শিরোনাম
সোমবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ টা

পায়রা সেতু দেখতে দর্শনার্থীর ভিড়

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল ও পটুয়াখালী প্রতিনিধি

পায়রা সেতু দেখতে দর্শনার্থীর ভিড়

প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধন ঘোষণার পর গতকাল পায়রা সেতুতে স্থানীয় জনগণের ঢল -বাংলাদেশ প্রতিদিন

স্বাধীনতার ৫০ বছর পর দেশের সর্ব দক্ষিণের কুয়াকাটা ও পায়রা সমুদ্রবন্দর পর্যন্ত ফেরিবিহীন সড়ক যোগাযোগ চালু হয়েছে। গতকাল সকালে প্রধানমন্ত্রী ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে পায়রা সেতুর উদ্বোধন ঘোষণার পরপরই হাজারো জনতার ঢল নামে সেতু দর্শনে। এ সময় বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন তারা।

সংশ্লিষ্টরা বলেন, এই সেতু উদ্বোধনের ফলে ঢাকা থেকে বরিশাল হয়ে কুয়াকাটা এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর পর্যন্ত যেতে সময় বাঁচবে। লাঘব হবে ভোগান্তির। দীর্ঘদিনের অপেক্ষার অবসান হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তারা।

পায়রা সেতুতে ঘুরতে আসা স্থানীয় বাসিন্দা লাইলি আক্তার বলেন, আমরা এত দিন দূর থেকে দেখেছি কিন্তু সেতুর ওপরে উঠতে পারিনি। উদ্বোধনের ফলে সেতু দেখতে এলাম। ভালোই লাগছে। তবে রাতে পায়রা সেতু অনেক সুন্দর। পটুয়াখালী শহর থেকে ছেলে-মেয়ে নিয়ে স্বামীর সঙ্গে ঘুরতে আসা সামিয়া ইসলাম বলেন, এত দিন দূর থেকে দেখেছি এবং শুনেছি পায়রা সেতু দৃষ্টিনন্দন। আসলেই দেখতে এসে মুগ্ধ হলাম। এটি এখন মানুষের ভ্রমণের স্পট হবে মন্তব্য করেন তিনি। পায়রা সেতু প্রকল্পের পরিচালক মো. আবদুল হালিম বলেন, এই সেতু উদ্বোধনের ফলে দেশের দক্ষিণাঞ্চলে নিরবচ্ছিন্ন সড়ক যোগাযোগ চালু হলো। এতে ফেরিঘাটের ভোগান্তি থেকে রক্ষা পাবে জনগণ। সেতুর নান্দনিকতায় পর্যটকও আকৃষ্ট হবে। দেশের একমাত্র সেতু পায়রায় নিজস্ব হেলথ মনিটরিং সিস্টেম রয়েছে। এর ফলে যে কোনো ধরনের দুর্যোগ-দুর্ঘটনার আগাম তথ্য পাবে সেতু কর্তৃপক্ষ।

সর্বশেষ খবর