শিরোনাম
প্রকাশ : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৪:২১

আদালতের নির্দেশের পরও পাসপোর্ট মিলছে না বিএনপি নেতার!

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

আদালতের নির্দেশের পরও পাসপোর্ট মিলছে না বিএনপি নেতার!

নবায়নের জন্য পাসপোর্ট জমা দেওয়ার পর কেটে গেছে প্রায় দেড় বছরের বেশি সময়। কিন্তু এখনো পাসপোর্ট হাতে পাননি বিএনপির কেন্দ্রীয় ক্ষুদ্র ঋণ বিষয়ক সম্পাদক ও সিলেট জেলা মুক্তিযোদ্ধা দলের আহ্বায়ক আবদুর রাজ্জাক। আদালতের নির্দেশের পরও মিলছে না তার পাসপোর্ট। 

এনিয়ে হতাশার মধ্যে রয়েছেন আবদুর রাজ্জাক। তার আমেরিকান গ্রিনকার্ডের মেয়াদ শেষ হতে বাকি আর মাস কয়েক। এর মধ্যে পাসপোর্ট হাতে না পেলে গ্রিনকার্ড হারানোরও শঙ্কায় রয়েছেন তিনি।
 
আবদুর রাজ্জাক জানান, নবায়নের জন্য ২০১৮ সালের ১৩ মে সিলেট বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসে তিনি তার পাসপোর্টটি জমা দেন। ডেলিভারি স্লিপে পাসপোর্ট প্রাপ্তির সম্ভাব্য তারিখ দেওয়া হয় ওই বছরের ৩ জুন। এরপর পাসপোর্ট অফিসে বারবার ধর্ণা দিয়েও কোন লাভ হয়নি। ‘অধিকতর তদন্ত’র কথা বলে আটকে রাখা হয় তার পাসপোর্ট। 

আবদুর রাজ্জাক জানান, এ অবস্থায় তিনি স্বরাষ্ট্র সচিব, ডিপার্টমেন্ট অব ইমিগ্রেশন এন্ড পাসপোর্ট’র মহাপরিচালক, সিলেট বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসের পরিচালক ও সহকারী পরিচালক বরাবরে গত বছরের এপ্রিলে আইনগত বিজ্ঞপ্তি পাঠান। এরপরও কোন সদুত্তর না পেয়ে তিনি উচ্চ আদালতে রিট পিটিশন (নং-৬৪৭৬/১৯) দাখিল করেন। ২০১৯ সালের ১৩ নভেম্বর ও ৪ ডিসেম্বর রিট আবেদনের শুনানী শেষে ১২ ডিসেম্বর আদালত ‘১৫ দিনের মধ্যে পাসপোর্ট কেন দেওয়া হবে না’ জানতে চেয়ে আদালত রুলনিশি জারি করেন। কিন্তু উচ্চ আদালতের আদেশের পরও এখনো পাসপোর্ট ফেরত পাননি তিনি। পাসপোর্ট ফেরত না পাওয়ায় তার আমেরিকান গ্রিনকার্ড হুমকির মুখে রয়েছে বলে দাবি করেন বিএনপি নেতা আবদুর রাজ্জাক। 

এ ব্যাপারে জানতে সিলেট বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক নূরুল হুদার সাথে গত তিনদিন থেকে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। 


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর