে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিলেটের জেলা প্রশাসক কাজী এম এমদাদুল ইসলাম, ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. ইউনুছুর রহমান, সিলেট বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. দেবপদ রায় প্রমুখ।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার


আপনার মন্তব্য