সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা

পরীর পাহাড় ঘিরে উত্তাপ চট্টগ্রামে

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

পরীর পাহাড় ঘিরে উত্তাপ চট্টগ্রামে

চট্টগ্রাম নগরীতে কয়েক মাস ধরে চলা অক্সিজেনখ্যাত ‘সবুজ’ সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণ বন্ধের বিষয় নিয়ে আলোচনার রেশ কাটতে না কাটতেই আরেকটি উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে ঐতিহাসিক পরীর পাহাড় নিয়ে। পরীর পাহাড়ে চট্টগ্রাম আইনজীবী সমিতির নতুন স্থাপনা নির্মাণ ও পুরাতন স্থাপনার বৈধ-অবৈধ আইনি দিক নিয়ে নানা প্রশ্ন তুলেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন। চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন ও চট্টগ্রাম আইনজীবী সমিতির অফিস পাশাপাশি হলেও স্থাপনা নির্মাণ ঘিরে উভয়ে মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে। এ বিষয়ে গতকাল আইনজীবী সমিতির নেতারা, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের গণমাধ্যমে দেওয়া বক্তব্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। সংবাদ সম্মেলন করে তারা ডিসির বক্তব্যগুলো মিথ্যা দাবি করেন এবং অনতিবিলম্বে সে বক্তব্য প্রত্যাহার না করলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন বলছে, অবৈধ স্থাপনা থাকলে বা নতুন করে কেউ নির্মাণকাজ করলে আইনিভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অন্যদিকে অনুমোদনসহ যাবতীয় নিয়ম মেনেই সব কিছু করা হচ্ছে বলে জানান আইনজীবী সমিতির নেতারা। এরই মধ্যে পরীর পাহাড় রক্ষায় অননুমোদিত বিভিন্ন স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য দেওয়া প্রস্তাবনায় প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দিয়েছেন। এর মধ্য দিয়ে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন ও আইনজীবী সমিতির সৃষ্ট দ্বন্দ্ব নিরসন হতে পারে বলে জানান অনেকেই। চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান বলেন, নীতিমালা অনুসারে ‘ক’ শ্রেণির কেপিআইর আশপাশে কোনো ধরনের বহুতল স্থাপনা করা যাবে না। তিনি বলেন, পরীর পাহাড়ে অনুমোদনহীন প্রায় সাড়ে ৩০০ বিভিন্ন ধরনের অবকাঠামো রয়েছে। সিডিএর তালিকা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। কোনো স্থাপনা অবৈধ হলে উচ্ছেদ করার উদ্যোগ নেওয়া হবে।

চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ এনামুল হক বলেন, আদালত ভবনের সঙ্গে গড়ে ওঠা আইনজীবী ভবনগুলোর সিডিএর অনুমোদন রয়েছে। যে দুটি কক্ষ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে, সেগুলোর ভাড়া, বিল সবই আইনজীবী সমিতি দিচ্ছে। ভাড়া তুলছে জেলা প্রশাসনের লোক।

সর্বশেষ খবর