Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২৩:৫১

রাস্তার বদলে ভাসমান সেতু

গাইবান্ধা প্রতিনিধি

রাস্তার বদলে ভাসমান সেতু

গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলায় গাইবান্ধা-সাঘাটা সড়কের পোড়াগ্রাম নামক এলাকায় প্রায় ৩৫০ ফুট চলতি বছরের বন্যায় ভেসে যায়। এর ১৯ দিন পর গত ৪ আগস্ট সেখানে বাঁশ ও ড্রাম দিয়ে ভাসমান সেতু তৈরি করে দেয় গাইবান্ধা সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগ। এই সেতু দিয়ে যেমন ভারী যান চলতে পারছে না তেমনি মূল সড়ক থেকে এটি এতটাই নিচে যে সিএনজিচালিত অটোরিকশা, অটোবাইক, মোটরসাইকেলের মতো হালকা যানও ঝুঁকি নিয়ে ওঠানামা করতে হয়। স্থানীয়রা জানান, পানির ওপর বাঁশ পুঁতে সারিবদ্ধ ড্রাম সাজিয়ে তার ওপর বাঁশের পাটাতন বসিয়ে সেতুটি তৈরি করা হয়েছে। রাস্তার বদলে ভাসমান সেতুটি ব্যবহার করতে গিয়ে হালকা যান ও মানুষ সমস্যায় পড়ছে। পুরো সেতুটি ভাসমান থাকায় যানবাহন ওঠার পরই দুলতে থাকে। ফলে হেঁটে পার হওয়া মানুষও দাঁড়িয়ে থাকতে পারে না। বৃষ্টি হলে বাঁশের পাটাতন পিচ্ছিল হয়ে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে।

এই সড়ক দিয়ে গাইবান্ধা শহরের সঙ্গে ফুলছড়ি ও সাঘাটা উপজেলার ১৭টি ইউনিয়নের মানুষ চলাচল করে থাকে। ভারী যান চলতে না পারায় ধান, চাল, পাটসহ ব্যবসায়িক পণ্য পরিবহনের জন্য ট্রাক ঢুকতে পারছে না। এতে কৃষক ও ব্যবসায়ীরা পড়েছেন বিপাকে। গাইবান্ধা সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী আসাদুজ্জামন বলেন, বন্যার পানি নেমে যাওয়ার পরই জরুরিভাবে ভাসমান সেতুটি নির্মাণ করা হয়। এখন প্রয়োজনীয় বরাদ্দ পেলে রাস্তার কাজ শুরু করা হবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর