মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
শতাব্দীর সেরা বৃষ্টি

নামছে না পানি, এখনো দুর্ভোগে রংপুরবাসী

নজরুল মৃধা, রংপুর

রংপুর মহানগরে শতাব্দীর সেরা বর্ষণের পানি নেমে যাওয়ার পথ পাচ্ছে না। ফলে এখনো হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দী। নগরের বিভিন্ন পাড়ামহল্লা ছাড়াও চরম দুর্ভোগে সিটির বর্ধিত এলাকার মানুষ। শনিবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে রবিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত রংপুরে ৪৪৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়; যা এ শতকের মধ্যে সর্বোচ্চ। নগরের প্রধান দুটি খাল একসময় আশীর্বাদ হলেও পানি বের হতে না পারায় অভিশাপে পরিণত হয়েছে। নগরের প্রাণকেন্দ্র দিয়ে বয়ে যাওয়া শ্যামাসুন্দরী খাল ও ক্যাডি ক্যানেল উপচে পড়ায় বৃষ্টির পানি বের হতে পারছে না। ফলে পাড়ামহল্লার অনেক স্থান এখনো জলমগ্ন থাকায় মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারছে না। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ টন চাল ও ৩০০ প্যাকেট শুকনো খাবার দেওয়া হয়েছে। আরও শুকনো খাবার বিতরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক আসিব আহসান। নগরের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোস্তাফিজার রহমান জানান, গতকালও কোমরপানি ভেঙে প্রধান সড়কে এসে শুকনো খাবার কিনেছেন। বৃষ্টিতে ঘরে হাঁটুপানি জমায় রান্না করার উপায় না পেয়ে পরিবারের সবাই চিঁড়া-মুড়ি খেয়ে দিন কাটাচ্ছেন। তিনি জানান, শ্যামাসুন্দরী খালের পানি বের হওয়ার পথ না পাওয়ায় বৃষ্টির পানি সরছে না। এদিকে নগরের বর্ধিত এলাকা ৩১, ৩২ ও ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের দুর্ভোগ এখনো চরমে। এ তিন ওয়ার্ডের পাড়ামহল্লা হাঁটু থেকে কোমর পানিতে তলিয়ে রয়েছে। বাড়িঘরে পানি প্রবেশ করায় অনেকেই উঁচুস্থানে আশ্রয় নিয়েছে। কয়েকটি বাজারে পানি প্রবেশ করায় দোকানপাট বন্ধ রেখেছেন ব্যবসায়ীরা। ফলে ওইসব ওয়ার্ডের মানুষজনের দুর্ভোগ এখন চরমে। স্মরণকালের ভয়াবহ বৃষ্টিপাতে ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকার রাস্তা তালিয়ে যাওয়ায় মানুষের চলাচল বন্ধ হয়ে পড়েছে।

এদিকে নগরের বিদ্যালয়গুলোয় আশ্রয় নেওয়া মানুষের মধ্যে সিটি করপোরেশন ও জেলা প্রশাসন শুকনো খাবার পৌঁছে দিচ্ছে।

রংপুর সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর নাজমুন নাহার নাজমা বলেছেন, ‘বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেছি। এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা হয়েছে। পানিবন্দী পরিবারগুলোর সার্বিক খোঁজখবর নিচ্ছি।’

প্যানেল মেয়র মাহাবুবার রহমান টিটু বলেছেন, ‘আমরা এখন পানিতে ক্ষতিগ্রস্তদের নিয়ে ব্যস্ত। বিদ্যালয়ে আশ্রয় নেওয়া মানুষের মধ্যে শুকনো খাবার পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করা হচ্ছে।’