শিরোনাম
প্রকাশ : ৮ মে, ২০২১ ১২:৩৬
প্রিন্ট করুন printer

টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে শঙ্কায় ১৪ লাখ মানুষ

অনলাইন ডেস্ক

টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে শঙ্কায় ১৪ লাখ মানুষ
Google News

দেশে এ পর্যন্ত প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন প্রায় ৫৮ লাখ ২০ হাজার জন। তাদের সবাইকে দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিশ্চিত করতে দরকার প্রায় এক কোটি সাড়ে ১৬ লাখ ডোজ। কিন্তু ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে এ পর্যন্ত অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা এসেছে এক কোটি দুই লাখ ডোজ। সে হিসাবে নতুন করে টিকা না এলে প্রায় ১৪ লাখ মানুষকে নির্ধারিত সময়ে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া সম্ভব হবে না। ভারত থেকে না পেলে যুক্তরাষ্ট্র বা অন্য কোনো দেশ থেকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা সংগ্রহের চেষ্টা করছে সরকার। দ্বিতীয় ডোজ দিতে আট সপ্তাহের বদলে ১২ সপ্তাহ বা তারও বেশি সময় অপেক্ষায় থাকতে হতে পারে। তা না হলে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হবে চীন, রাশিয়া বা কোভ্যাক্সের ভ্যাকসিন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক ডা. রোবেদ আমীন জানান, এই ভ্যাকসিনগুলো আট থেকে ১২ সপ্তাহ বা তার পরবর্তী সময়েও নেওয়া যেতে পারে। ন্যাশনাল টেকনিক্যাল ইভাল্যুশন কমিটি আছে, তারা একসঙ্গে বসে সব কাগজপত্র দেখে বৈজ্ঞানিকভাবে সিদ্ধান্ত নেবে। 

চিকিৎসা বিজ্ঞানী ডা. লিয়াকত আলী জানান, সব ভ্যাকসিনের কাজ হচ্ছে জীবকোষে গিয়ে একটি প্রোটিন তৈরি করা। স্পাইক প্রোটিনের মতো, সেই ভাইরাসের এবং যেটি আমার শরীরে একটি অ্যান্টিবডি তৈরি করবে এবং ইমিউনিটি তৈরি করবে। তার মানে হলো, তারা বিভিন্ন কার্গো দিয়ে পৌঁছাচ্ছে কিন্তু এন্ডে গুডস কিন্তু একই। সুতরাং এর কোনো বৈজ্ঞানিক প্রতিবন্ধকতা থাকার কথা না যে, এগুলো বডিতে ভিন্ন ভিন্ন রিঅ্যাকশন তৈরি করবে। এ ধরনের সম্ভাবনা খুব কম। 

 

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা

এই বিভাগের আরও খবর