বৃহস্পতিবার, ২৬ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ টা

এসপি তানভীরকে সতর্ক করে ক্ষমা করেছে হাই কোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক

কুষ্টিয়ায় সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মহসিন হাসানের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের ঘটনায় জেলার তৎকালীন পুলিশ সুপার (এসপি) এস এম তানভীর আরাফাতকে সতর্ক করার পর ক্ষমা করে দিয়েছে হাই কোর্ট। বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের হাই কোর্ট বেঞ্চ গতকাল এসপি তানভীরকে সতর্ক করে ক্ষমার রায় দেয়। আদালতে এসপি তানভীরের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মুন্সি মনিরুজ্জামান। অন্যপক্ষে ছিলেন আইনজীবী ইশরাত হাসান।

এ বিষয়ে শুনানির সময় তানভীরের আইনজীবী মুন্সি মনিরুজ্জামান আদালতে বলেন, এসপি তানভীরকে ইতিমধ্যেই শাস্তিমূলক বদলি করা হয়েছে। তাকে বরিশাল মহানগরে ট্রাফিকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। পরে আদালত তানভীরকে সতর্ক করে ক্ষমার মাধ্যমে রুলটি নিষ্পত্তি করে দেয়।

গত ২৫ জানুয়ারি সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মহসিন হাসানের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের ঘটনায় হাই কোর্টে হাজির হয়ে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে আবেদন করেছিলেন এসপি তানভীর আরাফাত। ওই দিন তাকে ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। পরে এ ঘটনার রেশ ধরে ফেব্রুয়ারি মাসে এস এম তানভীর আরাফাতকে এসপি পদমর্যাদায় বরিশালে বদলি করা হয়।

চলতি বছরের ২০ জানুয়ারি কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা পৌরসভা নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকালে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মহসিন হাসানের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের ব্যাখ্যা দিতে কুষ্টিয়ার এসপি তানভীরকে তলব করেছিল হাই কোর্ট। একই সঙ্গে আদালত অবমাননার দায়ে তার বিরুদ্ধে কেন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, এ মর্মে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়। এর জবাবে পরে এসপি তানভীর আদালতে হাজির হয়ে ক্ষমা প্রার্থনা করেছিলেন। চলতি বছরের ১৯ জানুয়ারি ভেড়ামারা পৌরসভা নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকালে কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মহসিন হাসানের সঙ্গে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাতের দুর্ব্যবহারের বিষয়টি অভিযোগ হিসেবে সুপ্রিম কোর্টে আসে। ওই ম্যাজিস্ট্রেট নিজেই এ অভিযোগ করেন।