Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৭ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ জুলাই, ২০১৯ ২৩:৩৯

রাজশাহীতে কলেজ শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

রাজশাহীতে কলেজ শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

পরিবারের আপত্তি ছিল। তবুও থেমে থাকেনি প্রেমের সম্পর্ক। সেই সম্পর্ক বিয়ে পর্যন্ত যাতে না গড়ায়, সে জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে চলছিল মগজ ধোলাই। আর এ নিয়ে টানাপড়েনে আত্মহত্যার পথে হাঁটলেন কলেজপড়ুয়া শিক্ষার্থী শায়লা খাতুন (১৯)। গতকাল সকালে নগরীর শালবাগান এলাকার গ্লোবাল নার্সিং কলেজের ছাত্রাবাস থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় থাকা শায়লার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশের ধারণা শায়লা আত্মহত্যা করেছে। শায়লা খাতুন চর মাঝারদিয়াড় এলাকার মাইদুল ইসলামে মেয়ে। মরদেহ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। শায়লার মামা মাজাহারুল ইসলাম বলেন, পবার দারুশা বেঘুরা গ্রামে নানার বাড়িতে থাকত শায়লা। সেই সুবাদে রাজশাহীতেই পড়াশোনা করত। এর মধ্যে একই এলাকার আজিজুল ইসলাম নামের এক ছেলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিষয়টি পরিবারের লোকজনের মধ্যে জানাজানি হয়। তিনি আরও বলেন, এর জেরে কয়েকবার শায়লা ও আজিজুলকে নিষেধ করা হয়। এ সময় শায়লা বলেছিল, ‘আমি আর আজিজুলের সঙ্গে সম্পর্ক রাখব না। তোমাদের (পরিবার) ইচ্ছায়ই বিয়ে করব।’ তারপরও শায়লা ও আজিজুলের মধ্যে সম্পর্ক টিকে ছিল বলে স্থানীয়ভাবে জানতে পারেন মাজাহারুল। পরিবারের লোকজন অন্যত্র বিয়ের উদ্যোগ নিয়েছিলেন। তাদের ধারণা, এর জেরে হয়তো শায়লা আত্মহত্যা করেছে। বোয়ালিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মন জানান, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে কোনো একসময় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে শায়লা। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে শায়লার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সেখানে বিয়ে দিতে না চাওয়ায় আত্মহত্যা করে থাকতে পারে।


আপনার মন্তব্য