শুক্রবার, ২২ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ টা
ভুয়া ঋণ উত্তোলন

এসবিএসির সাবেক চেয়ারম্যানসহ সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা

বিশেষ প্রতিনিধি

অস্তিত্বহীন প্রতিষ্ঠানের নামে ২০ কোটি ৬০ লাখ টাকা ভুয়া ঋণ নিয়ে বিদেশে পাচারের অভিযোগে সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স (এসবিএসি) ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান এস এম আমজাদ হোসেনসহ সাত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এই টাকা তিনি আমেরিকা, রাশিয়া, সিঙ্গাপুর ও কলকাতায় পাচার করেছেন বলে দুদক জানিয়েছে। গতকাল দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে (সাজেক-১)  মামলাটি করেন অভিযোগের অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তা উপ-পরিচালক মো. গুলশান আনোয়ার প্রধান। এজাহারে আসামি হিসেবে ব্যাংকের ফার্স্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহা. মঞ্জুরুল আলম, ভাইস প্রেসিডেন্ট ও সাবেক শাখা প্রধান এস এম ইকবাল মেহেদী, এক্সিকিউটিভ অফিসার এবং ক্রেডিট ইনচার্জ মো. নজরুল ইসলাম, ব্যাংকটির খুলনা শাখার সাবেক এমটিও এবং ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার তপু কুমার সাহা, সিনিয়র অফিসার বিদ্যুৎ কুমার মন্ডল ও সিনিয়র অফিসার মারিয়া খাতুনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, আসামিরা ক্ষমতার অপব্যবহার করে ভুয়া ভিজিট প্রতিবেদন ও ভুয়া স্টক লট তৈরি করে খুলনা বিল্ডার্স লিমিটেড নামে কাগুজে প্রতিষ্ঠানের মালিককে ঋণ পাইয়ে দিতে সহযোগিতা করেন। সংশ্লিষ্ট ঋণের বেনিফিসিয়ারিরা সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স ব্যাংক লিমিটেড থেকে ২০ কোটি ৬০ লাখ টাকা উত্তোলন করেন। পরে তারা বিভিন্ন লেয়ারিংয়ের মাধ্যমে ওই টাকা বিভিন্ন কোম্পানি ও ব্যক্তির হিসাবে স্থানান্তর এবং রূপান্তরের মাধ্যমে আত্মসাৎ করেন। আসামিদের বিরুদ্ধে দন্ডবিধি ১৮৬০ ও মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২-এর সম্পৃক্ত ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ইতিমধ্যে এসবিএসির সাবেক চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেনের অর্থ পাচার ও দুর্নীতির বিষয়ে বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ) থেকে গোয়েন্দা প্রতিবেদন সংগ্রহ করেছে দুদক। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, আমজাদ হোসেন খুলনা বিল্ডার্স লিমিটেড নামের একটি অস্তিত্বহীন প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে ২০ কোটি টাকার ঋণ অনুমোদন করান। পরে তা আত্মসাৎ করেন। কর্মচারীদের নামে জালিয়াতির মাধ্যমে ঋণ নিয়েও ২০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে বলে বিএফআইইউর প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

সর্বশেষ খবর