Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৩ আগস্ট, ২০১৯ ১১:৫৬
আপডেট : ১৩ আগস্ট, ২০১৯ ১৭:০৮

সময় টিভির প্রতিবেদন

'এক জোড়া জুতার দাম ৩ হাজার টাকা, আর একটা চামড়ার দাম ৩০০ টাকা'

অনলাইন ডেস্ক

'এক জোড়া জুতার দাম ৩ হাজার টাকা, আর একটা চামড়ার দাম ৩০০ টাকা'

বরাবরের মতো এবারও বন্দরনগরী চট্টগ্রামে মৌসুমী চামড়া ব্যবসায়ীদের কৌশলে কয়েক ঘণ্টা অপেক্ষায় রেখে ১০ থেকে ১৫ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে মধ্যস্বত্ত্বভোগীরা। মৌসুমী ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে কেনা ৪০০ টাকার চামড়া আড়ৎদারদের কাছে বিক্রি করা হয়েছে ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা দরে।

ঢাকা থেকে নির্ধারণ করে দেয়া দর অনুযায়ী ২০ বর্গফুটের একটি চামড়ার দাম হওয়ার কথা ৬০০ টাকা। তাও আবার লবণ মিশ্রিত চামড়া। লাভের আশায় মৌসুমী ব্যবসায়ীরা বাসা-বাড়ি থেকে চামড়া কিনেছেন ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা দরে। কিন্তু মধ্যস্বত্ত্বভোগীদের কাছে বিক্রি করতে গিয়ে চরম বিপর্যয়ের মুখে পড়েন তারা।

মৌসুমী ব্যবসায়ীরা বলেন, 'মাল যদি ৭০ হাজার টাকার কেনা থাকে সেখানে ৫০ হাজার টাকাও থাকবে না। মানুষ পাড়া মহল্লায় গিয়ে চামড়া কিনছে, তার অর্ধেক দামেও বিক্রি হচ্ছে না।'  

আড়ৎদাররা সরাসরি চামড়া না কেনায় মধ্যস্বত্ত্বভোগীরা পরিবহনের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে দাম কমাতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা রাস্তার দু'পাশে হাজার হাজার পিস চামড়া নিয়ে বসে থাকতে বাধ্য করে মৌসুমী ব্যবসায়ীদের।

তারা বলেন, 'ওরা এখন মাল কিনছে না। হয়তো ৪০০ টাকা হলে কিনবে। আর আমাদের কেনা পড়ছে ৫০০ টাকা। এক জোড়া জুতার দাম পড়ে ৩ হাজার টাকা আর একটা চামড়ার দাম ৩০০ টাকা।'

মাত্র কয়েক ঘণ্টা অপেক্ষায় রেখে মধ্যস্বত্ত্বভোগীরা ১০ থেকে ১৫ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ সাধারণ ব্যবসায়ীদের। 

তবে সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন আড়তদাররা। তারা বলেন, 'আমরা ট্যানারি থেকে টাকা পাইনি। আমরা কোন সিন্ডিকেট করিনি। চামড়া বিক্রি করে লস, চামড়া কিনে লস।'

চট্টগ্রামের ট্যানারি দু'টি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ঢাকার ব্যবসায়ীদের কাছে চামড়া বিক্রি করতে হয় এখাকানকার আড়তদারদের। আর ঢাকার ব্যবসায়ীদের কাছে গত বছরের বকেয়া রয়ে গেছে ২০ কোটি টাকার বেশি।

বিডি-প্রতিদিন/মাহবুব


আপনার মন্তব্য