শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ এপ্রিল, ২০২০ ১৭:৪৯
আপডেট : ১০ এপ্রিল, ২০২০ ১৯:৩৬

নারায়ণগঞ্জে দ্রুত করোনা পরীক্ষার ল্যাব স্থাপনের দাবি শামীম ওসমানের

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জে দ্রুত করোনা পরীক্ষার ল্যাব স্থাপনের দাবি শামীম ওসমানের
সংগৃহীত ছবি

নারায়ণগঞ্জে করোনার পরীক্ষার ল্যাব স্থাপনের আগে নমুনা সংগ্রহ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন এমপি শামীম ওসমান। বৃহস্পতিবার রাতে বিষয়টি নিয়ে নারায়ণগঞ্জ ক্লিনিক মালিক সমিতির সভাপতি ও বিএমএ’র সাবেক সভাপতি ডা. শাহনেওয়াজ চৌধুরীর সাথে কথা বলেছেন শামীম ওসমান। ওই সময়ে শামীম ওসমান এ আপদকালীন সময়ে সহযোগিতা চাইলে তিনি ও তার সমিতি সাড়া দেন। আর এসব নমুনা সংগ্রহের অ্যাম্বুলেন্স ভাড়াসহ আনুসঙ্গীক খরচ বহনের ঘোষণা দেন শামীম ওসমান।

এ ব্যাপারে এমপি শামীম ওসমান বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, নারায়ণগঞ্জে এখন যে পরিস্থিতি তৈরী হয়েছে এমন অবস্থায় ঢাকায় গিয়ে করোনার টেস্ট বা নমুনা স্যাম্পল পাঠিয়ে অপেক্ষা করার সময় নেই। স্যাম্পল কালেকশন করে রিপোর্ট পেতে পেতে রোগী মারা যাচ্ছে। তাছাড়া করোনার উপসর্গ নিয়ে কেউ কেউ মৃত্যুবরণ করলেও পরীক্ষার অভাবে তা সনাক্ত করে নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না। মৃত্যুর পরে পরীক্ষা করে করোনা সনাক্তের কারণে নারায়ণগঞ্জে এর প্রাদুর্ভাব প্রবলভাবে বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, পাশাপাশি গণমাধ্যমে দেখছি, যাদের এই সময়ে সাধারণ মানুষের জন্য সবচেয়ে বেশী দ্বায়িত্ব পালন করার কথা, জনগণ যাদের কাছে এই সেবা পাওয়ার শত ভাগ অধিকার রাখ, সেই নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগই এখন রুগ্ন। প্রতিদিন আমার নির্বাচনী এলাকাসহ সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে বহু ফোন পাচ্ছি তারা নিজেদের নমুনা সংগ্রহ করাতে ফোন করেও কোন ফল পাচ্ছেন না। অনেকে চিৎকার করে কাঁদছেন কিন্তু তাদের জন্য কিছুই করতে পারছি না কারণ নমুনা সংগ্রহ করার কাজ আমার জানা নেই।

শামীম ওসমান বলেন, আমি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালকের সাথে কথা বলেছি। নারায়ণগঞ্জে অতিসত্বর করোনা পরীক্ষার ল্যাব স্থাপনের দাবি জানিয়েছি। প্রয়োজনে আমি প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করবো। কারণ নারায়ণগঞ্জ এর প্রতি তিনি যথেষ্ট কনসার্ন। মহাপরিচালক  আমাকে আশ্বস্ত করেছেন যে নমুনা সংগ্রহের ব্যাপারে তিনি আরো সক্রিয় ভূমিকা নিবেন।

তিনি আরো বলেন, তাকে ধন্যবাদ জানিয়ে আমি এটাও বলেছি যে, যদি নমুনা সংগ্রহ করার ব্যাপারে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে কোন সুফল না পাওয়া যায় তবে গণবিস্ফোরণ ঘটলে এর দ্বায়দ্বায়িত্ব আপনাদেরই নিতে হবে।

শামীম ওসমান আরো বলেন, ইতোমধ্যেই আমি নারায়ণগঞ্জের বে-সরকারী ক্লিনিক মালিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলেছি। তারা আমাকে জানিয়েছে ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার হতে টেকনিশিয়ান ও অ্যাম্বুলেন্স প্রস্তুত রাখলে দ্রুত নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা সম্ভব। আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ, তারা আমার আহ্বানে সাড়া দিয়েছেন। আমি তাদের বলেছি প্রয়োজনে অ্যাম্বুলেন্সসহ সকল আনুষাঙ্গিক খরচ আমি ব্যক্তিগতভাবে বহন করবো কিন্তু এই ক্রান্তি লগ্নে আপনারা নারায়ণগঞ্জবাসীর পাশে থাকুন।

নারায়ণগঞ্জ ক্লিনিক মালিক সমিতির সভাপতি ও বিএমএ’র সাবেক সভাপতি ডা. শাহনেওয়াজ চৌধুরী জানিয়েছেন, এমপি শামীম ওসমান আমাদের জানিয়েছেন জেলা সিভিল সার্জন ও সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগে করোনা উপসর্গ থাকা রোগীদের নমুনা পরীক্ষার জন্য লোকবল কম। তাই তার অনুরোধে আমরা বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করতে পেরেছি এবং তিনি আমাদের সকল প্রকার সহযোগীতারও আশ্বাস দিয়েছেন।

এদিকে এমপি শামীম ওসমান আরও বলেন, ঘনবসতী ও শিল্পাঞ্চল হওয়ায় নারায়ণগঞ্জ ক্রমেই এক ভয়াবহ পরিণতির দিকে যাচ্ছে। যা সমগ্র দেশের জন্যও আতঙ্ক ও হুমকির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। তাই জরুরি ভিত্তিতে নারায়ণগঞ্জে করোনাভাইরাস পরীক্ষার ল্যাব স্থাপনের জন্য সরকার ও সংশ্লিষ্টদের প্রতি আমি আবারো জোরদাবি  জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য, করোনার সংক্রামণ প্রতিরোধে গত বুধবার থেকে পুরো নারায়ণগঞ্জ জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করেছে আইএসপিআর। 


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য