শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩১ মার্চ, ২০২০ ০০:১১

করোনা দুর্যোগেও আমরা জয়ী হব

-ক্যাপ্টেন তাজ

বাঞ্ছারামপুর প্রতিনিধি

করোনা দুর্যোগেও আমরা জয়ী হব
বাঞ্ছারামপুর উপজেলা অডিটোরিয়ামে গতকাল ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ক্যাপ্টেন (অব.) এবি তাজুল ইসলাম -বাংলাদেশ প্রতিদিন

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ক্যাপ্টেন (অব.) এ বি তাজুল ইসলাম বলেছেন, আওয়ামী লীগ জনগণের সরকার। যে কোনো দুর্যোগে জনগণের পাশে থাকে আওয়ামী লীগ। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসও একটি বড় দুর্যোগ। এই দুর্যোগেও আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জয়ী হব। এজন্য সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে। এই দুর্যোগে মানবিকতার পরিচয় দেওয়ার সময়। গতকাল উপজেলা অডিটরিয়ামে হতদরিদ্রদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণকালে সাংবাদিকদের দেওয়া এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীরের ১৫ লাখ টাকা, সংসদ সদস্য হিসেবে নিজের ৬ মাসের বেতনের ১১ লাখ ২০ হাজার টাকাসহ মোট ২৭ লাখ টাকার খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। ১৩টি ইউনিয়ন এবং ১টি পৌরসভায় বিতরণকৃত খাদ্যসামগ্রীর মধ্যে ছিল প্রতিটি পরিবারের জন্য ৬ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ১ কেজি পিয়াজ, ১ কেজি আটা, ১ কেজি তেল এবং একটি হাত ধোয়ার সাবান। ক্যাপ্টেন (অব.) এ বি তাজুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানগুলো এগিয়ে আসছে। করোনার এই ক্রান্তিকালে সবচেয়ে বড় সুখবর দিয়েছেন বাঞ্ছারামপুরের কৃতী সন্তান বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান। রাজধানীতে বসুন্ধরা গ্রুপ চীনের উহানের চেয়ে বড় হাসপাতাল করার প্রস্তাব দিয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে। প্রধানমন্ত্রীর সম্মতির পর গতকাল বিকালে হাসপাতাল করা নিয়ে ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা পরিদর্শন করেছেন সেনাবাহিনী ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের কর্মকর্তারা। একই সঙ্গে করোনা মোকাবিলায় ১০ কোটি টাকাও জমা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে। বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি আমাকে আশ্বস্ত করেছেন সবসময় তিনি বাঞ্ছারামপুরবাসীর পাশে থাকবেন। কাজেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ও আমরা থাকতে এই এলাকায় একটি মানুষও অনাহারী থাকবে না। তিনি বলেন, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে নিজে ঘরে থাকুন। এই ভাইরাসের একমাত্র প্রতিরোধক সচেতনতা। নিজে দাওয়াত করে প্রাণঘাতী ভাইরাস নিজের ঘরে আনবেন না। কারণ মানুষের মাধ্যমেই এই রোগ ছড়ায়। এজন্য খুব প্রয়োজন না হলে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক ঘরে থাকুন। ঘন ঘন সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করুন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক যুগ্ম সচিব সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন সরোয়ার, থানার ওসি সালাহ উদ্দিন, উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা পবিত্র চন্দ ম-ল, আওয়ামী লীগ নেতা আমিনুল ইসলাম, কাজী জাদিদ আল রহমান জনি, তফাজ্জল হোসেন, শহিদুল হক বাবুল, আবদুর আহাদ খোকন, মাহাবুর রহমান উজ্জ্বল, স্বেচ্ছাসেবক লীগের মাহমুদুল হাসান ভুইয়া, অহিদ মিয়া, ছাত্রলীগের জুয়েল আহমেদ, আলাউদ্দিন সরকার, জামাল হায়দার, রুমেল আহমেদ আমান প্রমুখ।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর