শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:৫৪

আট বছরেও হয়নি পাঁচ পুলিশ হত্যার বিচার

ঘোড়া আজিজসহ অনেকে পলাতক

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ফাঁসির রায়কে কেন্দ্র করে ২০১৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি রংপুরের পীরগাছা ও গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে জামায়াত শিবির নাশকতা চালিয়ে ৫ পুলিশকে হত্যা করে। হত্যাকান্ডের আট বছর পেরিয়ে গেলেও এর বিচার এখনো হয়নি। এজাহারভুক্ত অনেক আসামিই এখনো রয়েছে ধরাছোঁয়ার বাইরে। জানা গেছে, ২০১৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি রংপুরের পীরগাছায় জামায়াত শিবিরের হামলায় গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন পুলিশ সদস্য মোজাহার আলী। তিনি পাঁচ দিন ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে মারা যান। তার বাড়ি দিনাজপুরের চিরিরবন্দর নশরতপুর গ্রামে। অপরদিকে একই দিন সুন্দরগঞ্জে চার পুলিশ কনস্টেবল নিহত হন। নিহতরা হলেন, গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার খামার ধনারুহা গ্রামের মৃত এছাহাক আলীর ছেলে নাজিম উদ্দিন, রংপুরের পীরগাছা উপজেলার রহমতচর গ্রামের মৃত আনছার আলীর ছেলে তোজাম্মেল হক, কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার কিশামত গোবধা গ্রামের আবু শামার ছেলে হযরত আলী ও বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার ঠাকুরপাড়ার তফিজ উদ্দিনের ছেলে বাবলু মিয়া। পীরগাছার পুলিশ সদস্য মোজাহার আলী হত্যার ঘটনায় পীরগাছা থানায়  পুলিশের ওপর গুলিবর্ষণ, হামলা ও সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে এস আই মিজানুর রহমান মিজান বাদী হয়ে ৬৮ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও দেড় হাজার ব্যক্তির নামে মামলা করেন।  মামলায় চার্জশিট দেওয়া হয়েছে ১৫৯ জনের বিরুদ্ধে। মামলাটি বর্তমানে বিচারাধীন রয়েছে। তবে এই মামলার অনেক আসামি এখন পর্যন্ত গ্রেফতার এড়িয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। এ বিষয়ে পীরগাছা থানার ওসি আজিজুল ইসলাম জানান, আমরা অনেক আসামিকেই গ্রেফতার করেছি।

অনেকে আদালতে আত্মসমর্পণ করেছে। মামলাটি বর্তমানে রংপুর আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। এদিকে সুন্দরগঞ্জে ৪ পুলিশ সদস্য হত্যাকান্ডের পর ২০১৪ সালের ২২ সেপ্টেম্বর গাইবান্ধার আদালতে ৩২ পৃষ্ঠার চার্জশিট দাখিল করেন সুন্দরগঞ্জ থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক। চার্জশিটে গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের জামায়াতের সাবেক এমপি আবদুল আজিজ ওরফে ঘোড়া আজিজসহ ২৩৫ জনকে অভিযুক্ত করা হয়। কিন্তু প্রধান আসামি আবদুল আজিজসহ অনেকই  ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছে।

এ ব্যাপারে সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল্লাহিল জামান জানান,  ঘোড়া আজিজ এখনো পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। মামলার চার্জশিট আদালতে দাখিল করা হয়েছে। বর্তমানে মামলাগুলো বিচারাধীন রয়েছে। তিনি আরও জানান, নিহত ৪ পুলিশ সদস্য স্মরণে থানা ক্যাম্পাসে রবিবার স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর